ঢাকা ০৫:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সদরঘাট থেকে লঞ্চ ছাড়লেও যাত্রী উপস্থিতি কম

সদরঘাট থেকে লঞ্চ ছাড়লেও যাত্রী উপস্থিতি কম

বিএনপি-জামায়াতের ডাকা তিন দিন অবরোধের প্রথম দিনে ঢাকা নদীবন্দর সদরঘাট টার্মিনালে দক্ষিণাঞ্চলগামী লঞ্চে যাত্রীর তেমন ভিড় নেই। তবে বিভিন্ন গন্তব্যে লঞ্চ ছেড়ে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর) ভোর ৫টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত সদরঘাট টার্মিনালে লঞ্চ এসেছে ৩৪টি। বন্দর ত্যাগ করেছে ৯টি লঞ্চ।

আজ সকাল সাড়ে আটটার দিকে সদরঘাট টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে, চাঁদপুর রুটের তিনটি লঞ্চ ছেড়ে যাওয়ার অপেক্ষায় আছে। বোগদাদিয়া-৬ লঞ্চের ডেকে যাত্রীর উপস্থিতি একেবারেই কম। লঞ্চের কেবিনের মাত্র তিনটি বুকিং হয়েছে।

বোগদাদিয়া-৬ লঞ্চের কেরানি মিজানুর রহমান বলেন, অবরোধের কারণে যাত্রী তেমন নেই। শ খানেকের ওপরে যাত্রী হবে না। যে কজন যাত্রী হয়, তা নিয়েই সাড়ে ৯টায় লঞ্চ ছেড়ে যাবে।

বরগুনা থেকে ছেড়ে আসা এমভি পূবালী-৭ লঞ্চেও তেমন যাত্রী দেখা যায়নি। লঞ্চের পরিচালক মাহবুবুর রহমান বলেন, গতকাল সোমবার রাতে বরগুনা থেকে ছাড়ার সময় লঞ্চে তেমন যাত্রী হয়নি। আজ একটি লঞ্চ বরগুনা ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। যাত্রী কমের কারণে সেটা বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের ঢাকা নদীবন্দরের সুপারভাইজার মাহফুজুর রহমান বলেন, আজ ভোর ৫টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত ঢাকা নদীবন্দরে দক্ষিণাঞ্চল থেকে লঞ্চ এসেছে ৩৪টি। সকাল থেকে ছেড়ে গেছে ৯টি লঞ্চ। এর মধ্যে পাঁচটি চাঁদপুর, একটি নড়িয়া, একটি মির্জারহাট ও ইলিশার উদ্দেশে দুটি লঞ্চ ছেড়ে গেছে।

সদরঘাট এলাকায় দায়িত্বরত পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মেহেদী হাসান বলেন, সদরঘাট এলাকায় যাতে নিরাপত্তা বিঘ্নিত না হয়, সে জন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া লঞ্চে যাতায়াত করা যাত্রীদের তল্লাশি করা হচ্ছে

ট্যাগস :

বেনজীর আহমেদকে আর সময় দেওয়া হবে না: দুদকের আইনজীবী

সদরঘাট থেকে লঞ্চ ছাড়লেও যাত্রী উপস্থিতি কম

আপডেট সময় ১২:০৩:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩

বিএনপি-জামায়াতের ডাকা তিন দিন অবরোধের প্রথম দিনে ঢাকা নদীবন্দর সদরঘাট টার্মিনালে দক্ষিণাঞ্চলগামী লঞ্চে যাত্রীর তেমন ভিড় নেই। তবে বিভিন্ন গন্তব্যে লঞ্চ ছেড়ে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর) ভোর ৫টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত সদরঘাট টার্মিনালে লঞ্চ এসেছে ৩৪টি। বন্দর ত্যাগ করেছে ৯টি লঞ্চ।

আজ সকাল সাড়ে আটটার দিকে সদরঘাট টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে, চাঁদপুর রুটের তিনটি লঞ্চ ছেড়ে যাওয়ার অপেক্ষায় আছে। বোগদাদিয়া-৬ লঞ্চের ডেকে যাত্রীর উপস্থিতি একেবারেই কম। লঞ্চের কেবিনের মাত্র তিনটি বুকিং হয়েছে।

বোগদাদিয়া-৬ লঞ্চের কেরানি মিজানুর রহমান বলেন, অবরোধের কারণে যাত্রী তেমন নেই। শ খানেকের ওপরে যাত্রী হবে না। যে কজন যাত্রী হয়, তা নিয়েই সাড়ে ৯টায় লঞ্চ ছেড়ে যাবে।

বরগুনা থেকে ছেড়ে আসা এমভি পূবালী-৭ লঞ্চেও তেমন যাত্রী দেখা যায়নি। লঞ্চের পরিচালক মাহবুবুর রহমান বলেন, গতকাল সোমবার রাতে বরগুনা থেকে ছাড়ার সময় লঞ্চে তেমন যাত্রী হয়নি। আজ একটি লঞ্চ বরগুনা ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। যাত্রী কমের কারণে সেটা বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের ঢাকা নদীবন্দরের সুপারভাইজার মাহফুজুর রহমান বলেন, আজ ভোর ৫টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত ঢাকা নদীবন্দরে দক্ষিণাঞ্চল থেকে লঞ্চ এসেছে ৩৪টি। সকাল থেকে ছেড়ে গেছে ৯টি লঞ্চ। এর মধ্যে পাঁচটি চাঁদপুর, একটি নড়িয়া, একটি মির্জারহাট ও ইলিশার উদ্দেশে দুটি লঞ্চ ছেড়ে গেছে।

সদরঘাট এলাকায় দায়িত্বরত পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মেহেদী হাসান বলেন, সদরঘাট এলাকায় যাতে নিরাপত্তা বিঘ্নিত না হয়, সে জন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া লঞ্চে যাতায়াত করা যাত্রীদের তল্লাশি করা হচ্ছে