ঢাকা ০৪:৩১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিচ্ছে ইউরোপের ২ দেশ, প্রস্তুত নরওয়েও মুন্সিগঞ্জের আওয়ামী লীগের দু-পক্ষরে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ১ কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় নববধূকে ছাত্রলীগ নেতার অপহরণ ঈদের মাঝেই বাংলাদেশের বুকে ঘটে গেলো নজিরবিহীন একটি ঘটনা পাবনায় তিন দিনব্যাপী ৭০০ বছরের পুরোনো চড়ক পূজা শুরু মধ্যরাতে আড্ডারত ছাত্রলীগের এক গ্রুপের ওপর অপর গ্রুপের হামলা, আহত ৪ একজন মানবিক চেয়ারম্যানের গল্প জাতীয় ঈদগাহে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত উদীয়মান সাংবাদিকদের নিয়ে গাজীপুর রাইটার্স ফোরামের ইফতার রমজানে ছিন্নমূল মানুষের জন্য “সচেতন নাগরিক ফরম-সনা‌ফ” এর নানা আয়োজন।

লাঠিসোঁটাসহ শ্রমিক আন্দোলনে যানচলাচল বন্ধ, উত্তপ্ত মিরপুর এলাকা।

বেতনভাতা বৃদ্ধির দাবিতে গার্মেন্টস পাড়া আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। মিরপুর ১ নম্বর এলাকায় লাঠিসোঁটা হাতে গার্মেন্টস শ্রমিকদের আন্দোলনে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে পুরো এলাকা। এসময় বন্ধ হয়ে যায় যানচলাচল। গতকালের পর আজও লাঠি হাতে কয়েকশ শ্রমিক মিরপুর ১ নম্বর গোলচত্বরে অবস্থান করছেন। সেখানে টেকনিক্যাল থেকে আসা সব ধরনের যানবাহন ঘুরিয়ে দিচ্ছেন শ্রমিকরা। শ্রমিক আন্দোলনের ভয়ে আশপাশের ব্যবসায়ীরাও তাদের দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছেন।

গতকাল মিরপুর এলাকায় বিক্ষোভরত পোশাকশ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে মাঠে নেমেছিলেন ক্ষমতাসীন দলের কিছু নেতা-কর্মীরা। তাঁদের মধ্যে একজনকে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে দেখা গিয়েছিল। প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্যমতে, তিনি কয়েকটি গুলিও ছুড়েছিলেন। এরপর থেকে শ্রমিকরা আরও বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে তারা।

মিরপুর ১ নম্বর এলাকা ছাড়াও ১০, ১১, ১৩ ও ১৪ নম্বর এলাকায় শ্রমিক বিক্ষোভের খবর পাওয়া গেছে।

উল্লেথ্য, পোশাকশ্রমিকদের মজুরি নির্ধারণে মজুরি বোর্ড গঠন করেছে সরকার। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি হওয়ায় শ্রমিকরা ন্যূনতম ২৩ হাজার টাকা মজুরি নির্ধারণের দাবিতে আজ নবম দিনের মতো বিক্ষোভ-সড়ক অবরোধের কর্মসূচি পালন করছেন পোশাকশ্রমিকেরা।

জনপ্রিয় সংবাদ

ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিচ্ছে ইউরোপের ২ দেশ, প্রস্তুত নরওয়েও

লাঠিসোঁটাসহ শ্রমিক আন্দোলনে যানচলাচল বন্ধ, উত্তপ্ত মিরপুর এলাকা।

আপডেট সময় ০১:১৭:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ নভেম্বর ২০২৩

বেতনভাতা বৃদ্ধির দাবিতে গার্মেন্টস পাড়া আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। মিরপুর ১ নম্বর এলাকায় লাঠিসোঁটা হাতে গার্মেন্টস শ্রমিকদের আন্দোলনে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে পুরো এলাকা। এসময় বন্ধ হয়ে যায় যানচলাচল। গতকালের পর আজও লাঠি হাতে কয়েকশ শ্রমিক মিরপুর ১ নম্বর গোলচত্বরে অবস্থান করছেন। সেখানে টেকনিক্যাল থেকে আসা সব ধরনের যানবাহন ঘুরিয়ে দিচ্ছেন শ্রমিকরা। শ্রমিক আন্দোলনের ভয়ে আশপাশের ব্যবসায়ীরাও তাদের দোকানপাট বন্ধ করে দিয়েছেন।

গতকাল মিরপুর এলাকায় বিক্ষোভরত পোশাকশ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে মাঠে নেমেছিলেন ক্ষমতাসীন দলের কিছু নেতা-কর্মীরা। তাঁদের মধ্যে একজনকে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে দেখা গিয়েছিল। প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্যমতে, তিনি কয়েকটি গুলিও ছুড়েছিলেন। এরপর থেকে শ্রমিকরা আরও বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে তারা।

মিরপুর ১ নম্বর এলাকা ছাড়াও ১০, ১১, ১৩ ও ১৪ নম্বর এলাকায় শ্রমিক বিক্ষোভের খবর পাওয়া গেছে।

উল্লেথ্য, পোশাকশ্রমিকদের মজুরি নির্ধারণে মজুরি বোর্ড গঠন করেছে সরকার। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি হওয়ায় শ্রমিকরা ন্যূনতম ২৩ হাজার টাকা মজুরি নির্ধারণের দাবিতে আজ নবম দিনের মতো বিক্ষোভ-সড়ক অবরোধের কর্মসূচি পালন করছেন পোশাকশ্রমিকেরা।