ঢাকা ০৫:২১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
কিশোরকণ্ঠ জাতীয় সায়েন্স ফিকশন লেখা প্রতিযোগিতা ২০২৩-এর পুরস্কার প্রদান কারামুক্ত নেতাদের নিয়ে রাজধানীতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফল হস্তান্তর অনুষ্ঠিত আমার নাম শুনলেই প্রধানমন্ত্রী বলেন আমি সুদখোর: ড. মুহাম্মদ ইউনূস যুক্তরাষ্ট্রের উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বিএনপি বৈঠক ‘বঙ্গবন্ধু’-অ্যাপ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপির সময়ে ১৮ ঘণ্টা লোডশেডিং থাকত-ওবায়দুল কাদের আমরা গৃহপালিত দল হয়ে গেছি : জিএম কাদের পিরোজপুরে মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগ সভাপতিকে কুপিয়ে জখম আর কোনো রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়া সম্ভব নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে ইলেকশন অবজারভার কনসোর্টিয়াম-ইওসি’র উদ্বেগ

চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে ইলেকশন অবজারভার কনসোর্টিয়াম-ইওসি'র উদ্বেগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক দলগুলোর পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ও সহিংসতার ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে নির্বাচন পর্যবেক্ষক হিসেবে নিবন্ধিত ৩২ টি সংস্থার সমন্বয়ে গঠিত ইলেকশন অবজারভার কনসোর্টিয়াম (ইওসি)।

মঙ্গলবার রাজধানীর বিজয় সরণিতে এসপিবিকে মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় উদ্বেগ জানান সংস্থার নির্বাহীরা।

নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থা এসপিবিকে-র নির্বাহী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল নোমান এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পিকেজি এর নির্বাহী পরিচালক এ এস এম আমানুল হাসান তাইমুর।

আলোচনার মূল বিষয়বস্তু ছিল আসন্ন বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও চলমান আর্থ সামাজিক প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার প্রভাব। অংশগ্রহনকারী বক্তারা চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে ইলেকশন অবজারভার কনসোর্টিয়াম (ইওসি) এর পক্ষ থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং সব পক্ষকে শান্তিপূর্ণ ভাবে দাবি আদায়ের আন্দোলন করার পরামর্শ দেন। বক্তারা বলেন সরকার পরিবর্তনের একমাত্র উপায় হচ্ছে নির্বাচন ও ভোটাধিকার প্রয়োগে সচেতনতা। সকলেই এব্যাপারে একমত প্রকাশ করেন যে, দেশ ও জনগনের উন্নয়ন নিশ্চিতকরনে সহিংসতা নয় বরং ব্যক্তি-দল-মতের উর্ধ্বে সকলের অংশগ্রহনমূলক নির্বাচনের কোন বিকল্প নেই। অধিকার আদায় বা আন্দোলনের নামে রাজপথে সহিংসতা, জানমালের ক্ষয়ক্ষতিসহ সার্বিক অস্থিতিশীল পরিস্থিতি কারোরই কাম্য নয়।

সভাটি সঞ্চালনা করেন (তৃণমূল উন্নয়ন সংস্থা) টিইউএস এর নির্বাহী পরিচালক খন্দকার ফারুক আহমেদ। এছাড়াও সভায় উপস্থিত ছিলেন সৈয়দা শামীমা সুলতানা (নির্বাহী পরিচালক, কেএইচআরডি ), মোঃ আজাদ মিয়া (নির্বাহী পরিচালক, এসএসইউএস), রেবেকা সুলতানা (নির্বাহী পরিচালক সীড), মোঃ সেলিম (নির্বাহী পরিচালক RAUDO), মোঃ হারুনুর রশিদ (নির্বাহী পরিচালক, সিএসডিকে), মোঃ আব্দুস সবুর (নির্বাহী পরিচালক এমকেএস), রবিউল আলম (এসইউপি), মোঃ হাসানুল্লাহ (নির্বাহী পরিচালক MSDALTD.) আতিকা হোসেইন (নির্বাহী পরিচালক NOBONITA), মনিরা বেগম (নির্বাহী পরিচালক STAF), এস এম মাহমুদুল হক (নির্বাহী পরিচালক ADVF), কল্পনা আক্তার প্রিয়া (সহকারী পরিচালক TUS), মোঃ মাহবুব আকতার (নির্বাহী পরিচালক MSF), রেজাউল ওয়াদুদ (নির্বাহী পরিচালক MMSKS) সহ অন্যান্য সদস্য সংস্থার নির্বাহী পরিচালক এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ। সকলের সুচিন্তিত মতামত ও সাবলীল অংশগ্রহনে সভাটি আরও প্রাণবন্ত ও তথ্যবহুল হয়।

