ঢাকা ০৭:১৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়ায় বিএসএফ এর মৌচাক স্থাপন

ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়ায় মৌচাক স্থাপন করছে। এর উদ্দেশ্য সম্পর্কে তারা বলেছে, এর মাধ্যমে স্থানীয়দের যেমন জীবিকার সংস্থান হবে, সেই সঙ্গে অপরাধীদের গরু চোরাচালানের জন্য বেড়া কাটা কঠিন হবে। এতে অন্যান্য অপরাধও কমবে।

বিএসএফের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ভারতের বার্তা সংস্থা পিটিআই জানায়, গত ২ নভেম্বর নদীয়া জেলায় সীমান্তের বেড়ায় মৌচাক স্থাপন করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে বাংলাদেশের সীমান্তের দৈর্ঘ্য প্রায় ২ হাজার ২১৭ কিলোমিটার।

ভারতের প্রথাগত চিকিৎসাপদ্ধতি নিয়ে কাজ করা ‘আয়ুষ মন্ত্রণালয়’-এর উদ্যোগে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ বিএসএফ। এই কাজে বিএসএফকে মৌচাক সরবরাহের কাজটিও করেছে আয়ুষ মন্ত্রণালয়।

সীমান্তের বেড়ায় মৌচাক স্থাপনের ধারণাটি প্রথম দেন বিএসএফের ৩২ ব্যাটালিয়নের কমান্ড্যান্ট সুজিত কুমার। তিনি বলেন, মৌমাছিরা যাতে পরাগায়নের জন্য পর্যাপ্ত ফুল পায় সে জন্য মৌচাকের আশপাশে ঔষধি গাছ রোপণ করা হবে। এ ধরনের গাছ সরবরাহের জন্য আয়ুষ মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

ট্যাগস :

জাবিতে পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ চলছে

সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়ায় বিএসএফ এর মৌচাক স্থাপন

আপডেট সময় ০৮:০৩:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ নভেম্বর ২০২৩

ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়ায় মৌচাক স্থাপন করছে। এর উদ্দেশ্য সম্পর্কে তারা বলেছে, এর মাধ্যমে স্থানীয়দের যেমন জীবিকার সংস্থান হবে, সেই সঙ্গে অপরাধীদের গরু চোরাচালানের জন্য বেড়া কাটা কঠিন হবে। এতে অন্যান্য অপরাধও কমবে।

বিএসএফের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ভারতের বার্তা সংস্থা পিটিআই জানায়, গত ২ নভেম্বর নদীয়া জেলায় সীমান্তের বেড়ায় মৌচাক স্থাপন করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে বাংলাদেশের সীমান্তের দৈর্ঘ্য প্রায় ২ হাজার ২১৭ কিলোমিটার।

ভারতের প্রথাগত চিকিৎসাপদ্ধতি নিয়ে কাজ করা ‘আয়ুষ মন্ত্রণালয়’-এর উদ্যোগে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ বিএসএফ। এই কাজে বিএসএফকে মৌচাক সরবরাহের কাজটিও করেছে আয়ুষ মন্ত্রণালয়।

সীমান্তের বেড়ায় মৌচাক স্থাপনের ধারণাটি প্রথম দেন বিএসএফের ৩২ ব্যাটালিয়নের কমান্ড্যান্ট সুজিত কুমার। তিনি বলেন, মৌমাছিরা যাতে পরাগায়নের জন্য পর্যাপ্ত ফুল পায় সে জন্য মৌচাকের আশপাশে ঔষধি গাছ রোপণ করা হবে। এ ধরনের গাছ সরবরাহের জন্য আয়ুষ মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানানো হয়েছে।