ঢাকা ০৫:২৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
কিশোরকণ্ঠ জাতীয় সায়েন্স ফিকশন লেখা প্রতিযোগিতা ২০২৩-এর পুরস্কার প্রদান কারামুক্ত নেতাদের নিয়ে রাজধানীতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফল হস্তান্তর অনুষ্ঠিত আমার নাম শুনলেই প্রধানমন্ত্রী বলেন আমি সুদখোর: ড. মুহাম্মদ ইউনূস যুক্তরাষ্ট্রের উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বিএনপি বৈঠক ‘বঙ্গবন্ধু’-অ্যাপ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপির সময়ে ১৮ ঘণ্টা লোডশেডিং থাকত-ওবায়দুল কাদের আমরা গৃহপালিত দল হয়ে গেছি : জিএম কাদের পিরোজপুরে মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগ সভাপতিকে কুপিয়ে জখম আর কোনো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়া সম্ভব নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার গায়ে পুলিশের জ্যাকেট, এসআই প্রত্যাহার

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার গায়ে পুলিশের জ্যাকেট, এসআই প্রত্যাহার

স্বেচ্ছাসেবক লীগের এক নেতার পুলিশের বুলেট প্রুফ জ্যাকেট (ভেস্ট) পরা ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর বগুড়ার ধুনট থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শহিদুল ইসলামকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে সোমবার তাকে বগুড়া পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ধুনট থানার ওসি রবিউল ইসলাম।

গত ৩১ অক্টোবর বগুড়ার ধুনটে পুলিশের বুলেট প্রুফ জ্যাকেট পরে সাজেদুল ইসলাম ফেসবুকে ছবি পোস্ট করেন। এর পরপর সমালোচনা শুরু হয়। পরদিন সাজেদুলকে আটক করে পুলিশ। পাশাপাশি বুলেট প্রুফ ওই জ্যাকেটের দায়িত্বে থাকা এসআই শহিদুলকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দেওয়া হয়। ছবির পোস্টদাতা সাজেদুল ইসলাম ধুনট উপজেলার নীমগাছী ইউনিয়নের নানজার পাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ৩১ অক্টোবর দুপুরের দিকে এসআই শহিদুল পুলিশের কয়েক সদস্য নিয়ে অবরোধের সময় উপজেলার সোনাহাটা বাজার এলাকায় দায়িত্ব পালন করছিলেন। এ সময় এসআই শহিদুল ইসলাম তার বুলেট প্রুফ জ্যাকেটটি খুলে সোনাহাটা বিট পুলিশিং কার্যালয়ে টেবিলে রেখে দেন। ওই সময় সেখানে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সাজেদুল ইসলামও ছিলেন। সাজেদুল জ্যাকেটটি পরে একটি ছবি তোলেন। পরবর্তী সময়ে সেই ছবি তিনি ফেসবুকের স্টোরিতে পোস্ট করেন। মুহূর্তের মধ্যেই ছবিটি ছড়িয়ে পড়ে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রবিউল ইসলাম বলেন, দায়িত্বে অবহেলার জন্য এস আই শহিদুলকে ওইদিনই প্রত্যাহার করা হয়েছিল। সোমবার তাকে সম্পূর্ণভাবে ছাড়পত্র দিয়ে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়। আর সাজেদুল তার ভুল স্বীকার করায় তার বিরুদ্ধে অন্য কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তাছাড়া ওই জ্যাকেট পরে সে বিট পুলিশের কার্যালয়ের বাইরেও যায়নি। এজন্য এমন কাজ আর করবে না মর্মে তার বাবার কাছে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

জনপ্রিয় সংবাদ

কিশোরকণ্ঠ জাতীয় সায়েন্স ফিকশন লেখা প্রতিযোগিতা ২০২৩-এর পুরস্কার প্রদান

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার গায়ে পুলিশের জ্যাকেট, এসআই প্রত্যাহার

আপডেট সময় ০১:৩৬:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩

স্বেচ্ছাসেবক লীগের এক নেতার পুলিশের বুলেট প্রুফ জ্যাকেট (ভেস্ট) পরা ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর বগুড়ার ধুনট থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শহিদুল ইসলামকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে সোমবার তাকে বগুড়া পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ধুনট থানার ওসি রবিউল ইসলাম।

গত ৩১ অক্টোবর বগুড়ার ধুনটে পুলিশের বুলেট প্রুফ জ্যাকেট পরে সাজেদুল ইসলাম ফেসবুকে ছবি পোস্ট করেন। এর পরপর সমালোচনা শুরু হয়। পরদিন সাজেদুলকে আটক করে পুলিশ। পাশাপাশি বুলেট প্রুফ ওই জ্যাকেটের দায়িত্বে থাকা এসআই শহিদুলকে প্রত্যাহারের নির্দেশ দেওয়া হয়। ছবির পোস্টদাতা সাজেদুল ইসলাম ধুনট উপজেলার নীমগাছী ইউনিয়নের নানজার পাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ৩১ অক্টোবর দুপুরের দিকে এসআই শহিদুল পুলিশের কয়েক সদস্য নিয়ে অবরোধের সময় উপজেলার সোনাহাটা বাজার এলাকায় দায়িত্ব পালন করছিলেন। এ সময় এসআই শহিদুল ইসলাম তার বুলেট প্রুফ জ্যাকেটটি খুলে সোনাহাটা বিট পুলিশিং কার্যালয়ে টেবিলে রেখে দেন। ওই সময় সেখানে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সাজেদুল ইসলামও ছিলেন। সাজেদুল জ্যাকেটটি পরে একটি ছবি তোলেন। পরবর্তী সময়ে সেই ছবি তিনি ফেসবুকের স্টোরিতে পোস্ট করেন। মুহূর্তের মধ্যেই ছবিটি ছড়িয়ে পড়ে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রবিউল ইসলাম বলেন, দায়িত্বে অবহেলার জন্য এস আই শহিদুলকে ওইদিনই প্রত্যাহার করা হয়েছিল। সোমবার তাকে সম্পূর্ণভাবে ছাড়পত্র দিয়ে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়। আর সাজেদুল তার ভুল স্বীকার করায় তার বিরুদ্ধে অন্য কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তাছাড়া ওই জ্যাকেট পরে সে বিট পুলিশের কার্যালয়ের বাইরেও যায়নি। এজন্য এমন কাজ আর করবে না মর্মে তার বাবার কাছে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।