ঢাকা ০৮:০৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মানবাধিকার লালন করে পুলিশ, লঙ্ঘন নয়: বিপ্লব কুমার

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৩:৫২:৩৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২৩
  • ১৩২ বার পড়া হয়েছে

পুলিশ মানবাধিকার সংরক্ষণ করে মন্তব্য করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বলেছেন, ‘মানবাধিকার কেউ যদি লঙ্ঘন করে, তাকে আমরা আইনের আওতায় আনি। কেউ যদি বলে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ বা বাংলাদেশ পুলিশ মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে, তাহলে এটি হবে একটি ঢালাও মন্তব্য। একটি ভিত্তিহীন, অমূলক ও সর্বজনীনভাবে মিথ্যা অভিযোগ। পুলিশ মানবাধিকার লালন করে, পালন করে।’

রোববার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে ডিএমপি সদর দপ্তরে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। ‘পুলিশ মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে’- একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এসব কথা বলেন।

বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, ‘আমরা মানবাধিকার রক্ষা করার জন্য সবসময় কাজ করে থাকি। যদি কেউ মানবাধিকার লঙ্ঘনের শিকার হন, আমরা তাকে নিরাপত্তা দেই। কাজেই মানবাধিকার লঙ্ঘন করা তো দূরের কথা, আমরা মানবাধিকারকে সম্মান করি, মানবাধিকার রক্ষা করি। যদি কেউ মানবাধিকার লঙ্ঘন করেন তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসি।’

পুলিশের মনোবল ভাঙার জন্য বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে বিভিন্ন দিক থেকে অনেক কিছু বলা হয়, করা হয়ে থাকে বলেও মন্তব্য করেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

গত ২৮ অক্টোবরের আগে ও পরের পরিস্থিতি উল্লেখ করে বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, ‘ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মনোবল ভেঙে দেওয়ার জন্য পুলিশের ওপর বিভিন্ন ধরনের আক্রমণ হয়। আমাদের পুলিশ সদস্যকে হত্যা করা হয়। কিন্তু আমি বলবো ডিএমপির পুলিশ সদস্যদের মনোবল অত্যন্ত উচ্চ। কাজেই কোনো কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে কিংবা কোনো অভিযোগের মাধ্যমেই আমাদের মনোবল ভাঙা যাবে না। আমাদের মনোবল অত্যন্ত দৃঢ় রয়েছে। এই দেশ এবং মাটির জন্য যতটুকু ভূমিকা রাখা প্রয়োজন, ততটুকু ভূমিকা রাখতে আমরা বিন্দুমাত্র কুণ্ঠাবোধ করবো না।’

তিনি আরও বলেন, ‘পুলিশ মানবাধিকার লালন করে, পালন করে। পুলিশকে অভিযুক্ত করার জন্য কে কোথায় অভিযোগ করছে, পুলিশের মনোবল হ্রাস করার জন্য- সেটা তার অসৎ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। অসৎ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে কেউ যদি কোনোকিছু করে সে বিষয়ে বাংলাদেশের মানুষ সচেতন রয়েছে। তারা বুঝতে পারবে কোনটা সত্য, কোনটা মিথ্যা। মানুষ এখন আর আগের মতো নেই, আপনি বললেই বিশ্বাস করে ফেলবে তেমনটা কিন্তু নয়।’

মানবাধিকার লালন করে পুলিশ, লঙ্ঘন নয়: বিপ্লব কুমার

আপডেট সময় ০৩:৫২:৩৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২৩

পুলিশ মানবাধিকার সংরক্ষণ করে মন্তব্য করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) যুগ্ম-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বলেছেন, ‘মানবাধিকার কেউ যদি লঙ্ঘন করে, তাকে আমরা আইনের আওতায় আনি। কেউ যদি বলে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ বা বাংলাদেশ পুলিশ মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে, তাহলে এটি হবে একটি ঢালাও মন্তব্য। একটি ভিত্তিহীন, অমূলক ও সর্বজনীনভাবে মিথ্যা অভিযোগ। পুলিশ মানবাধিকার লালন করে, পালন করে।’

রোববার (৩ ডিসেম্বর) দুপুরে ডিএমপি সদর দপ্তরে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। ‘পুলিশ মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে’- একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এসব কথা বলেন।

বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, ‘আমরা মানবাধিকার রক্ষা করার জন্য সবসময় কাজ করে থাকি। যদি কেউ মানবাধিকার লঙ্ঘনের শিকার হন, আমরা তাকে নিরাপত্তা দেই। কাজেই মানবাধিকার লঙ্ঘন করা তো দূরের কথা, আমরা মানবাধিকারকে সম্মান করি, মানবাধিকার রক্ষা করি। যদি কেউ মানবাধিকার লঙ্ঘন করেন তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসি।’

পুলিশের মনোবল ভাঙার জন্য বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে বিভিন্ন দিক থেকে অনেক কিছু বলা হয়, করা হয়ে থাকে বলেও মন্তব্য করেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

গত ২৮ অক্টোবরের আগে ও পরের পরিস্থিতি উল্লেখ করে বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, ‘ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মনোবল ভেঙে দেওয়ার জন্য পুলিশের ওপর বিভিন্ন ধরনের আক্রমণ হয়। আমাদের পুলিশ সদস্যকে হত্যা করা হয়। কিন্তু আমি বলবো ডিএমপির পুলিশ সদস্যদের মনোবল অত্যন্ত উচ্চ। কাজেই কোনো কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে কিংবা কোনো অভিযোগের মাধ্যমেই আমাদের মনোবল ভাঙা যাবে না। আমাদের মনোবল অত্যন্ত দৃঢ় রয়েছে। এই দেশ এবং মাটির জন্য যতটুকু ভূমিকা রাখা প্রয়োজন, ততটুকু ভূমিকা রাখতে আমরা বিন্দুমাত্র কুণ্ঠাবোধ করবো না।’

তিনি আরও বলেন, ‘পুলিশ মানবাধিকার লালন করে, পালন করে। পুলিশকে অভিযুক্ত করার জন্য কে কোথায় অভিযোগ করছে, পুলিশের মনোবল হ্রাস করার জন্য- সেটা তার অসৎ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। অসৎ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে কেউ যদি কোনোকিছু করে সে বিষয়ে বাংলাদেশের মানুষ সচেতন রয়েছে। তারা বুঝতে পারবে কোনটা সত্য, কোনটা মিথ্যা। মানুষ এখন আর আগের মতো নেই, আপনি বললেই বিশ্বাস করে ফেলবে তেমনটা কিন্তু নয়।’