ঢাকা ০৯:১৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

নয়াপল্টন দখলে নিয়েছে পুলিশ

নয়াপল্টন দখলে নিয়েছে পুলিশ

রাজধানীর নয়াপল্টন থেকে বিএনপির নেতাকর্মীদের সরিয়ে দিয়েছে পুলিশ। দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের অংশ খালি করে ফেলা হয়েছে। শনিবার (২৮ অক্টোবর) বিকেলে পুলিশ নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের অংশ দখলে নেয়।

বাংলানিউজের প্রতিবেদকরা জানিয়েছেন, দুপুরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় বিএনপি। পরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এগিয়ে এলে পুলিশ প্রথমে পিছু হটে। বিকেলের দিকে বিজয়নগর ও আরামবাগের দিক থেকে পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড ও টিয়ারশেল ছুড়তে ছুড়তে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের দিকে আসতে থাকে।

এর কিছুক্ষণ পর নয়াপল্টন দখলে নিয়ে নেয় পুলিশ। এ সময় বিএনপির নেতাকর্মীদের কেন্দ্রীয় কার্যালয় এলাকায় দেখা যায়নি। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। এদিকে সংঘর্ষের পর ওই এলাকায় বিজিবির সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে।

বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম জানান, কাকরাইলের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। তবে কত প্লাটুন মোতায়েন করা হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। বেলা সাড়ে ৩টার দিকে বিএনপির সমাবেশস্থলের মাইক থেকে নেতাকর্মীদের নিরাপদে সতর্ক অবস্থানে থাকতে আহ্বান জানানো হয়।

জাপার চুন্নুর আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

নয়াপল্টন দখলে নিয়েছে পুলিশ

আপডেট সময় ০৪:৫৮:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২৩

রাজধানীর নয়াপল্টন থেকে বিএনপির নেতাকর্মীদের সরিয়ে দিয়েছে পুলিশ। দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের অংশ খালি করে ফেলা হয়েছে। শনিবার (২৮ অক্টোবর) বিকেলে পুলিশ নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের অংশ দখলে নেয়।

বাংলানিউজের প্রতিবেদকরা জানিয়েছেন, দুপুরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় বিএনপি। পরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এগিয়ে এলে পুলিশ প্রথমে পিছু হটে। বিকেলের দিকে বিজয়নগর ও আরামবাগের দিক থেকে পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড ও টিয়ারশেল ছুড়তে ছুড়তে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের দিকে আসতে থাকে।

এর কিছুক্ষণ পর নয়াপল্টন দখলে নিয়ে নেয় পুলিশ। এ সময় বিএনপির নেতাকর্মীদের কেন্দ্রীয় কার্যালয় এলাকায় দেখা যায়নি। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। এদিকে সংঘর্ষের পর ওই এলাকায় বিজিবির সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে।

বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম জানান, কাকরাইলের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। তবে কত প্লাটুন মোতায়েন করা হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। বেলা সাড়ে ৩টার দিকে বিএনপির সমাবেশস্থলের মাইক থেকে নেতাকর্মীদের নিরাপদে সতর্ক অবস্থানে থাকতে আহ্বান জানানো হয়।