ঢাকা ০৪:১৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বারবার ওয়্যারলেসে যা জানতে চাওয়া হচ্ছিল

‘কোথায় হাজার হাজার কোথায় লোক আছে, বলেনতো ৩৫৬৮ (সাংকেতিক নাম্বার)। এই যে চান মালিবাগ ক্রসিংয়ে, এখানে এখন আমাদের অপারেশন চলতেছে। এখন একটু খালি হচ্ছে, খালি হলেই আমি জলিলরে নিয়ে আসবো। কমলাপুরের এদিকে কেউ যায়নি স্যার।

কমলাপুর রেলস্টেশনের ওদিক পুলিশ, সাংবাদিক কেউ নাই। ওখানে ফ্রন্টলাইনে ধাওয়া দেয়া হয়েছে পার্টি অফিস থেকে। ও স্যার, আলফামাইট-২ স্যার, একটু দেখেন ওখানে গোলাগুলি হচ্ছে।
আলফামাইট-২১১ কন্ট্রোল কটন বলেন, ও স্যার আলফামাইট-২১১ স্যার। স্যার, ওইযে কাকরাইল চার্চে কি কোনো আগুন বা ভাঙচুর করেছে নাকি স্যার। এটা কি সঠিক? সঠিক তথ্য দিতে হবে স্যার।

৪২১১-কন্ট্রোল আমি চার্চের সামনে আছি। এখানে ভিতরে এবং সামনে এখন কোনো কিছু নাই। এইখানে আমরা আছি এখন সামনে।
-এখন না, আগে কি ভাঙচুর করছিলো নাকি। স্যার, আপনারা বলছিলেন কাকরাইল চার্চে হামলা করছে। এখানে কি ভাঙচুর হইছে কিনা স্যার, এটা ভিক্টর-৬ স্যার জানতে চাচ্ছেন।
এ আলফামাইট-২, চার্ল একিউ-২১। স্যার, ওইযে আমরা সেগুনবাগিচা ডিপ্লোমার গেইট দিয়ে ঢুকতেছি। এখানে আমাদের পুলিশ আটকে আছে স্যার। আমরা এগুলো আস্তে আস্তে ক্লিয়ার করতেছি।
চার্ল একিউ-২১ এই যে কাকরাইল চার্চের ওখানে একটা অফিসার পাঠানতো। ই মানে ভিক্টর-৬ স্যার জানতে চাচ্ছেন, ভিতরে কিছু হইছে কিনা?
-আমরাতো খবর পাইনি, কাকরাইল চার্চের ভিতর কিছু হইছে বলে কোনো খবর পাইনি। আইডিআর ভবনে আগুন লাগাইছিলো। ওইটা নিভানো হইছে। আরেকটা স্যার, আলফামাইট-২ স্যার, আরেকটা ওইযে কালভার্ট রোডে একটা মন্দির আছে মনে হয়, এই মন্দিরে কি কোনো আগুন বা ভাঙচুরের ঘটনা সংগঠিত হয়েছে কিনা? এই দুইটা জিনিস স্যার খুব দ্রুত সঠিক তথ্য দিতে হবে। এটা ভিক্টর-৬ স্যার জানতে চাচ্ছেন স্যার।
কন্ট্রোল, ওখানে ওইযে আলফামাইট-২১২ তার কাছাকাছি আছে। আলফামাইট- ২১২ তুমি যদি শোনো দেখোতো ওখানে কি মন্দির আছে নাকি, ওইটা আসলে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কিনা।

