ঢাকা ০৪:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিএনপি নেতা রবিউলসহ ১০ জনের কারাদণ্ড

বিএনপি নেতা রবিউলসহ ১০ জনের কারাদণ্ড

দশ বছর আগে বেআইনি সমাবেশে ক্ষতিসাধনের অভিযোগে রাজধানীর কলাবাগান থানায় বিএনপি নেতা ও ঢাকা-১০ আসনের এমপি প্রার্থী শেখ রবিউল আলম রবিসহ দশ জনকে পৃথক দুই ধারায় আড়াই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার (৩০ অক্টোবর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিমের আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

এক ধারায় দুই বছর ও আরেক ধারায় ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। কারাদণ্ডের পাশাপাশি দুই ধারায় মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাসের সাজা দেওয়া হয়।

তবে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৫৭ জনকে খালাস দিয়েছেন আদালত। সাজাপ্রাপ্ত অন্য আসামিরা হলেন-শাহ আলম সৈকত, জহিরুল হক দিনা, মোজাম্মেল হক বাবু, জাকির হোসেন, শাহিন ওরফে চাবি শাহিন, নোমান, কামরুজ্জামান চৌধুরী ওরফে মাসুদ, এলিন ও শহিদুল হক।

২০১৩ সালের ২৬ অক্টোবর রাজধানীর কলাবাগান বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ৪/৫টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটে। এসময় আসামি সিরাজুল ইসলামের নেতৃত্ব ৪০/৫০ জন ছোটাছুটি করতে থাকেন। এ ঘটনায় কলাবাগান থানার উপ-পরিদর্শক এএফএম মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক মো. হারুন উর রশিদ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

 

ফরিদপুরে ফের মুখোমুখি কাজী জাফর উল্যাহ ও নিক্সন চৌধুরী

বিএনপি নেতা রবিউলসহ ১০ জনের কারাদণ্ড

আপডেট সময় ০২:৫২:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ অক্টোবর ২০২৩

দশ বছর আগে বেআইনি সমাবেশে ক্ষতিসাধনের অভিযোগে রাজধানীর কলাবাগান থানায় বিএনপি নেতা ও ঢাকা-১০ আসনের এমপি প্রার্থী শেখ রবিউল আলম রবিসহ দশ জনকে পৃথক দুই ধারায় আড়াই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার (৩০ অক্টোবর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিমের আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

এক ধারায় দুই বছর ও আরেক ধারায় ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। কারাদণ্ডের পাশাপাশি দুই ধারায় মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাসের সাজা দেওয়া হয়।

তবে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৫৭ জনকে খালাস দিয়েছেন আদালত। সাজাপ্রাপ্ত অন্য আসামিরা হলেন-শাহ আলম সৈকত, জহিরুল হক দিনা, মোজাম্মেল হক বাবু, জাকির হোসেন, শাহিন ওরফে চাবি শাহিন, নোমান, কামরুজ্জামান চৌধুরী ওরফে মাসুদ, এলিন ও শহিদুল হক।

২০১৩ সালের ২৬ অক্টোবর রাজধানীর কলাবাগান বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ৪/৫টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটে। এসময় আসামি সিরাজুল ইসলামের নেতৃত্ব ৪০/৫০ জন ছোটাছুটি করতে থাকেন। এ ঘটনায় কলাবাগান থানার উপ-পরিদর্শক এএফএম মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে মামলা করেন। তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক মো. হারুন উর রশিদ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।