রবিবার, ২২-সেপ্টেম্বর-২০১৯ ইং | বিকাল : ০৩:৪৫:৪১ | আর্কাইভ

১৭ গার্মেন্টেসে সাড়ে ৩ কোটি টাকার অনিয়ম

তারিখ: ২০১৯-০৯-০১ ০১:০২:৪৭ | ক্যাটেগরী: অর্থনীতি | পঠিত: ১৬ বার

ঢাকা ও গাজীপুরের ১৭ গার্মেন্টস বিভিন্ন সুবিধার অপব্যবহার করে সাড়ে ৩ কোটি টাকার অনিয়ম করেছে। এই অনিয়ম শনাক্ত করে প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে টাকাও আদায় করেছে ঢাকা কাস্টমস অ্যান্ড ব্ন্ড কমিশনারেট। এছাড়া অনিয়মকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে বিজিএমইএর মাধ্যমে ব্যবস্থা নিতে এনবিআরকে চিঠি দেওয়ার তাগিদ দিয়েছে কাস্টমস অ্যান্ড বন্ড কমিশনারেট।

কাস্টমসের অনুসন্ধানে জানা যায়—বন্ড সুবিধার আওতায় পণ্য এনে খোলাবাজারে বিক্রি, প্রাপ্যতার অতিরিক্ত আমদানি, প্রাপ্যতাহীন আমদানি, ঘোষণার অতিরিক্ত আমদানি ও এক পণ্য ঘোষণায় দিয়ে অন্য পণ্য আমদানি এবং রফতানির আড়ালে এই অনিয়ম করা হয়।

অনিয়মকারী ১৭ গার্মেন্টস হলো— ঢাকার নিপা নিটওয়্যারস, সাভারের মেসার্স রেজা ফ্যাশন, গাজীপুরের ট্রাউজার ওয়ার্ল্ড, বটম গ্যালারি, মোহাম্মদপুরের সেলিব্রেটি এক্সপোর্ট গার্মেন্টস লিমিটেড, ক্যান্টনমেন্টের সিনটেক্স টেক্সটাইল এস অ্যাপারেলস লিমিটেড, গাজীপুরের কাশিমপুরের ইউটা নিটিং অ্যান্ড ডায়িং লিমিটেড, মিরপুরের মেসার্স কার্ডিয়াল ডিজাইন, আল ইসলাম টেক্স লিমিটেড, করতোয়া অ্যাপারেলস, কায়সার সানকো জেবিটেক্স, টিএনজেড অ্যাপারেলস, এপেক্স ল্যানজারিং, জেনেসিস ফ্যাশন্স, ল্যাভেন্ডার গার্মেন্টস লিমিটেড।

আর এই ১৭টি প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম উদঘাটন করে ৩ কোটি ৫৩ লাখ ১৬ হাজার ৩৭৬ টাকা ১৮ পয়সা শুল্ককর আদায় করে ঢাকা কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট। আর এই প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সম্প্রতি বিজিএমইএ এর কাছে অনুরোধ করতে এনবিআরকে চিঠি দিয়েছে ঢাকা কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) বলছে, সরকার ব্যবসায়ের উন্নয়নের জন্য শতভাগ রফতানিকারকদের শুল্কমুক্ত সুবিধায় কাঁচামাল আমদানির সুযোগ দিয়েছে। বন্ডেড সুবিধার কোনো পণ্য বাইরে বিক্রি করতে হলে সরকারের প্রযোজ্য শুল্ক-কর পরিশোধ করতে হয়। কিন্তু এ সুবিধার অপব্যবহার করে এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী। এতে সরকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

সম্প্রতি এনবিআর চেয়ারম্যানের নির্দেশনায় নড়েচড়ে বসে বন্ড কমিশনারেটগুলো। যার ধারাবাহিকতায় কমিশনারেটগুলো চালাতে থাকে অভিযান। আর সেসব অভিযানে বন্ডের অপব্যবহার করা প্রতিষ্ঠানগুলোর গোমর বেরিয়ে আসে।

এনবিআর সূত্রে জানা যায়, ঢাকা কাস্টমস বন্ড কমিশনারেটের অন্তভুক্ত বিজিএমইএ এর ১৭টি গার্মেন্টস প্রতিষ্ঠান ধারাবাহিকভাবে অনিয়ম করে যাচ্ছিল। যার কারণে প্রতিষ্ঠানগুলোর অনিয়ম উৎঘাটন করে মামলা করে ঢাকা কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট।

ঢাকা কাস্টমস বন্ড কমিশনারেটের ১২টি প্রিভেনটিভ টিম বন্ড অনিয়ম রোধে কাজ করছে। আর এনবিআর বলছে, গার্মেন্টেস প্রতিষ্ঠানগুলো যখন কোনো অনিয়ম করে তখন বিজিএমইএর পক্ষ থেকে এনবিআরকে নানা সুপারিশ করা হয়। কিন্তু অনিয়ম করা প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দেখা যায় না বিজিএমইএকে। তাই এবার এনবিআরের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নিতে বিজিএমইএকে অনুরোধ করতে চিঠি দিয়েছে ঢাকা কাস্টমস বন্ড কমিশনারেট।

তারিখ সিলেক্ট করে খুজুন

A PHP Error was encountered

Severity: Core Warning

Message: PHP Startup: Unable to load dynamic library '/opt/cpanel/ea-php56/root/usr/lib64/php/modules/pdo_mysql.so' - /opt/cpanel/ea-php56/root/usr/lib64/php/modules/pdo_mysql.so: cannot open shared object file: No such file or directory

Filename: Unknown

Line Number: 0

Backtrace: