ঢাকা ০৬:২০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২৮ অক্টোবরের সহিংস ঘটনায় উদ্বেগ যুক্তরাষ্ট্রসহ ৭ দেশের

২৮ অক্টোবর (শনিবার) ঢাকায় রাজনৈতিক সমাবেশকে কেন্দ্র করে সহিংসতার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রসহ সাত দেশ। তারা সহিংসতা বন্ধ করে অবাধ, নিরপেক্ষ, অংশগ্রহণমূলক ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পরিবেশ নিশ্চিত করতে সব পক্ষকে একসঙ্গে কাজ করতে আহ্বান জানিয়েছে।

সোমবার (২৯ অক্টোবর) এক যৌথ বিবৃতিতে এ আহ্বান জানায় সাতটি দেশ।

যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া অন্য দেশগুলো হলো যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও নরওয়ে।

আজ সাত দেশের দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়, ২৮ অক্টোবর ঢাকায় রাজনৈতিক সমাবেশে যে সহিংসতা হয়েছে, তাতে এসব দেশের সরকার গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। এসব ঘটনায় নিহত ও আহত ব্যক্তিদের প্রতি তাঁরা সমবেদনা জানায়। বিবৃতিতে দেশগুলো বলেছে, ‘সহিসংতার পথ ত্যাগ করে সংযম প্রদর্শন এবং অবাধ, নিরপেক্ষ, অংশগ্রহণমূলক ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পরিবেশ নিশ্চিত করতে সব পক্ষকে একসঙ্গে কাজ করতে আমরা আহ্বান জানাই।’

২৮ অক্টোবর সরকার পদত্যাগের এক দফা দাবিতে রাজধানীর নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ ডাকে বিএনপি। ওই দিন এর পাল্টা হিসেবে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে ‘শান্তি ও উন্নয়ন’ সমাবেশ ডাকে আওয়ামী লীগ। বিএনপির মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি কর্মীদের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্যসহ দুজন নিহত হন। বিএনপির সমাবেশ পণ্ড হয়ে যায়। পরদিন রোববার বিএনপি ও জামায়াত সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডাকে। ওই দিন রাজধানীতে ও লালমনিরহাটে দুজন নিহত হন।

জনপ্রিয় সংবাদ

২৮ অক্টোবরের সহিংস ঘটনায় উদ্বেগ যুক্তরাষ্ট্রসহ ৭ দেশের

আপডেট সময় ০১:৫৩:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ অক্টোবর ২০২৩

২৮ অক্টোবর (শনিবার) ঢাকায় রাজনৈতিক সমাবেশকে কেন্দ্র করে সহিংসতার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রসহ সাত দেশ। তারা সহিংসতা বন্ধ করে অবাধ, নিরপেক্ষ, অংশগ্রহণমূলক ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পরিবেশ নিশ্চিত করতে সব পক্ষকে একসঙ্গে কাজ করতে আহ্বান জানিয়েছে।

সোমবার (২৯ অক্টোবর) এক যৌথ বিবৃতিতে এ আহ্বান জানায় সাতটি দেশ।

যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া অন্য দেশগুলো হলো যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও নরওয়ে।

আজ সাত দেশের দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়, ২৮ অক্টোবর ঢাকায় রাজনৈতিক সমাবেশে যে সহিংসতা হয়েছে, তাতে এসব দেশের সরকার গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। এসব ঘটনায় নিহত ও আহত ব্যক্তিদের প্রতি তাঁরা সমবেদনা জানায়। বিবৃতিতে দেশগুলো বলেছে, ‘সহিসংতার পথ ত্যাগ করে সংযম প্রদর্শন এবং অবাধ, নিরপেক্ষ, অংশগ্রহণমূলক ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পরিবেশ নিশ্চিত করতে সব পক্ষকে একসঙ্গে কাজ করতে আমরা আহ্বান জানাই।’

২৮ অক্টোবর সরকার পদত্যাগের এক দফা দাবিতে রাজধানীর নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ ডাকে বিএনপি। ওই দিন এর পাল্টা হিসেবে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে ‘শান্তি ও উন্নয়ন’ সমাবেশ ডাকে আওয়ামী লীগ। বিএনপির মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি কর্মীদের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্যসহ দুজন নিহত হন। বিএনপির সমাবেশ পণ্ড হয়ে যায়। পরদিন রোববার বিএনপি ও জামায়াত সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডাকে। ওই দিন রাজধানীতে ও লালমনিরহাটে দুজন নিহত হন।