আলফামাইট-২১২, আফমাইট-২ স্যার আমিতো বিজয় নগর পানির ট্যাঙ্কির নিচে আছি। এখানেতো মন্দির আছে বলে মনে হয় না। এই কর্ণারে মন্দির আছে নাকি দেখোতো।
হ্যালো, ২১২ স্যার আমাদের এলাকায়তো কোনো মন্দির নাই স্যার। পল্টনের মধ্যে কি কোনো মন্দির আছে নাকি স্যার। চার্ল ৮২৫২ স্যার, রাস্তার আশপাশে আমাদের এখানে কোনো মন্দির নাই স্যার। কন্ট্রোল আলফা চার্ল এ টুয়েলভ স্যার, কোনো মন্দির, সিদ্ধেশ্বরী কালিমন্দির আছে, দেখো কোনো মন্দিরে হামলা হয়েছে কিনা, ভাঙচুর অথবা অগ্নিসংযোগ হয়েছে কিনা, আর স্যার এই যে চার্চ গির্জায় কোনো হামলা ভাঙচুর হয়েছে কিনা, এটা দুটোরই সঠিক তথ্য দিতে হবে স্যার। এটা ভিক্টর-৬ স্যার এবং সর্বোচ্চ উপর মহল থেকে জানতে চাচ্ছে। এটার সঠিক তথ্য দিতে হবে স্যার।
সঠিক তথ্য জানতে লোক পাঠাচ্ছি একটু সময় দিতে হবে।

আলফামাইট-২১৫ কন্ট্রোল, ৯৪৮২ কন্ট্রোল, স্যার এইযে মৌচাক ফ্লাইওভারের উপর বাসে আগুন দিছে। মন্দির ও চার্চ এটা পুরোপুরি মুক্ত আছে। কোনো ধরনের এখানে কোনো আক্রমণ হয়নি। কোনো ক্ষয়ক্ষতিও হয়নি। বাকি যে সিদ্ধেশ্বরী কথা বললেন ওটার খোঁজ নিয়ে আমি আপনাকে পাঠাচ্ছি ভাই, ওভার। কন্ট্রোল আলফামাইট-২ স্যার সিদ্ধেশ্বরী কালি মন্দির ওখানে কোনো ঝামেলা হয়নি স্যার।’

শনিবার কাকরাইল-নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় পুলিশের উচ্চ পর্যায় থেকে বারবার জানতে চাওয়া হয়েছিল গির্জা বা মন্দিরে হামলা হয়েছে কি-না। পুলিশের ওয়্যারলেস মারফত এমন বার্তা আদান প্রদানের একটি অডিও প্রকাশ হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এটি ছড়িয়ে পড়েছে। প্রবাসী সাংবাদিক জুলকারনাইন সায়ের এই অডিওটি তার ফেসবুকে শেয়ার করেছেন। ওয়্যারলেস বার্তায় কাকরাইল চার্চ ও কালভার্ট রোড বা সিদ্ধেশ্বরীর মন্দিরে হামলা হয়েছে কিনা তা বার বার জানতে চাওয়া হয়। বার্তায় অবশ্য নিশ্চিত করা হয় চার্চ বা মন্দিরে কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি। বার্তার সাংকেতিক কোড অনুযায়ী ওই বিষয়টি পুলিশের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে জানতে চাওয়া হয়েছিল।

এদিকে, শনিবারের সংঘর্ষের সূত্রপাতের বিষয়ে একটি নির্ভরযোগ সূত্র জানিয়েছে, দুপুর দেড়টার দিকে হঠাৎ কাকরাইল উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের পাশে ইটপাটকেল ছোঁড়াছুড়ি শুরু হয়। মূলত আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে যোগ দিতে শত শত নেতাকর্মী নিয়ে গাজীপুরের সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের গাড়িবহর কাকরাইলে প্রধান বিচারপতির বাসভবনের সামনের মোড়ে আসলে বিএনপিকর্মীরা তাদের ভুয়া ভুয়া বলে স্লোগান দেন। তখন দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। যা পরে সহিংসতায় রূপ নেয়। ওই সময় ঘটনাস্থলে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার উপস্থিত হয়ে পুলিশ সদস্যদের নির্দেশনা দেন। পরে বিজিবি, এজিবি ও একাধিক এপিসি সহ পুরো এলাকায় সর্বাত্মক অভিযান শুরু হয়। এতে সংঘর্ষ পুরো এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।

জনপ্রিয় সংবাদ

বারবার ওয়্যারলেসে যা জানতে চাওয়া হচ্ছিল

আপডেট সময় ১২:৫৭:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ অক্টোবর ২০২৩

‘কোথায় হাজার হাজার কোথায় লোক আছে, বলেনতো ৩৫৬৮ (সাংকেতিক নাম্বার)। এই যে চান মালিবাগ ক্রসিংয়ে, এখানে এখন আমাদের অপারেশন চলতেছে। এখন একটু খালি হচ্ছে, খালি হলেই আমি জলিলরে নিয়ে আসবো। কমলাপুরের এদিকে কেউ যায়নি স্যার।

কমলাপুর রেলস্টেশনের ওদিক পুলিশ, সাংবাদিক কেউ নাই। ওখানে ফ্রন্টলাইনে ধাওয়া দেয়া হয়েছে পার্টি অফিস থেকে। ও স্যার, আলফামাইট-২ স্যার, একটু দেখেন ওখানে গোলাগুলি হচ্ছে।
আলফামাইট-২১১ কন্ট্রোল কটন বলেন, ও স্যার আলফামাইট-২১১ স্যার। স্যার, ওইযে কাকরাইল চার্চে কি কোনো আগুন বা ভাঙচুর করেছে নাকি স্যার। এটা কি সঠিক? সঠিক তথ্য দিতে হবে স্যার।

৪২১১-কন্ট্রোল আমি চার্চের সামনে আছি। এখানে ভিতরে এবং সামনে এখন কোনো কিছু নাই। এইখানে আমরা আছি এখন সামনে।
-এখন না, আগে কি ভাঙচুর করছিলো নাকি। স্যার, আপনারা বলছিলেন কাকরাইল চার্চে হামলা করছে। এখানে কি ভাঙচুর হইছে কিনা স্যার, এটা ভিক্টর-৬ স্যার জানতে চাচ্ছেন।
এ আলফামাইট-২, চার্ল একিউ-২১। স্যার, ওইযে আমরা সেগুনবাগিচা ডিপ্লোমার গেইট দিয়ে ঢুকতেছি। এখানে আমাদের পুলিশ আটকে আছে স্যার। আমরা এগুলো আস্তে আস্তে ক্লিয়ার করতেছি।
চার্ল একিউ-২১ এই যে কাকরাইল চার্চের ওখানে একটা অফিসার পাঠানতো। ই মানে ভিক্টর-৬ স্যার জানতে চাচ্ছেন, ভিতরে কিছু হইছে কিনা?
-আমরাতো খবর পাইনি, কাকরাইল চার্চের ভিতর কিছু হইছে বলে কোনো খবর পাইনি। আইডিআর ভবনে আগুন লাগাইছিলো। ওইটা নিভানো হইছে। আরেকটা স্যার, আলফামাইট-২ স্যার, আরেকটা ওইযে কালভার্ট রোডে একটা মন্দির আছে মনে হয়, এই মন্দিরে কি কোনো আগুন বা ভাঙচুরের ঘটনা সংগঠিত হয়েছে কিনা? এই দুইটা জিনিস স্যার খুব দ্রুত সঠিক তথ্য দিতে হবে। এটা ভিক্টর-৬ স্যার জানতে চাচ্ছেন স্যার।
কন্ট্রোল, ওখানে ওইযে আলফামাইট-২১২ তার কাছাকাছি আছে। আলফামাইট- ২১২ তুমি যদি শোনো দেখোতো ওখানে কি মন্দির আছে নাকি, ওইটা আসলে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কিনা।

