সোমবার, ২৫-মার্চ-২০১৯ ইং | বিকাল : ০৫:৩৫:০৭ | আর্কাইভ

মোস্তাফিজ ফিরছেন, মুশফিক নেই

তারিখ: ২০১৯-০৩-০৭ ১১:৩৩:৫৩ | ক্যাটেগরী: খেলা | পঠিত: ২২ বার

ওয়েলিংটন টেস্টে তামিম ইকবালের খেলা নিয়ে আশাবাদী অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তবে মুশফিকুর রহিমের খেলার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। মোস্তাফিজুর রহমানের ফেরার ব্যাপারেও আভাস দিলেন মাহমুদউল্লাহ

ওয়েলিংটন টেস্টে মুশফিকুর রহিমকে ‘হয়তো বা পাওয়া যাচ্ছে না’। কাল বাংলাদেশ সময় ভোর চারটা থেকে শুরু হতে যাওয়া সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের আগে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তবে তৃতীয় টেস্টে মুশফিকের খেলার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী। মাহমুদউল্লাহ আশাবাদী ওয়েলিংটন টেস্টে তামিম ইকবালের খেলার ব্যাপারেও।

দ্বিতীয় টেস্টে মুশফিকের খেলা নিয়ে আগেই সংশয় প্রকাশ করেছেন কোচ স্টিভ রোডস। আঙুল ও কবজিতে চোট পাওয়ায় প্রথম টেস্টেও খেলতে পারেননি মুশফিক। হালকা চোট রয়েছে তামিমেরও। সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘তামিমের ব্যাপারে আমি আশাবাদী। আজ ও ব্যাটিং করবে। ওর খেলা নিয়ে আমি আশাবাদী। আর মুশফিককে হয়তো বা পরের ম্যাচে পাচ্ছি না। তৃতীয় ম্যাচে আমরা অবশ্যই ওকে পাব।’

চোটের কারণে সাকিব আল হাসান নিউজিল্যান্ডে আসতে পারেননি। মুশফিক তো চোট পেয়ে টেস্টে এখনো মাঠেই নামতে পারলেন না। তামিমের চোট নিয়েও ফিসফাস চলছে। এ অবস্থায় স্কোয়াডে কোনো বিকল্প ব্যাটসম্যান নেই। বেশির ভাগই স্পিনার। নিউজিল্যান্ড সফরে এটি পরিকল্পনার অংশ ছিল কি না—এই প্রশ্নের জবাবে কিছুটা ব্যাকফুটে গিয়েই অধিনায়ক বললেন, ‘না, এটা পরিকল্পনার অংশ ছিল বলা ঠিক হবে না। আর চোট তো খেলারই অংশ। এটা হলে কিছু করার থাকে না।’

নিউজিল্যান্ড সফরে এর আগেও চোটের থাবায় জর্জরিত হয়েছে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে সিরিজে দেশের ক্রিকেট বোর্ড থেকে ভক্তদের মনোযোগ যেন একটু বেশি-ই থাকে। দলের সুবিধা-অসুবিধা কিংবা চোট নিয়ে বিসিবিকে খুব তৎপর দেখা যায়। বিদেশের মাটিতে সিরিজে বোর্ডের তরফ থেকে দল সেই মনোসংযোগটুকু কি পাচ্ছে? মাহমুদউল্লাহর জবাব, ‘পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে এসব ধাক্কা (চোট) তো মানতেই হবে। অন্যান্য ফ্যাসিলিটিজ যদি বলেন সব ঠিক আছে।’

দুই বছর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এই ওয়েলিংটনেই প্রথম ইনিংসে ৮ উইকেটে ৫৯৫ রান তুলেও হেরেছিল বাংলাদেশ। হেরে যাওয়া ম্যাচে প্রথম ইনিংসে এটি কোনো দলের সর্বোচ্চ রান। এবার সেখানকার উইকেট কেমন হবে? মাহমুদউল্লাহ সবশেষ সফরের প্রসঙ্গ টেনেই বলেন, ‘গতবারও কিন্তু উইকেট এমন সবুজাভ ছিল। প্রথম দিনটা একটু কঠিন হতে পারে। তবে দিন গড়িয়ে চলার সঙ্গে এটা ব্যাটিং সহায়ক হয়ে উঠবে বলেই মনে করি।’

হ্যামিল্টন টেস্টে খেলেননি মোস্তাফিজুর রহমান। ওয়েলিংটনে তাঁর খেলার ব্যাপারে আগেই আভাস দিয়েছিলেন কোচ রোডস। এখানকার মাঠে বাতাস থাকায় মোস্তাফিজকে ব্যবহার করে বিশেষ ফল পাওয়া যাবে বলেই জানিয়েছিলেন বাংলাদেশ দলের এই হেড কোচ। ওয়েলিংটনে মোস্তাফিজ তাহলে কার জায়গায় খেলবেন? খালেদ আহমেদ, আবু জায়েদ ও ইবাদত হোসেন—হ্যামিল্টন টেস্টে এই অনভিজ্ঞ তিন বোলার নিয়েই বা মাহমুদউল্লাহর ভাবনা কি? ‘ওরা (তিন পেসার) অনেক কিছু চেষ্টা করেছে। শর্ট বল, বাইরেও করেছে। আরেকটু ধারাবাহিক হলে ভালো লাগবে। অবশ্যই ওরা ভালো বোলার। ওদের একটু সময় দিতে হবে। আর মোস্তাফিজ হয়তোবা অবশ্যই ফিরবে। তবে কার জায়গায় সেটি ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেব।’

তারিখ সিলেক্ট করে খুজুন