ঢাকা ০৮:১৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কাঁদানে গ্যাসের কারণে বিএনপির সমাবেশে বক্তব্য দিতে পারেনি নেতারা

কাঁদানে গ্যাসের কারণে বিএনপির সমাবেশে বক্তব্য দিতে পারেনি নেতারা

বিজয়নগনের সংঘর্ষের পর পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে কাঁদানে গ্যাস ছুড়ছে। এ কারণে আপাতত আপাতত বিএনপির মহাসমাবেশ মঞ্চ থেকে বক্তব্য বন্ধ রাখা হয়েছে। শনিবার বেলা পৌনে তিনটার দিকে এ তথ্য পাওয়া যায়।

বিএনপি নেতারা জানান, কাঁদানে গ্যাসের কারণে নেতাকর্মীরা অসুস্থবোধ করছেন। তবে নেতাকর্মী এখনও নয়াপল্টনের সামনে অবস্থান করছেন। মঞ্চে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলসহ দলটির জ্যেষ্ঠ নেতারা উপস্থিত রয়েছেন। একটু পর আবারও বক্তৃতা শুরু হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিএনপির মহাসমাবেশস্থলের কাছাকাছি বিজয়নগর এলাকায় দলটির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। ঠিক কী কারণে সংঘর্ষের সূত্রপাত তা জানা যায়নি। এরপর নয়াপল্টন এলাকায় বিজিবি মোতায়েন করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আইনশৃংখলা বাহিনী কাঁদানে গ্যাস ও জলকামান ছুঁড়তে থাকে। এতে নেতাকর্মীরা অসুস্থ বোধ করছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পল্টন মোড়ের পর থেকে বিজয়নগর হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় পর্যন্ত সড়কে বিএনপির নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। সেখানে থেমে থেমে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হচ্ছে। পুলিশ পানির ট্যাঙ্কির আশপাশের গলিতে অবস্থান নিয়ে টিয়ারশেল ও সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ছে। সড়কের বিভিন্ন জায়গায় আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। নাইটিঙ্গেল মোড়ের আশপাশেও ধোয়া উড়তে দেখা গেছে। সংঘর্ষের খবর আসায় বিএনপির সমাবেশস্থলেও উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তবে মঞ্চ থেকে নেতাকর্মীদের শান্ত থাকতে বলা হচ্ছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর প্রশ্নই নেই: বাইডেন

কাঁদানে গ্যাসের কারণে বিএনপির সমাবেশে বক্তব্য দিতে পারেনি নেতারা

আপডেট সময় ০৪:৪৭:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২৩

বিজয়নগনের সংঘর্ষের পর পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে কাঁদানে গ্যাস ছুড়ছে। এ কারণে আপাতত আপাতত বিএনপির মহাসমাবেশ মঞ্চ থেকে বক্তব্য বন্ধ রাখা হয়েছে। শনিবার বেলা পৌনে তিনটার দিকে এ তথ্য পাওয়া যায়।

বিএনপি নেতারা জানান, কাঁদানে গ্যাসের কারণে নেতাকর্মীরা অসুস্থবোধ করছেন। তবে নেতাকর্মী এখনও নয়াপল্টনের সামনে অবস্থান করছেন। মঞ্চে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলসহ দলটির জ্যেষ্ঠ নেতারা উপস্থিত রয়েছেন। একটু পর আবারও বক্তৃতা শুরু হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিএনপির মহাসমাবেশস্থলের কাছাকাছি বিজয়নগর এলাকায় দলটির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। ঠিক কী কারণে সংঘর্ষের সূত্রপাত তা জানা যায়নি। এরপর নয়াপল্টন এলাকায় বিজিবি মোতায়েন করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আইনশৃংখলা বাহিনী কাঁদানে গ্যাস ও জলকামান ছুঁড়তে থাকে। এতে নেতাকর্মীরা অসুস্থ বোধ করছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পল্টন মোড়ের পর থেকে বিজয়নগর হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় পর্যন্ত সড়কে বিএনপির নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। সেখানে থেমে থেমে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হচ্ছে। পুলিশ পানির ট্যাঙ্কির আশপাশের গলিতে অবস্থান নিয়ে টিয়ারশেল ও সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ছে। সড়কের বিভিন্ন জায়গায় আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। নাইটিঙ্গেল মোড়ের আশপাশেও ধোয়া উড়তে দেখা গেছে। সংঘর্ষের খবর আসায় বিএনপির সমাবেশস্থলেও উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। তবে মঞ্চ থেকে নেতাকর্মীদের শান্ত থাকতে বলা হচ্ছে।