ঢাকা ১০:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিরাজগঞ্জে বিএনপি-জামায়াতের ১৪৭ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার

সিরাজগঞ্জে বিএনপি-জামায়াতের ১৪৭ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার

সিরাজগঞ্জের ১১টি থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াতের ১৪৭ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) মো. সামিউল আলম বিষয়টি ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন।

শনিবার (২৮ অক্টোবর) বিকেল থেকে রোববার (২৯ অক্টোবর) ভোর পর্যন্ত জেলার সদর, বেলকুচি, রায়গঞ্জ, উল্লাপাড়া, তাড়াশ, এনায়েতপুর, শাহজাদপুর, কাজিপুর, সলঙ্গা, কামারখন্দ ও চৌহালী থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদধারী কয়েকজন নেতাও রয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। আজ রোববার দুপুরে সিরাজগঞ্জ সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত থেকে রোববার ভোর পর্যন্ত সদরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিএনপি ও জামায়াতের ৩৬ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বেকুচি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিসুর রহমান জানান, ২৪ ঘণ্টায় নাশকতার অভিযোগে ২৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৯ জন বিএনপি ও ৯ জন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মী। রায়গঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিকুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে রায়গঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন দুলাল রয়েছেন।

উল্লাপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, বিএনপির ১২ ও জামায়াতের একজন নেতাকর্মীকে নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাড়াশ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম জানান, অভিযান চালিয়ে নাশকতার মামলার আসামি জামায়াত ও বিএনপির ১১ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এনায়েতপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পঞ্চানন্দ বিশ্বাস বলেন, বিএনপি জামায়াতের মোট ১০ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।শাহজাদপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল বাশার বলেন, শাহজাদপুরে ৫ বিএনপি ও ৪ জামায়াত নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সলঙ্গা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক বলেন, শনিবার রাতে অভিযান চালিয়ে ৭ জন বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কাজিপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কুমার দত্ত জানান, ২৪ ঘণ্টায় অভিযান চালিয়ে ৭ বিএনপি নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

চৌহালী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন-অর-রশিদ বলেন, ২৪ ঘণ্টায় দুই বিএনপি নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরা হলেন উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আব্দুল হাকিম ও সদস্য হামিদ মোল্লা। সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) মো. সামিউল আলম ঢাকা পোস্টকে বলেন, জেলাজুড়ে অভিযান চালিয়ে নাশকতার মামলায় ১৪৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে পুলিশের কাজে বাধাদান ও নাশকতার অভিযোগে এক বা একাধিক মামলা রয়েছে।

 

সিরাজগঞ্জে বিএনপি-জামায়াতের ১৪৭ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার

আপডেট সময় ০৭:১৪:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২৩

সিরাজগঞ্জের ১১টি থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিএনপি-জামায়াতের ১৪৭ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) মো. সামিউল আলম বিষয়টি ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন।

শনিবার (২৮ অক্টোবর) বিকেল থেকে রোববার (২৯ অক্টোবর) ভোর পর্যন্ত জেলার সদর, বেলকুচি, রায়গঞ্জ, উল্লাপাড়া, তাড়াশ, এনায়েতপুর, শাহজাদপুর, কাজিপুর, সলঙ্গা, কামারখন্দ ও চৌহালী থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে দলের গুরুত্বপূর্ণ পদধারী কয়েকজন নেতাও রয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। আজ রোববার দুপুরে সিরাজগঞ্জ সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত থেকে রোববার ভোর পর্যন্ত সদরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিএনপি ও জামায়াতের ৩৬ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বেকুচি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিসুর রহমান জানান, ২৪ ঘণ্টায় নাশকতার অভিযোগে ২৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৯ জন বিএনপি ও ৯ জন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মী। রায়গঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিকুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে রায়গঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন দুলাল রয়েছেন।

উল্লাপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, বিএনপির ১২ ও জামায়াতের একজন নেতাকর্মীকে নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাড়াশ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম জানান, অভিযান চালিয়ে নাশকতার মামলার আসামি জামায়াত ও বিএনপির ১১ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এনায়েতপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পঞ্চানন্দ বিশ্বাস বলেন, বিএনপি জামায়াতের মোট ১০ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।শাহজাদপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল বাশার বলেন, শাহজাদপুরে ৫ বিএনপি ও ৪ জামায়াত নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সলঙ্গা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক বলেন, শনিবার রাতে অভিযান চালিয়ে ৭ জন বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কাজিপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল কুমার দত্ত জানান, ২৪ ঘণ্টায় অভিযান চালিয়ে ৭ বিএনপি নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

চৌহালী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন-অর-রশিদ বলেন, ২৪ ঘণ্টায় দুই বিএনপি নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরা হলেন উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আব্দুল হাকিম ও সদস্য হামিদ মোল্লা। সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) মো. সামিউল আলম ঢাকা পোস্টকে বলেন, জেলাজুড়ে অভিযান চালিয়ে নাশকতার মামলায় ১৪৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে পুলিশের কাজে বাধাদান ও নাশকতার অভিযোগে এক বা একাধিক মামলা রয়েছে।