সভায় উপস্থিত সকলেই স্ব-স্ব অবস্থান থেকে নিজেদের মতামত ব্যক্ত করেন এবং একটি সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিশ্চিতকরণের দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

কিশোরকণ্ঠ জাতীয় সায়েন্স ফিকশন লেখা প্রতিযোগিতা ২০২৩-এর পুরস্কার প্রদান

চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে ইলেকশন অবজারভার কনসোর্টিয়াম-ইওসি’র উদ্বেগ

আপডেট সময় ০৬:৩৭:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক দলগুলোর পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ও সহিংসতার ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে নির্বাচন পর্যবেক্ষক হিসেবে নিবন্ধিত ৩২ টি সংস্থার সমন্বয়ে গঠিত ইলেকশন অবজারভার কনসোর্টিয়াম (ইওসি)।

মঙ্গলবার রাজধানীর বিজয় সরণিতে এসপিবিকে মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় উদ্বেগ জানান সংস্থার নির্বাহীরা।

নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থা এসপিবিকে-র নির্বাহী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল নোমান এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পিকেজি এর নির্বাহী পরিচালক এ এস এম আমানুল হাসান তাইমুর।

আলোচনার মূল বিষয়বস্তু ছিল আসন্ন বাংলাদেশের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও চলমান আর্থ সামাজিক প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার প্রভাব। অংশগ্রহনকারী বক্তারা চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে ইলেকশন অবজারভার কনসোর্টিয়াম (ইওসি) এর পক্ষ থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং সব পক্ষকে শান্তিপূর্ণ ভাবে দাবি আদায়ের আন্দোলন করার পরামর্শ দেন। বক্তারা বলেন সরকার পরিবর্তনের একমাত্র উপায় হচ্ছে নির্বাচন ও ভোটাধিকার প্রয়োগে সচেতনতা। সকলেই এব্যাপারে একমত প্রকাশ করেন যে, দেশ ও জনগনের উন্নয়ন নিশ্চিতকরনে সহিংসতা নয় বরং ব্যক্তি-দল-মতের উর্ধ্বে সকলের অংশগ্রহনমূলক নির্বাচনের কোন বিকল্প নেই। অধিকার আদায় বা আন্দোলনের নামে রাজপথে সহিংসতা, জানমালের ক্ষয়ক্ষতিসহ সার্বিক অস্থিতিশীল পরিস্থিতি কারোরই কাম্য নয়।

সভাটি সঞ্চালনা করেন (তৃণমূল উন্নয়ন সংস্থা) টিইউএস এর নির্বাহী পরিচালক খন্দকার ফারুক আহমেদ। এছাড়াও সভায় উপস্থিত ছিলেন সৈয়দা শামীমা সুলতানা (নির্বাহী পরিচালক, কেএইচআরডি ), মোঃ আজাদ মিয়া (নির্বাহী পরিচালক, এসএসইউএস), রেবেকা সুলতানা (নির্বাহী পরিচালক সীড), মোঃ সেলিম (নির্বাহী পরিচালক RAUDO), মোঃ হারুনুর রশিদ (নির্বাহী পরিচালক, সিএসডিকে), মোঃ আব্দুস সবুর (নির্বাহী পরিচালক এমকেএস), রবিউল আলম (এসইউপি), মোঃ হাসানুল্লাহ (নির্বাহী পরিচালক MSDALTD.) আতিকা হোসেইন (নির্বাহী পরিচালক NOBONITA), মনিরা বেগম (নির্বাহী পরিচালক STAF), এস এম মাহমুদুল হক (নির্বাহী পরিচালক ADVF), কল্পনা আক্তার প্রিয়া (সহকারী পরিচালক TUS), মোঃ মাহবুব আকতার (নির্বাহী পরিচালক MSF), রেজাউল ওয়াদুদ (নির্বাহী পরিচালক MMSKS) সহ অন্যান্য সদস্য সংস্থার নির্বাহী পরিচালক এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ। সকলের সুচিন্তিত মতামত ও সাবলীল অংশগ্রহনে সভাটি আরও প্রাণবন্ত ও তথ্যবহুল হয়।

সভায় উপস্থিত সকলেই স্ব-স্ব অবস্থান থেকে নিজেদের মতামত ব্যক্ত করেন এবং একটি সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিশ্চিতকরণের দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।