ঢাকা ১০:২৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কৃষি ঋণ বিতরণ সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকা

  • ফখরুল ইসলাম
  • আপডেট সময় ০৭:০৪:০৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 314

কৃষি ঋণ বিতরণ সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকা

চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত ৫ মাসে দেশের ব্যাংকগুলো ১৪ হাজার ৪১৮ কোটি টাকা কৃষি ঋণ বিতরণ করেছে। তা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ১ হাজার ৫৪৭ কোটি টাকা বেশি। আগের বছর একই সময়ে কৃষি ঋণ বিতরণ হয়েছিল ১২ হাজার ৮৭১ কোটি ১১ লাখ টাকা। রোববার (২৪ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরে কৃষি ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩৫ হাজার কোটি টাকা। গত ৫ মাসের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৪ হাজার ৫৮৩ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মোতাবেক ব্যাংকগুলোকে মোট ঋণের মধ্যে ন্যূনতম ২ শতাংশ কৃষি ঋণ বিতরণ করতে হয়। কোনো ব্যাংক লক্ষ্য পূরণে ব্যর্থ হলে ওই ব্যাংককে জরিমানা গুনতে হয়।

পাঁচ মাসে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলো কৃষি ঋণ বিতরণ করেছে ৫ হাজার ৯৩০ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। বিদেশি ব্যাংকগুলো বিতরণ করেছে ৮৫৪ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো বিতরণ করেছে ৯ হাজার ২০৫ কোটি ২২ লাখ টাকা।

চার মাসে সর্বোচ্চ কৃষি ঋণ বিতরণকারী ব্যাংকগুলো হলো—কৃষি ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ড ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক। সর্বনিম্ন কৃষি ঋণ বিতরণ করেছে পদ্মা ব্যাংক।

ফসলের মৌসুমের ভিত্তিতে সারা বছর সমান হারে কৃষি ঋণ দেওয়ার নির্দেশ থাকলেও কয়েকটি ব্যাংক ঋণ বিতরণই শুরু করেনি। ব্যাংকগুলো হলো বিদেশি উরি ব্যাংক ও দেশি সিটিজেন ব্যাংক।

 

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর প্রশ্নই নেই: বাইডেন

কৃষি ঋণ বিতরণ সাড়ে ১৪ হাজার কোটি টাকা

আপডেট সময় ০৭:০৪:০৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩

চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত ৫ মাসে দেশের ব্যাংকগুলো ১৪ হাজার ৪১৮ কোটি টাকা কৃষি ঋণ বিতরণ করেছে। তা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ১ হাজার ৫৪৭ কোটি টাকা বেশি। আগের বছর একই সময়ে কৃষি ঋণ বিতরণ হয়েছিল ১২ হাজার ৮৭১ কোটি ১১ লাখ টাকা। রোববার (২৪ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরে কৃষি ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩৫ হাজার কোটি টাকা। গত ৫ মাসের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৪ হাজার ৫৮৩ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মোতাবেক ব্যাংকগুলোকে মোট ঋণের মধ্যে ন্যূনতম ২ শতাংশ কৃষি ঋণ বিতরণ করতে হয়। কোনো ব্যাংক লক্ষ্য পূরণে ব্যর্থ হলে ওই ব্যাংককে জরিমানা গুনতে হয়।

পাঁচ মাসে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলো কৃষি ঋণ বিতরণ করেছে ৫ হাজার ৯৩০ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। বিদেশি ব্যাংকগুলো বিতরণ করেছে ৮৫৪ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো বিতরণ করেছে ৯ হাজার ২০৫ কোটি ২২ লাখ টাকা।

চার মাসে সর্বোচ্চ কৃষি ঋণ বিতরণকারী ব্যাংকগুলো হলো—কৃষি ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ড ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক। সর্বনিম্ন কৃষি ঋণ বিতরণ করেছে পদ্মা ব্যাংক।

ফসলের মৌসুমের ভিত্তিতে সারা বছর সমান হারে কৃষি ঋণ দেওয়ার নির্দেশ থাকলেও কয়েকটি ব্যাংক ঋণ বিতরণই শুরু করেনি। ব্যাংকগুলো হলো বিদেশি উরি ব্যাংক ও দেশি সিটিজেন ব্যাংক।