ঢাকা ১২:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

ফের উৎপাদন বন্ধ রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের

আবারও বাগেরহাটের রামপাল তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রর উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে।

রোববার (৫ নভেম্বর) সকাল সোয়া ছয়টার দিকে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে কেন্দ্রটির উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া ফ্রেন্ডশিপ পাওয়ার কোম্পানি (প্রা.) লিমিটেডের (বিআইএফপিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাঈদ আকরামুল্লাহ গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাঈদ আকরামুল্লাহ বলেন, ‘উৎপাদন বন্ধ হওয়ার খবর পেয়েছি। আশা করি, খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে আবারও উৎপাদন শুরু করা হবে।’

তবে যান্ত্রিক ত্রুটির ধরন বা কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এর আগে চলতি বছর ১৫ এপ্রিল যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে রামপাল তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের উৎপাদন বন্ধ হয়েছিল।

ভারত ও বাংলাদেশের যৌথ অর্থায়নে বাগেরহাটের রামপালে ৯১৫ একর জমিতে ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াটের কয়লানির্ভর কেন্দ্রটি গড়ে তোলা হয়। কাগজপত্রে এর নাম মৈত্রী সুপার থার্মাল পাওয়ার প্রজেক্ট। কয়লানির্ভর এ বিদ্যুৎকেন্দ্রে দুটি ইউনিট আছে, যার প্রতিটি ৬৬০ মেগাওয়াটের। ২০২২ সালের‌ ১৭ ডিসেম্বর বাগেরহাটের রামপালের মৈত্রী সুপার তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রথম ইউনিট বাণিজ্যিক উৎপাদনে যায়। এরপর কয়েক দফা বন্ধ হলেও বর্তমানে কেন্দ্রটির প্রথম ইউনিট চালু রয়েছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

ইরানের প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টারের সন্ধান মিলেছে , ‘প্রাণের অস্তিত্ব নেই’

ফের উৎপাদন বন্ধ রামপাল তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের

আপডেট সময় ০৩:০৬:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৫ নভেম্বর ২০২৩

আবারও বাগেরহাটের রামপাল তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রর উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে।

রোববার (৫ নভেম্বর) সকাল সোয়া ছয়টার দিকে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে কেন্দ্রটির উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া ফ্রেন্ডশিপ পাওয়ার কোম্পানি (প্রা.) লিমিটেডের (বিআইএফপিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাঈদ আকরামুল্লাহ গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাঈদ আকরামুল্লাহ বলেন, ‘উৎপাদন বন্ধ হওয়ার খবর পেয়েছি। আশা করি, খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে আবারও উৎপাদন শুরু করা হবে।’

তবে যান্ত্রিক ত্রুটির ধরন বা কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এর আগে চলতি বছর ১৫ এপ্রিল যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে রামপাল তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের উৎপাদন বন্ধ হয়েছিল।

ভারত ও বাংলাদেশের যৌথ অর্থায়নে বাগেরহাটের রামপালে ৯১৫ একর জমিতে ১ হাজার ৩২০ মেগাওয়াটের কয়লানির্ভর কেন্দ্রটি গড়ে তোলা হয়। কাগজপত্রে এর নাম মৈত্রী সুপার থার্মাল পাওয়ার প্রজেক্ট। কয়লানির্ভর এ বিদ্যুৎকেন্দ্রে দুটি ইউনিট আছে, যার প্রতিটি ৬৬০ মেগাওয়াটের। ২০২২ সালের‌ ১৭ ডিসেম্বর বাগেরহাটের রামপালের মৈত্রী সুপার তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রথম ইউনিট বাণিজ্যিক উৎপাদনে যায়। এরপর কয়েক দফা বন্ধ হলেও বর্তমানে কেন্দ্রটির প্রথম ইউনিট চালু রয়েছে।