ঢাকা ০৪:৩৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সারা দেশে চলছে সরকারের ভয়ংকর গ্রেপ্তার ঝড়: রিজভী

সারা দেশে চলছে সরকারের ভয়ংকর গ্রেপ্তার ঝড়: রিজভী

সারা দেশে ভয়ংকর গ্রেপ্তার ঝড় চলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত বিএনপির সব স্তরের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে অবৈধ সরকারের ধেয়ে আসা গ্রেপ্তার ঝড় চলছে। সারা দেশকে রক্তাক্ত করেছে এই ফ্যাসিবাদী সরকার। দেশকে বিরোধীদল শূন্য করার প্রক্রিয়া হাতে নিয়েছেন তারা। একেবারে নিশ্চুপ, নিস্তব্ধ পরিবেশে তারা নির্বাচনের নামে আরেকটি তামাশা করবেন এবং শেখ হাসিনা যে তালিকা ধরিয়ে দেবেন সেই তালিকা অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করবেন।

রোববার (০৫ নভেম্বর) বিকেলে ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। রিজভী বলেন, গোটা জাতিকে ঋণগ্রস্ত করে শেখ হাসিনা তার অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে চাচ্ছেন। মন্ত্রীদের কথাবার্তা শুনলে মনে হয় তাদের মধ্যে সভ্যতা বলে কিছু নেই। পুলিশ, র‌্যাব, রাষ্ট্রশক্তিকে ব্যবহার করে জনগণের ওপর স্টিম রোলার চালাচ্ছে। এক ভয়ংকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে সরকার।

নেতাকর্মীদের সতর্ক থেকে রাস্তায় নামার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির ওই মুখপাত্র বলেন, বিএনপিসহ বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করার জন্য সরকার বিভিন্ন ধরনের ষড়যন্ত্র চক্রান্ত করছে, তাই সবাইকে শান্তিপূর্ণভাবে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করে এই অবৈধ সরকারের পতন ঘটাতে হবে। তাছাড়া কারও মুক্তি নেই। কারণ যে দেশের পুলিশ নিজে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় তারা কখনও জনগণের বন্ধু হতে পারে না, তারা এখন জনগণের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড়িয়েছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের কঠোর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, অদ্ভুত এক সাধারণ সম্পাদক। আগে দস্যু দল তার প্রতিপক্ষকে ধরে নিয়ে মুক্তিপণ আদায় করার সময় একটা অট্টহাসি দিত, তিনি (ওবায়দুল কাদের) আজকে সেই ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে মুচকি হাসি দিচ্ছেন। ওবায়দুল কাদেররা আজকে রাষ্ট্রশক্তি পুলিশ, র‍্যাবকে ব্যবহার করে তাদের সঙ্গে যৌথভাবে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের ওপর আক্রমণ করছে, মিথ্যা মামলা দিচ্ছে। দেশে এখন ১৯৭১ সালের পরিস্থিতি বিরাজমান। মানুষ কথা বলতে পারছে না। নিজ দেশে স্বাভাবিকভাবে নির্ভয়ে চলতে পারছে না। টিক্কা খান, নিয়াজী খানের ভূমিকা নিয়েছেন ওবায়দুল কাদেররা।

তিনি বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ অবরোধ কর্মসূচি চলছে। আগামীকালও আমাদের অবরোধ কর্মসূচি আছে, শেষ হলে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। এ সময় রিজভী সারা দেশে দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে হামলা মামলার বিবরণ তুলে ধরে বলেন, এ পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের ২৬১ জনের অধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

সারা দেশে চলছে সরকারের ভয়ংকর গ্রেপ্তার ঝড়: রিজভী

আপডেট সময় ০৭:৪৮:২২ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ নভেম্বর ২০২৩

সারা দেশে ভয়ংকর গ্রেপ্তার ঝড় চলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত বিএনপির সব স্তরের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে অবৈধ সরকারের ধেয়ে আসা গ্রেপ্তার ঝড় চলছে। সারা দেশকে রক্তাক্ত করেছে এই ফ্যাসিবাদী সরকার। দেশকে বিরোধীদল শূন্য করার প্রক্রিয়া হাতে নিয়েছেন তারা। একেবারে নিশ্চুপ, নিস্তব্ধ পরিবেশে তারা নির্বাচনের নামে আরেকটি তামাশা করবেন এবং শেখ হাসিনা যে তালিকা ধরিয়ে দেবেন সেই তালিকা অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করবেন।

রোববার (০৫ নভেম্বর) বিকেলে ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। রিজভী বলেন, গোটা জাতিকে ঋণগ্রস্ত করে শেখ হাসিনা তার অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে চাচ্ছেন। মন্ত্রীদের কথাবার্তা শুনলে মনে হয় তাদের মধ্যে সভ্যতা বলে কিছু নেই। পুলিশ, র‌্যাব, রাষ্ট্রশক্তিকে ব্যবহার করে জনগণের ওপর স্টিম রোলার চালাচ্ছে। এক ভয়ংকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে সরকার।

নেতাকর্মীদের সতর্ক থেকে রাস্তায় নামার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির ওই মুখপাত্র বলেন, বিএনপিসহ বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করার জন্য সরকার বিভিন্ন ধরনের ষড়যন্ত্র চক্রান্ত করছে, তাই সবাইকে শান্তিপূর্ণভাবে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করে এই অবৈধ সরকারের পতন ঘটাতে হবে। তাছাড়া কারও মুক্তি নেই। কারণ যে দেশের পুলিশ নিজে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় তারা কখনও জনগণের বন্ধু হতে পারে না, তারা এখন জনগণের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড়িয়েছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের কঠোর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, অদ্ভুত এক সাধারণ সম্পাদক। আগে দস্যু দল তার প্রতিপক্ষকে ধরে নিয়ে মুক্তিপণ আদায় করার সময় একটা অট্টহাসি দিত, তিনি (ওবায়দুল কাদের) আজকে সেই ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে মুচকি হাসি দিচ্ছেন। ওবায়দুল কাদেররা আজকে রাষ্ট্রশক্তি পুলিশ, র‍্যাবকে ব্যবহার করে তাদের সঙ্গে যৌথভাবে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের ওপর আক্রমণ করছে, মিথ্যা মামলা দিচ্ছে। দেশে এখন ১৯৭১ সালের পরিস্থিতি বিরাজমান। মানুষ কথা বলতে পারছে না। নিজ দেশে স্বাভাবিকভাবে নির্ভয়ে চলতে পারছে না। টিক্কা খান, নিয়াজী খানের ভূমিকা নিয়েছেন ওবায়দুল কাদেররা।

তিনি বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ অবরোধ কর্মসূচি চলছে। আগামীকালও আমাদের অবরোধ কর্মসূচি আছে, শেষ হলে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। এ সময় রিজভী সারা দেশে দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে হামলা মামলার বিবরণ তুলে ধরে বলেন, এ পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের ২৬১ জনের অধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।