ঢাকা ১১:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাজায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯ হাজার ছাড়ালো

গাজায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯ হাজার ছাড়ালো

ইসরায়েলি আগ্রাসনে ফিলিস্তিনে নিহতের সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে। অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে এখন পর্যন্ত ৯ হাজার ৬১ জনে পৌঁছেছে। যাদের মধ্যে ৩ হাজার ৭৬০ জন শিশু। একইসঙ্গে আহত হয়েছেন আরও ৩২ হাজার। বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এই তথ্য জানিয়েছে। তুর্কি সম্প্রচারমাধ্যম টিআরটি ওয়ার্ল্ড এই খবর প্রকাশ করেছে।

জাতিসংঘের মানবিক কার্যালয় জানিয়েছে, গাজায় ইসরায়েলের স্থল অভিযানের কারণে ৩ লাখ বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনিকে মানবিক সহায়তা বিতরণ করতে পারছে না তারা।

এক বিবৃতিতে জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সমন্বয়ের অফিস-ওসিএইচএ জানিয়েছেন, ‘উত্তর গাজায় চলমান ইসরায়েলি স্থল অভিযানের কারণে মানবিক সহায়তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে প্রায় ৩ লাখ বাস্তুচ্যুত মানুষ।’

এদিকে, ইসরায়েলি হামলা এবং জ্বালানি সংকটের কারণে বুধবার তুর্কি-ফিলিস্তিনি ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। এটিই গাজার একমাত্র সরকারি ক্যানসার হাসপাতাল। ওসিএইচএ জানিয়েছে, ‘হাসপাতালের জ্বালানি শেষ হয়ে গেছে। ফলে কার্যক্রম বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ। এতে ৭০ জন ক্যানসার রোগী জীবনের ঝুঁকিতে রয়েছেন।

 

ট্যাগস :

গাজায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯ হাজার ছাড়ালো

আপডেট সময় ০৮:৪১:১৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর ২০২৩

ইসরায়েলি আগ্রাসনে ফিলিস্তিনে নিহতের সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে। অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে এখন পর্যন্ত ৯ হাজার ৬১ জনে পৌঁছেছে। যাদের মধ্যে ৩ হাজার ৭৬০ জন শিশু। একইসঙ্গে আহত হয়েছেন আরও ৩২ হাজার। বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এই তথ্য জানিয়েছে। তুর্কি সম্প্রচারমাধ্যম টিআরটি ওয়ার্ল্ড এই খবর প্রকাশ করেছে।

জাতিসংঘের মানবিক কার্যালয় জানিয়েছে, গাজায় ইসরায়েলের স্থল অভিযানের কারণে ৩ লাখ বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনিকে মানবিক সহায়তা বিতরণ করতে পারছে না তারা।

এক বিবৃতিতে জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সমন্বয়ের অফিস-ওসিএইচএ জানিয়েছেন, ‘উত্তর গাজায় চলমান ইসরায়েলি স্থল অভিযানের কারণে মানবিক সহায়তা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে প্রায় ৩ লাখ বাস্তুচ্যুত মানুষ।’

এদিকে, ইসরায়েলি হামলা এবং জ্বালানি সংকটের কারণে বুধবার তুর্কি-ফিলিস্তিনি ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। এটিই গাজার একমাত্র সরকারি ক্যানসার হাসপাতাল। ওসিএইচএ জানিয়েছে, ‘হাসপাতালের জ্বালানি শেষ হয়ে গেছে। ফলে কার্যক্রম বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ। এতে ৭০ জন ক্যানসার রোগী জীবনের ঝুঁকিতে রয়েছেন।