ঢাকা ০৬:২০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুগন্ধি চাল রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার

আবারও সুগন্ধি চাল রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটির সভা ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের একটি সভায় দেশ থেকে সুগন্ধি চালসহ যে কোনো ধরনের চাল রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সম্প্রতি এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্টদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে কৃষি মন্ত্রণালয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে এ নির্দেশনার চিঠি পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, গত ৮ অক্টোবর ‘খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটির একটি সভা খাদ্যমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় দেশের সার্বিক খাদ্য পরিস্থিতি বিবেচনায় দেশ থেকে সুগন্ধি চালসহ যে কোনো ধরনের চাল রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ রাখার সুপারিশ করা হয়। এর আগে গত ১০ সেপ্টেম্বর কৃষি সচিবের সভাপতিত্বে ‘কৃষিপণ্য রপ্তানির সমস্যা ও সমাধানের কৌশল’ সংক্রান্ত একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সিদ্ধান্ত হয়- ‘খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাল/সুগন্ধি চাল রপ্তানি বন্ধ করতে হবে।’

এমতাবস্থায়, সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয়/বিভাগ/দপ্তর/সংস্থাকে এ সিদ্ধান্তের আলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয় চিঠিতে।

রপ্তানি নীতি আদেশ অনুযায়ী, বাংলাদেশ থেকে সব সময়ই চাল রপ্তানি নিষিদ্ধ। তবে সরকারের অনুমতি নিয়ে সুগন্ধি চাল রপ্তানির সুযোগ রয়েছে। ২০২১ সালের জুলাইয়ে ২৮টি প্রতিষ্ঠানকে ২৫ হাজার টন সুগন্ধি চাল রপ্তানির অনুমতি দেয় সরকার। তবে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রপ্তানি বন্ধও করে দেওয়া হয়। কিন্তু গত কয়েক মাস আগে সুগন্ধি চাল রপ্তানির সুযোগ আবার উন্মুক্ত করে সরকার।

জনপ্রিয় সংবাদ

সুগন্ধি চাল রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার

আপডেট সময় ১২:২৮:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ অক্টোবর ২০২৩

আবারও সুগন্ধি চাল রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটির সভা ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের একটি সভায় দেশ থেকে সুগন্ধি চালসহ যে কোনো ধরনের চাল রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সম্প্রতি এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্টদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে কৃষি মন্ত্রণালয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে এ নির্দেশনার চিঠি পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, গত ৮ অক্টোবর ‘খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটির একটি সভা খাদ্যমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় দেশের সার্বিক খাদ্য পরিস্থিতি বিবেচনায় দেশ থেকে সুগন্ধি চালসহ যে কোনো ধরনের চাল রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধ রাখার সুপারিশ করা হয়। এর আগে গত ১০ সেপ্টেম্বর কৃষি সচিবের সভাপতিত্বে ‘কৃষিপণ্য রপ্তানির সমস্যা ও সমাধানের কৌশল’ সংক্রান্ত একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সিদ্ধান্ত হয়- ‘খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাল/সুগন্ধি চাল রপ্তানি বন্ধ করতে হবে।’

এমতাবস্থায়, সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয়/বিভাগ/দপ্তর/সংস্থাকে এ সিদ্ধান্তের আলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয় চিঠিতে।

রপ্তানি নীতি আদেশ অনুযায়ী, বাংলাদেশ থেকে সব সময়ই চাল রপ্তানি নিষিদ্ধ। তবে সরকারের অনুমতি নিয়ে সুগন্ধি চাল রপ্তানির সুযোগ রয়েছে। ২০২১ সালের জুলাইয়ে ২৮টি প্রতিষ্ঠানকে ২৫ হাজার টন সুগন্ধি চাল রপ্তানির অনুমতি দেয় সরকার। তবে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রপ্তানি বন্ধও করে দেওয়া হয়। কিন্তু গত কয়েক মাস আগে সুগন্ধি চাল রপ্তানির সুযোগ আবার উন্মুক্ত করে সরকার।