ঢাকা ০৩:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

ঢাকার মহাসমাবেশ কোনো কিছুই আটকে রাখতে পারবে না: ফখরুল

ঢাকার মহাসমাবেশ কোনো কিছুই আটকে রাখতে পারবে না: ফখরুল

আগামী ২৮ অক্টোবর ঢাকার মহাসমাবেশ কোনো কিছুই আটকে রাখতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ মঙ্গলবার সকালে গুলশানে দলটির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ফখরুল এ মন্তব্য করেন।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগের কোনো ভয়-ভীতি, সভা-সমিতিসহ যতকিছুই করুক এবার দাবি আদায়ের ক্ষেত্রে কোনো কিছুতে আটকে রাখতে পারবে না। আপনি গ্রেপ্তার বলেন, মামলা বলেন, রাত্রি বেলা আদালতে মামলা পরিচালনা বলেন, কোনো কিছুই আটকে রাখতে পারবে না।

২৮ অক্টোবর আওয়ামী লীগও সমাবেশ করবে। এতে সংঘর্ষের আশঙ্কা আছে কিনা জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যদি সরকারে থাকে প্রতিটি পদক্ষেপই ঝুঁকিপূর্ণ। ঝুঁকি চিন্তা করলে তো কোনো লাভ নেই। মানুষ এখন জেগে উঠছে।

তারা দাবি (একদফা) আদায়ে বদ্ধপরিকর। একটা পর একটা আন্দোলন করে মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। আওয়ামী লীগের কর্মসূচি শান্তির নামে অশান্তি সৃষ্টি করছে দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আপনারা দেখেন শান্তি ও উন্নয়নের নাম করে সম্পূর্ণ অশান্তি আর গোটা দেশকে পেছন দিকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এই কাজটা তারা করছে।

সুচারুভাবে করে যাচ্ছে। ফখরুল বলেন, ‘আমরা একদফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যেই একটা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিয়েছি। অন্যান্য দলগুলোর তো অধিকার আছে সভা-সমাবেশ করার। আওয়ামী লীগের অধিকার আছে তারা তাদের কর্মসূচি করতে পারে। গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে জামায়াতে ইসলামী করতে পারে, অন্যান্য দলগুলোও সভা করতে পারে। গণতন্ত্র মঞ্চ তারা যুগপৎ আন্দোলনে আছে। ওইদিন প্রায় ৩৪টা দল সমাবেশ ডেকেছে। সুতরাং এটা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অংশ। এটা একটা দলের বিষয় নয়, জনগণের বিষয়।’

জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সিগঞ্জের আওয়ামী লীগের দু-পক্ষরে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ১

ঢাকার মহাসমাবেশ কোনো কিছুই আটকে রাখতে পারবে না: ফখরুল

আপডেট সময় ০৩:০০:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর ২০২৩

আগামী ২৮ অক্টোবর ঢাকার মহাসমাবেশ কোনো কিছুই আটকে রাখতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ মঙ্গলবার সকালে গুলশানে দলটির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ফখরুল এ মন্তব্য করেন।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগের কোনো ভয়-ভীতি, সভা-সমিতিসহ যতকিছুই করুক এবার দাবি আদায়ের ক্ষেত্রে কোনো কিছুতে আটকে রাখতে পারবে না। আপনি গ্রেপ্তার বলেন, মামলা বলেন, রাত্রি বেলা আদালতে মামলা পরিচালনা বলেন, কোনো কিছুই আটকে রাখতে পারবে না।

২৮ অক্টোবর আওয়ামী লীগও সমাবেশ করবে। এতে সংঘর্ষের আশঙ্কা আছে কিনা জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যদি সরকারে থাকে প্রতিটি পদক্ষেপই ঝুঁকিপূর্ণ। ঝুঁকি চিন্তা করলে তো কোনো লাভ নেই। মানুষ এখন জেগে উঠছে।

তারা দাবি (একদফা) আদায়ে বদ্ধপরিকর। একটা পর একটা আন্দোলন করে মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। আওয়ামী লীগের কর্মসূচি শান্তির নামে অশান্তি সৃষ্টি করছে দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আপনারা দেখেন শান্তি ও উন্নয়নের নাম করে সম্পূর্ণ অশান্তি আর গোটা দেশকে পেছন দিকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এই কাজটা তারা করছে।

সুচারুভাবে করে যাচ্ছে। ফখরুল বলেন, ‘আমরা একদফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যেই একটা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিয়েছি। অন্যান্য দলগুলোর তো অধিকার আছে সভা-সমাবেশ করার। আওয়ামী লীগের অধিকার আছে তারা তাদের কর্মসূচি করতে পারে। গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে জামায়াতে ইসলামী করতে পারে, অন্যান্য দলগুলোও সভা করতে পারে। গণতন্ত্র মঞ্চ তারা যুগপৎ আন্দোলনে আছে। ওইদিন প্রায় ৩৪টা দল সমাবেশ ডেকেছে। সুতরাং এটা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অংশ। এটা একটা দলের বিষয় নয়, জনগণের বিষয়।’