বৃহঃবার, ২০-জুন-২০১৯ ইং | বিকাল : ০৪:৫৬:৩৮ | আর্কাইভ

সুনামগঞ্জ ও সিরাজগঞ্জে বাস-লেগুনা সংঘর্ষে নিহত ১৫

তারিখ: ২০১৯-০৬-০২ ০২:২৯:০৯ | ক্যাটেগরী: সারা দেশ | পঠিত: ৬২ বার

সুনামগঞ্জ ও সিরাজগঞ্জে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় ১৫জন নিহত হয়েছে। উভয় জায়গায় বাস-লেগুনা সংঘর্ষে আহত হয়েছে ১২জন। 
এ বিষয়ে আমাদের সিরাজগঞ্জ সংবাদদাতা জানিয়েছেন, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলায় বাস ও লেগুনা সংঘর্ষে আটজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন ৪জন। রোববার পৌনে ১টার দিকে বগুড়া নগরবাড়ী হাইওয়ের বোয়ালিয়া বাজারের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে, তারা হলেন- উল্লাপাড়ার কৃষ্ণপুর গ্রামের সবুজ (৩০) ও উপজেলার পাগলা বোয়ালিয়া এলাকার রেজাউল (৩২)। উল্লাপাড়া থানার ওসি দেওয়ান কৌশিক আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


 
তিনি জানান, দুপুর পৌনে ১টার দিকে বোয়ালিয়া বাজারের কাছে ঢাকা থেকে মাগুরাগামী পাবনা এক্সপ্রেসের একটি যাত্রীবাহী বাসের সাথে শাহজাদপুর থেকে সিরাজগঞ্জগামী লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই লেগুনাচালকসহ আট যাত্রীর মৃত্যু হয় এবং আহত হন অন্তত দুজন। আহতদের সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতদের উদ্ধারের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান ওসি।

এদিকে আমাদের সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা জানিয়েছেন, সুনামগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে লেগুনা চালকসহ সাতজন ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন অপর আট যাত্রী। রোববার সকাল আনুমানিক ৮টায় সুনামগঞ্জ-দিরাই আঞ্চলিক সড়কের পাথারিয়া গণিগঞ্জ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, হলেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের দূর্বকান্দা গ্রামের ইষ্টু মিয়ার ছেলে মো: সাগর মিয়া (১৬), একই গ্রামের ফজল মিয়ার ছেলে মো: লিমন মিয়া (১৭), মো: আলীর ছেলে মো: আফজাল মিয়া (১৭) ও লেগুনার চালক জয়কলস ইউনিয়নের ঘাগলি গ্রামের আলী আকবরের ছেলে মো: নোমান (২৮)। তাৎক্ষণিক বাকি নিহত তিনজনের নাম ও পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি।


 
এ ঘটনায় আহত আটজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদেরকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এরমধ্যে দু’জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গুরুতর আহতরা হলেন, জেলার শাল্লা উপজেলার কাশিপুর গ্রামের রাধা কৃষ্ণের ছেলে শংকর দাস (২১), তার স্ত্রী তারামণি (১৮), দিরাই উপজেলার মকসদুপুর গ্রামের মহরম আলীর ছেলে মো: কাশেম (২৪), দিরাই ভাটিপাড়া ইউনিয়নের আবুল হোসেনের ছেলে মো: রাজু (২০), দিরাই গচিয়া গ্রামের ইমান আলীর ছেলে মো: কাজল (৩০), দক্ষিণ সুনামগঞ্জের পশ্চিম বুরগাঁও ইউনিয়নের দুর্বাকান্দা ঠাকুরভোগ গ্রামের ফজল মিয়ার ছেলে রেজাউল (১৬) ও দিরাই রফিনগর এলাকার সেচনি গ্রামের ফুল মিয়ার ছেলে মো: ফজলু করিম (৩০)। আরেকজনের পরিচয় জানা যায়নি।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আজ রোববার সকাল আনুমানিক ৮টায় ঢাকা থেকে লিমন পরিবহণ একটি যাত্রীবাহী বাস দিরাই যাওয়ার পথে এবং দিরাই থেকে সুনামগঞ্জে আসার পথে একটি যাত্রীবাহী লেগুনা গাড়ি দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের গণিগঞ্জ এলাকায় আসামাত্র লিমন পরিবহন বাস ও লেগুনা গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে দুটি গাড়ি পার্শ্ববর্তী খাদে পড়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানা পুলিশ ও জেলা ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছেন।

এ ব্যপারে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো: হারুন অর রশিদ জানান, পুলিশ ও ফায়াস সার্ভিসের লোকজন উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছে।

তারিখ সিলেক্ট করে খুজুন