ঢাকা ০৮:৩০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আওয়ামী লীগ-বিএনপির সংলাপ জরুরি: মেজর হাফিজ

সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আওয়ামী লীগ-বিএনপির সংলাপ জরুরি: মেজর হাফিজ

জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহের মধ্যস্থতায় দেশের আগামী নির্বাচন হলে সেটা ভালো হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর অবসরপ্রাপ্ত হাফিজ উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সংলাপ, সমঝোতা দরকার।তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিকল্পও দলকে ভাবতে হবে। বুধবার (৮ নভেম্বর) সকালে তার বনানীর বাসায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

খুব শিগগির রাজনীতি থেকে বিদায় নেবেন জানিয়ে হাফিজ বলেন, আমার শারীরিক অবস্থা ভালো না, বিদেশে চিকিৎসা নিয়েছি, আবারো যাবো। খুব শিগগির আমি আমার এলাকার নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলোচনা করে রাজনীতি থেকে বিদায় নেবো। তবে শেষ পর্যন্ত বিএনপির কর্মী, সমর্থক হিসেবে থাকবো। গত ৩১ বছর এই দলে আছি। খন্দকার মোশাররফ ও রফিকুল ইসলাম মিয়া ছাড়া স্থায়ী কমিটিতে যারা আছে সবাই আমার জুনিয়র। রাজনীতিতে আমার খুব একটা এখন গুরুত্ব নেই বিএনপিতেও গুরুত্ব নেই। তিন বছর আগে দল শোকজ করেছিল তার ব্যাখ্যার জবাব আজও পায়নি।

হাফিজ আরও বলেন, গত ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিএনপির অংশ নেওয়া উচিত ছিল জানিয়ে তিনি বলেন, ওই সময় সরকারের টালমাটাল অবস্থা ছিল। বুঝতে হবে কোন সময় সরকার এমন ধরনের অফার করে, এখন তো করছে না। বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ না নিলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং লক্ষ্মীপুরে যেভাবে নির্বাচন হয়েছে এভাবে হয়ে যাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

দলে গণতন্ত্রের চর্চা হচ্ছে না দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, দলের হাইকমান্ডের সামনে সঠিক কথা বলার কোনো লোক নেই। সবাই ইয়েস স্যার, রাইট স্যার বলে। একমাত্র সাইফুর রহমানকে দেখেছিলাম তিনি ম্যাডামের সামনে সত্যি কথা বলতেন।

দলের সংস্কার করার জন্য তারেক রহমানের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। তারেক রহমানকে উদ্দেশ্যে করে মেজর হাফিজ বলেন, দলের জন্য সংস্কার কিছু করুন, এভাবে রাজনৈতিক দল চলে না। এ সময় অর্থপাচার প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিও অনুরোধ জানান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।

 

সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আওয়ামী লীগ-বিএনপির সংলাপ জরুরি: মেজর হাফিজ

আপডেট সময় ০১:১২:২২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ নভেম্বর ২০২৩

জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহের মধ্যস্থতায় দেশের আগামী নির্বাচন হলে সেটা ভালো হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর অবসরপ্রাপ্ত হাফিজ উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সংলাপ, সমঝোতা দরকার।তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিকল্পও দলকে ভাবতে হবে। বুধবার (৮ নভেম্বর) সকালে তার বনানীর বাসায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

খুব শিগগির রাজনীতি থেকে বিদায় নেবেন জানিয়ে হাফিজ বলেন, আমার শারীরিক অবস্থা ভালো না, বিদেশে চিকিৎসা নিয়েছি, আবারো যাবো। খুব শিগগির আমি আমার এলাকার নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলোচনা করে রাজনীতি থেকে বিদায় নেবো। তবে শেষ পর্যন্ত বিএনপির কর্মী, সমর্থক হিসেবে থাকবো। গত ৩১ বছর এই দলে আছি। খন্দকার মোশাররফ ও রফিকুল ইসলাম মিয়া ছাড়া স্থায়ী কমিটিতে যারা আছে সবাই আমার জুনিয়র। রাজনীতিতে আমার খুব একটা এখন গুরুত্ব নেই বিএনপিতেও গুরুত্ব নেই। তিন বছর আগে দল শোকজ করেছিল তার ব্যাখ্যার জবাব আজও পায়নি।

হাফিজ আরও বলেন, গত ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিএনপির অংশ নেওয়া উচিত ছিল জানিয়ে তিনি বলেন, ওই সময় সরকারের টালমাটাল অবস্থা ছিল। বুঝতে হবে কোন সময় সরকার এমন ধরনের অফার করে, এখন তো করছে না। বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ না নিলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং লক্ষ্মীপুরে যেভাবে নির্বাচন হয়েছে এভাবে হয়ে যাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

দলে গণতন্ত্রের চর্চা হচ্ছে না দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, দলের হাইকমান্ডের সামনে সঠিক কথা বলার কোনো লোক নেই। সবাই ইয়েস স্যার, রাইট স্যার বলে। একমাত্র সাইফুর রহমানকে দেখেছিলাম তিনি ম্যাডামের সামনে সত্যি কথা বলতেন।

দলের সংস্কার করার জন্য তারেক রহমানের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। তারেক রহমানকে উদ্দেশ্যে করে মেজর হাফিজ বলেন, দলের জন্য সংস্কার কিছু করুন, এভাবে রাজনৈতিক দল চলে না। এ সময় অর্থপাচার প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিও অনুরোধ জানান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।