ঢাকা ১১:৪৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তাওবার নামাজ যেভাবে পড়বেন

তাওবার নামাজ যেভাবে পড়বেন

কোনো মুসলমান ভুল বা পাপ কাজ করে ফেললে অনুতপ্ত ও লজ্জিত হয়। তখন সে ক্ষমা প্রার্থনার জন্য আল্লাহর দিকে মনোযোগী হয়। তাওবা বা ক্ষমা প্রার্থনার জন্য যে সালাত আদায় করা হয়, তাকে সালাতুত তাওবা বলা হয়। আবু বকর (রা.) বলেন, আমি রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে বলতে শুনেছি, কোনো ব্যক্তি যদি গুনাহ করে, অতঃপর উঠে দাঁড়ায় এবং পবিত্রতা অর্জন করে আর দুই রাকাত সালাত আদায় করে, তারপর আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে।

আল্লাহ তাকে ক্ষমা করে দেন। (ইবনু মাজাহ, হাদিস : ১৩৯৫)
তাওবার জন্য নিম্নের দোয়া বিশেষভাবে সিজদায় ও শেষ বৈঠকে সালাম ফেরানোর আগে পাঠ করতে হবে।

أَسْتَغْفِرُ الله الذي لا إله إلا هو الحَيَّ القيَّومَ وأتوب إليه

উচ্চারণ : ‘আস্তাগফিরুল্লা-হাল্লাজি লা ইলাহা ইল্লা হুওয়াল হাইয়ুল ক্বাইয়ুমু ওয়া আতুবু ইলাইহি’।

অর্থ : আমি ক্ষমা প্রার্থনা করছি সেই আল্লাহর কাছে, যিনি ছাড়া কোনো উপাস্য নেই।

যিনি চিরঞ্জীব ও বিশ্ব চরাচরের ধারক এবং তাঁর কাছে আমি তাওবা করছি। (তিরমিজি, হাদিস : ৩৫৭৭)

ট্যাগস :

তাওবার নামাজ যেভাবে পড়বেন

আপডেট সময় ১০:৪০:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩ নভেম্বর ২০২৩

কোনো মুসলমান ভুল বা পাপ কাজ করে ফেললে অনুতপ্ত ও লজ্জিত হয়। তখন সে ক্ষমা প্রার্থনার জন্য আল্লাহর দিকে মনোযোগী হয়। তাওবা বা ক্ষমা প্রার্থনার জন্য যে সালাত আদায় করা হয়, তাকে সালাতুত তাওবা বলা হয়। আবু বকর (রা.) বলেন, আমি রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে বলতে শুনেছি, কোনো ব্যক্তি যদি গুনাহ করে, অতঃপর উঠে দাঁড়ায় এবং পবিত্রতা অর্জন করে আর দুই রাকাত সালাত আদায় করে, তারপর আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে।

আল্লাহ তাকে ক্ষমা করে দেন। (ইবনু মাজাহ, হাদিস : ১৩৯৫)
তাওবার জন্য নিম্নের দোয়া বিশেষভাবে সিজদায় ও শেষ বৈঠকে সালাম ফেরানোর আগে পাঠ করতে হবে।

أَسْتَغْفِرُ الله الذي لا إله إلا هو الحَيَّ القيَّومَ وأتوب إليه

উচ্চারণ : ‘আস্তাগফিরুল্লা-হাল্লাজি লা ইলাহা ইল্লা হুওয়াল হাইয়ুল ক্বাইয়ুমু ওয়া আতুবু ইলাইহি’।

অর্থ : আমি ক্ষমা প্রার্থনা করছি সেই আল্লাহর কাছে, যিনি ছাড়া কোনো উপাস্য নেই।

যিনি চিরঞ্জীব ও বিশ্ব চরাচরের ধারক এবং তাঁর কাছে আমি তাওবা করছি। (তিরমিজি, হাদিস : ৩৫৭৭)