বৃহঃবার, ২০-জুন-২০১৯ ইং | সন্ধা : ০৬:০১:২০ | আর্কাইভ

ইমরানের আমন্ত্রণ না পাওয়া নিয়ে যা বললেন পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তারিখ: ২০১৯-০৫-২৮ ০৩:৪৭:৫৬ | ক্যাটেগরী: আন্তর্জাতিক | পঠিত: ২৫ বার

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথ অনুষ্ঠানে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আমন্ত্রণ না জানানোর বিষয়টিকে ভারতের ‘অভ্যন্তরীণ রাজনীতি’ বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি।


কোরেশি বলেন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে নরেন্দ্র মোদির শপথ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানোর বিষয়টি ভারতের ‘অভ্যন্তরীণ রাজনীতি’ অনুমোদন করে না।

সোমবার রাতে জিও নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ভারতের জাতীয় নির্বাচনে পাকিস্তান একটি বড় ইস্যু ছিল জানিয়ে মাহমুদ কোরেশি বলেন, নির্বাচনে সমর্থন আদায়ে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধজিগির ছিল নরেন্দ্র মোদির অন্যতম হাতিয়ার। তাই খুব দ্রুত মোদি তার এমন অবস্থান থেকে সরে যাবেন, এমন চিন্তা করাটা বোকামি হবে।

তবে ভারতের নতুন সরকার পুরোনো বিভেদ ভুলে নতুনভাবে চলবে বলেও আশা পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর। তিনি বলেন, খুব শিগগির ভারত নতুন পন্থা অবলম্বন করবে বলে আমরা আশা করি। কারণ এই অঞ্চলটি অশান্ত থাকুক, পাকিস্তান এটা চায় না।

উত্তেজনা বা যুদ্ধ কোনো বিষয়ের সমাধান নয়। আলোচনার মাধ্যমেই সংকটের নিরসন করতে হবে।

প্রসঙ্গত ভারতের লোকসভা নির্বাচনে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ভূমিধস জয় পেয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আগামী বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন নরেন্দ্র মোদি। তবে সেই শপথ অনুষ্ঠানে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রথমবার শপথ অনুষ্ঠানে সার্কভুক্ত সব দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন মোদি।

সেই সময় সার্কের সদস্য রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মোদির অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন পাকিস্তানের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ।

তবে এবার মোদির অভিষেক অনুষ্ঠানে বিমসটেক জোটভুক্ত দেশের নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে।

দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা-সার্ককে পাশে রেখে গত কয়েক বছর ধরেই বঙ্গোপসাগরীয় অর্থনৈতিক জোট বিমসটেককে গুরুত্ব দিচ্ছে ভারত।

ভারতের সংবাদমাধ্যম বলছে, এবার পাকিস্তানকে বাদ দিতেই সার্কের বদলে বিমসটেককে সামনে আনা হয়েছে।

তারিখ সিলেক্ট করে খুজুন