ঢাকা ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নওগাঁয় ইউপি কার্যালয়ে ঢুকে চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে জখম

নওগাঁর রানীনগর উপজেলার পারইল ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) কার্যালয়ে ঢুকে চেয়ারম্যান জাহিদুর রহমানকে (৪৫) এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

রোববার (১২ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত ইউপি চেয়ারম্যানকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জাহিদুর রহমান রানীনগর উপজেলা যুবদলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক। হেলমেট ও মাস্ক পরে থাকায় হামলাকারীদের কেউ চিনতে পারেননি। এ নিয়ে গত দুই মাসে রানীনগর ও আত্রাই উপজেলায় বিএনপির চার নেতা-কর্মীকে কুপিয়ে জখমের ঘটনা ঘটল। বিএনপি নেতাদের অভিযোগ, বিএনপি নেতা-কর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে একের পর এক এসব হামলা চালানো হচ্ছে।

পারইল ইউনিয়ন পরিষদের সচিব তরিকুল ইসলাম বলেন, সকালে চেয়ারম্যান জাহিদ ইউপি কার্যালয়ে বসে কাজ করছিলেন। এ সময় তিনটি মোটরসাইকেলে করে ৫ থেকে ৬ হেলমেট ও মাস্ক পরিহিত লোকজন কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। পরে তারা ধারাল অস্ত্র দিয়ে চেয়াম্যানকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ২ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। চেয়ারম্যানের ডান হাতের কব্জি প্রায় বিচ্ছিন্নসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করা হয়েছে।

পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় জাহিদুর রহমানকে উদ্ধার করে আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁকে বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

রানীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু ওবায়েদ বলেন, হেলমেট ও মাস্ক পরা কয়েক লোক কার্যালয়ে ঢুকে চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে জখম করেছে। তাঁর পিঠে ও ডান হাতের কবজিতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। খবর পেয়ে তাঁরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। দুর্বৃত্তদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এর আগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় মালিপুকুর বাজার এলাকায় বিএনপির কর্মী ও স্কুলশিক্ষক আবুল হোসেন এবং একই দিন রানীনগর উপজেলার কালিগ্রাম এলাকায় উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেনকে কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা। গত ২৪ অক্টোবর রানীনগর বরগাছা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু রায়হানকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটে।

নওগাঁ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, চলমান আন্দোলনে বিএনপির নেতা–কর্মীরা যাতে অংশগ্রহণ না করেন, সে জন্য আতঙ্ক সৃষ্টি করতে বিএনপির নেতা-কর্মীদের টার্গেট করে হামলা চালানো হচ্ছে। পুলিশ প্রশাসনও নীরব। পরপর চারটি ঘটনা ঘটল, কিন্তু এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। এ ধরনের ঘটনা ঘটতে থাকলে রানীনগর ও আত্রাই আবারও সন্ত্রাসের জনপদে পরিণত হবে।

এ বিষয়ে নওগাঁর পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক বলেন, সর্বশেষ ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনাসহ সম্প্রতি ঘটে যাওয়া সব ঘটনাকেই গুরুত্বসহকারে দেখা হচ্ছে। তবে আপাতত মনে হচ্ছে, এগুলো ব্যক্তিগত রেশারেশির কারণে ঘটনা ঘটতে পারে। কোনো সংঘবদ্ধ চক্র কোনো নির্দিষ্ট স্বার্থ হাসিলের জন্য এসব ঘটনা ঘটিয়ে চলছে, তেমনটা মনে হচ্ছে না।

জনপ্রিয় সংবাদ

নওগাঁয় ইউপি কার্যালয়ে ঢুকে চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে জখম

আপডেট সময় ০৭:১০:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ নভেম্বর ২০২৩

নওগাঁর রানীনগর উপজেলার পারইল ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) কার্যালয়ে ঢুকে চেয়ারম্যান জাহিদুর রহমানকে (৪৫) এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

রোববার (১২ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত ইউপি চেয়ারম্যানকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জাহিদুর রহমান রানীনগর উপজেলা যুবদলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক। হেলমেট ও মাস্ক পরে থাকায় হামলাকারীদের কেউ চিনতে পারেননি। এ নিয়ে গত দুই মাসে রানীনগর ও আত্রাই উপজেলায় বিএনপির চার নেতা-কর্মীকে কুপিয়ে জখমের ঘটনা ঘটল। বিএনপি নেতাদের অভিযোগ, বিএনপি নেতা-কর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করতে একের পর এক এসব হামলা চালানো হচ্ছে।

পারইল ইউনিয়ন পরিষদের সচিব তরিকুল ইসলাম বলেন, সকালে চেয়ারম্যান জাহিদ ইউপি কার্যালয়ে বসে কাজ করছিলেন। এ সময় তিনটি মোটরসাইকেলে করে ৫ থেকে ৬ হেলমেট ও মাস্ক পরিহিত লোকজন কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। পরে তারা ধারাল অস্ত্র দিয়ে চেয়াম্যানকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ২ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। চেয়ারম্যানের ডান হাতের কব্জি প্রায় বিচ্ছিন্নসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করা হয়েছে।

পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় জাহিদুর রহমানকে উদ্ধার করে আদমদীঘি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁকে বগুড়া শহীদ জিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

রানীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু ওবায়েদ বলেন, হেলমেট ও মাস্ক পরা কয়েক লোক কার্যালয়ে ঢুকে চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে জখম করেছে। তাঁর পিঠে ও ডান হাতের কবজিতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। খবর পেয়ে তাঁরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। দুর্বৃত্তদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এর আগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় মালিপুকুর বাজার এলাকায় বিএনপির কর্মী ও স্কুলশিক্ষক আবুল হোসেন এবং একই দিন রানীনগর উপজেলার কালিগ্রাম এলাকায় উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেনকে কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা। গত ২৪ অক্টোবর রানীনগর বরগাছা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবু রায়হানকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটে।

নওগাঁ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, চলমান আন্দোলনে বিএনপির নেতা–কর্মীরা যাতে অংশগ্রহণ না করেন, সে জন্য আতঙ্ক সৃষ্টি করতে বিএনপির নেতা-কর্মীদের টার্গেট করে হামলা চালানো হচ্ছে। পুলিশ প্রশাসনও নীরব। পরপর চারটি ঘটনা ঘটল, কিন্তু এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। এ ধরনের ঘটনা ঘটতে থাকলে রানীনগর ও আত্রাই আবারও সন্ত্রাসের জনপদে পরিণত হবে।

এ বিষয়ে নওগাঁর পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক বলেন, সর্বশেষ ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনাসহ সম্প্রতি ঘটে যাওয়া সব ঘটনাকেই গুরুত্বসহকারে দেখা হচ্ছে। তবে আপাতত মনে হচ্ছে, এগুলো ব্যক্তিগত রেশারেশির কারণে ঘটনা ঘটতে পারে। কোনো সংঘবদ্ধ চক্র কোনো নির্দিষ্ট স্বার্থ হাসিলের জন্য এসব ঘটনা ঘটিয়ে চলছে, তেমনটা মনে হচ্ছে না।