ঢাকা ০৮:৫৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আলবেনিয়ায় পাঠাবে ইতালি

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আলবেনিয়ায় পাঠাবে ইতালি

আলবেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী এডি রামা ও ইতালির প্রধানমন্ত্রী মেলোনি অভিবাসনপ্রত্যাশীদের বিষয়ে একটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি সই করেন

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত আলবেনিয়ায় রাখার ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে ইতালি। এ লক্ষ্যে আলবেনিয়ায় দুটি সাময়িক আশ্রয় শিবির নির্মাণের বিষয়ে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি হয়েছে। সোমবার ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি এ তথ্য জানান। মেলোনি প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন গত বছর। তার দল ব্রাদার্স অব ইতালির সবচেয়ে বড় নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল সরকার গঠন করার পর ইতালিতে অবৈধ অভিবাসন বন্ধ করা।

চরম ডানপন্থি দলের নেত্রী হিসেবে মেলোনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে সেই লক্ষ্য অর্জনের জন্য কাজ করছিলেন। তা সত্ত্বেও ভূমধ্যসাগর হয়ে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ইতালিতে প্রবেশ বেড়েছে।

২০২৩ সালের পরিসংখ্যান বলছে, গত বছরের তুলনায় অবৈধ পথে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ইতালিতে প্রবেশের হার অনেক বেড়েছে। ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ১০ মাসে যেখানে মোট ৮৮ হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী ইতালিতে পা রাখেন, চলতি বছর একই সময়ে সেই সংখ্যা বেড়ে এক লাখ ৪৫ হাজারে দাঁড়িয়েছে। মেলোনি সরকার মনে করে, আলবেনিয়ায় দুটি অস্থায়ী আশ্রয় শিবির গড়ে সাগরপথে আসা অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সেখানে রেখে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটানো সম্ভব।

সোমবার রোমে আলবেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী এডি রামা ও ইতালির প্রধানমন্ত্রী মেলোনি এমন আশ্রয় শিবির নির্মাণের বিষয়ে একটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি সই করেন। আলবেনিয়ার শেংজিন এবং জাদার অঞ্চলে দুটি রিসিপশন সেন্টারে অপ্রাপ্তবয়স্ক এবং অন্তঃসত্ত্বা নারী ছাড়া বাকি সব অভিবাসনপ্রত্যাশীকে রাখা হবে। তবে কাউকেই দীর্ঘদিন রাখা হবে না।

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের আলবেনিয়ায় পাঠাবে ইতালি

আপডেট সময় ১১:৩৫:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩

আলবেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী এডি রামা ও ইতালির প্রধানমন্ত্রী মেলোনি অভিবাসনপ্রত্যাশীদের বিষয়ে একটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি সই করেন

অভিবাসনপ্রত্যাশীদের একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত আলবেনিয়ায় রাখার ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে ইতালি। এ লক্ষ্যে আলবেনিয়ায় দুটি সাময়িক আশ্রয় শিবির নির্মাণের বিষয়ে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি হয়েছে। সোমবার ইতালির প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি এ তথ্য জানান। মেলোনি প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন গত বছর। তার দল ব্রাদার্স অব ইতালির সবচেয়ে বড় নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল সরকার গঠন করার পর ইতালিতে অবৈধ অভিবাসন বন্ধ করা।

চরম ডানপন্থি দলের নেত্রী হিসেবে মেলোনি প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে সেই লক্ষ্য অর্জনের জন্য কাজ করছিলেন। তা সত্ত্বেও ভূমধ্যসাগর হয়ে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ইতালিতে প্রবেশ বেড়েছে।

২০২৩ সালের পরিসংখ্যান বলছে, গত বছরের তুলনায় অবৈধ পথে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের ইতালিতে প্রবেশের হার অনেক বেড়েছে। ২০২২ সালের জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ১০ মাসে যেখানে মোট ৮৮ হাজার অভিবাসনপ্রত্যাশী ইতালিতে পা রাখেন, চলতি বছর একই সময়ে সেই সংখ্যা বেড়ে এক লাখ ৪৫ হাজারে দাঁড়িয়েছে। মেলোনি সরকার মনে করে, আলবেনিয়ায় দুটি অস্থায়ী আশ্রয় শিবির গড়ে সাগরপথে আসা অভিবাসনপ্রত্যাশীদের সেখানে রেখে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটানো সম্ভব।

সোমবার রোমে আলবেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী এডি রামা ও ইতালির প্রধানমন্ত্রী মেলোনি এমন আশ্রয় শিবির নির্মাণের বিষয়ে একটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি সই করেন। আলবেনিয়ার শেংজিন এবং জাদার অঞ্চলে দুটি রিসিপশন সেন্টারে অপ্রাপ্তবয়স্ক এবং অন্তঃসত্ত্বা নারী ছাড়া বাকি সব অভিবাসনপ্রত্যাশীকে রাখা হবে। তবে কাউকেই দীর্ঘদিন রাখা হবে না।