ঢাকা ১১:১৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাবনা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আটক

পাবনা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মাকসুদুর রহমান মাসুদ খন্দকারকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি)। সোমবার (৩০ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে পাবনা শহরের রাঘবপুর এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাবনা পুলিশ সুপার (এসপি) আকবর আলী মুন্সী। তিনি  বলেন, তাকে আটক করা হয়েছে। এখন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এব্যাপারে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

পাবনা জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক আব্দুস সামাদ মন্টু বলেন, চলমান আন্দোলন কর্মসূচি বানচালের জন্য হাসিনা সরকার নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করছে। কিন্তু তাদের আশাপূরণ হবে না। জনগণ এই সরকারকে বিদায় করে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠা করবে। ইতোমধ্যে আমাদের জেলার ৩ শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার  করা হয়েছে। প্রতিদিনই আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।

জেলা জামায়াতের বিবৃতি

পাবনা জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব ও পাবনা আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মাকসুদুর রহমান মাসুদ খন্দকারকে   ডিবি পুলিশ গত ৩০ অক্টোবর দিবাগত রাতে  তার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায।   এডভোকেট মাসুদ খন্দকারের গ্রেপ্তারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন পাবনা জেলা জামায়াতের আমির অধ্যাপক আবু তালেব মন্ডল ও সেক্রেটারি প্রিন্সিপাল ইকবাল হোসাইন। বিবৃতিতে তারা বলেন, গ্রেপ্তার,  হামলা, মামলা দিয়ে কোন অবস্থাতেই জনগণের আন্দোলন দমিয়ে রাখা যাবে না। জনগণ এখন কেয়ারটেকার সরকারের মাধ্যমে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে অনড়। তারা  অ্যাডভোকেট মাসুদ খন্দকার সহ অবৈধভাবে গ্রেপ্তারকৃত  সকল  নেতাকর্মীর  মুক্তির দাবি জানিয়েছেন।

পাবনা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আটক

আপডেট সময় ০৯:৫৩:৪৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩

পাবনা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মাকসুদুর রহমান মাসুদ খন্দকারকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি)। সোমবার (৩০ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে পাবনা শহরের রাঘবপুর এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাবনা পুলিশ সুপার (এসপি) আকবর আলী মুন্সী। তিনি  বলেন, তাকে আটক করা হয়েছে। এখন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। এব্যাপারে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

পাবনা জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক আব্দুস সামাদ মন্টু বলেন, চলমান আন্দোলন কর্মসূচি বানচালের জন্য হাসিনা সরকার নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করছে। কিন্তু তাদের আশাপূরণ হবে না। জনগণ এই সরকারকে বিদায় করে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠা করবে। ইতোমধ্যে আমাদের জেলার ৩ শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার  করা হয়েছে। প্রতিদিনই আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।

জেলা জামায়াতের বিবৃতি

পাবনা জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব ও পাবনা আইনজীবী সমিতির নির্বাচিত সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মাকসুদুর রহমান মাসুদ খন্দকারকে   ডিবি পুলিশ গত ৩০ অক্টোবর দিবাগত রাতে  তার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায।   এডভোকেট মাসুদ খন্দকারের গ্রেপ্তারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন পাবনা জেলা জামায়াতের আমির অধ্যাপক আবু তালেব মন্ডল ও সেক্রেটারি প্রিন্সিপাল ইকবাল হোসাইন। বিবৃতিতে তারা বলেন, গ্রেপ্তার,  হামলা, মামলা দিয়ে কোন অবস্থাতেই জনগণের আন্দোলন দমিয়ে রাখা যাবে না। জনগণ এখন কেয়ারটেকার সরকারের মাধ্যমে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে অনড়। তারা  অ্যাডভোকেট মাসুদ খন্দকার সহ অবৈধভাবে গ্রেপ্তারকৃত  সকল  নেতাকর্মীর  মুক্তির দাবি জানিয়েছেন।