আলফামাইট-২১২, আফমাইট-২ স্যার আমিতো বিজয় নগর পানির ট্যাঙ্কির নিচে আছি। এখানেতো মন্দির আছে বলে মনে হয় না। এই কর্ণারে মন্দির আছে নাকি দেখোতো।
হ্যালো, ২১২ স্যার আমাদের এলাকায়তো কোনো মন্দির নাই স্যার। পল্টনের মধ্যে কি কোনো মন্দির আছে নাকি স্যার। চার্ল ৮২৫২ স্যার, রাস্তার আশপাশে আমাদের এখানে কোনো মন্দির নাই স্যার। কন্ট্রোল আলফা চার্ল এ টুয়েলভ স্যার, কোনো মন্দির, সিদ্ধেশ্বরী কালিমন্দির আছে, দেখো কোনো মন্দিরে হামলা হয়েছে কিনা, ভাঙচুর অথবা অগ্নিসংযোগ হয়েছে কিনা, আর স্যার এই যে চার্চ গির্জায় কোনো হামলা ভাঙচুর হয়েছে কিনা, এটা দুটোরই সঠিক তথ্য দিতে হবে স্যার। এটা ভিক্টর-৬ স্যার এবং সর্বোচ্চ উপর মহল থেকে জানতে চাচ্ছে। এটার সঠিক তথ্য দিতে হবে স্যার।
সঠিক তথ্য জানতে লোক পাঠাচ্ছি একটু সময় দিতে হবে।

আলফামাইট-২১৫ কন্ট্রোল, ৯৪৮২ কন্ট্রোল, স্যার এইযে মৌচাক ফ্লাইওভারের উপর বাসে আগুন দিছে। মন্দির ও চার্চ এটা পুরোপুরি মুক্ত আছে। কোনো ধরনের এখানে কোনো আক্রমণ হয়নি। কোনো ক্ষয়ক্ষতিও হয়নি। বাকি যে সিদ্ধেশ্বরী কথা বললেন ওটার খোঁজ নিয়ে আমি আপনাকে পাঠাচ্ছি ভাই, ওভার। কন্ট্রোল আলফামাইট-২ স্যার সিদ্ধেশ্বরী কালি মন্দির ওখানে কোনো ঝামেলা হয়নি স্যার।’

শনিবার কাকরাইল-নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় পুলিশের উচ্চ পর্যায় থেকে বারবার জানতে চাওয়া হয়েছিল গির্জা বা মন্দিরে হামলা হয়েছে কি-না। পুলিশের ওয়্যারলেস মারফত এমন বার্তা আদান প্রদানের একটি অডিও প্রকাশ হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এটি ছড়িয়ে পড়েছে। প্রবাসী সাংবাদিক জুলকারনাইন সায়ের এই অডিওটি তার ফেসবুকে শেয়ার করেছেন। ওয়্যারলেস বার্তায় কাকরাইল চার্চ ও কালভার্ট রোড বা সিদ্ধেশ্বরীর মন্দিরে হামলা হয়েছে কিনা তা বার বার জানতে চাওয়া হয়। বার্তায় অবশ্য নিশ্চিত করা হয় চার্চ বা মন্দিরে কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি। বার্তার সাংকেতিক কোড অনুযায়ী ওই বিষয়টি পুলিশের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে জানতে চাওয়া হয়েছিল।

এদিকে, শনিবারের সংঘর্ষের সূত্রপাতের বিষয়ে একটি নির্ভরযোগ সূত্র জানিয়েছে, দুপুর দেড়টার দিকে হঠাৎ কাকরাইল উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের পাশে ইটপাটকেল ছোঁড়াছুড়ি শুরু হয়। মূলত আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে যোগ দিতে শত শত নেতাকর্মী নিয়ে গাজীপুরের সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের গাড়িবহর কাকরাইলে প্রধান বিচারপতির বাসভবনের সামনের মোড়ে আসলে বিএনপিকর্মীরা তাদের ভুয়া ভুয়া বলে স্লোগান দেন। তখন দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। যা পরে সহিংসতায় রূপ নেয়। ওই সময় ঘটনাস্থলে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার উপস্থিত হয়ে পুলিশ সদস্যদের নির্দেশনা দেন। পরে বিজিবি, এজিবি ও একাধিক এপিসি সহ পুরো এলাকায় সর্বাত্মক অভিযান শুরু হয়। এতে সংঘর্ষ পুরো এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।