ঢাকা ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হামাস যোদ্ধাদের হামলার শিকার হয়েছে ইসরায়েলের একদল সেনা

ফিলিস্তিনের গাজায় স্থলপথে অভিযান চালাতে গিয়ে ইসরায়েলের একদল সেনা প্রতিরোধ সংগঠন হামাস যোদ্ধাদের হাতে হামলার শিকার হয়েছে। হামাসের অতর্কিত হামলায় এক ইসরায়েলি সেনা নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন। এ সময় ইসরায়েলের একটি ট্যাংক ধ্বংস করে দেওয়ারও দাবি করেছে হামাস যোদ্ধারা। খবর আলজাজিরার।

হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। তারা জানায়, গাজা উপত্যকায় স্থল অভিযান চালাতে গেলে ট্যাংকবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ওই সেনা নিহত হন। হামাস যোদ্ধারা এই হামলা চালিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী বলেছে, গাজার খান ইউনিস এলাকায় হামাসের হাতে থাকা বন্দীদের অবস্থান শনাক্ত এবং ‘সন্ত্রাসী অবকাঠামোগুলো গুঁড়িয়ে দিতে’ এই অভিযান চালানো হয়েছিল।

এর আগে রোববার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টেলিগ্রামে দেওয়া এক পোস্টে হামাসের সামরিক শাখা কাসাম ব্রিগেডস দাবি করেছে, হামলা চালিয়ে ইসরায়েলি বাহিনীকে ইসরায়েলের ভেতরে পিছু হটিয়ে দিয়েছে তাদের যোদ্ধারা। এ সময় একটি ট্যাংক ও দুটি বুলডোজার ধ্বংস করে দেওয়া হয়।

কাসাম ব্রিগেডস বলেছে, সীমান্ত অতিক্রম করে কয়েক মিটার এগোলেই ইসরায়েলি বাহিনীর একটি সাঁজোয়া দলের সঙ্গে গোপন অবস্থান থেকে পূর্ণ প্রস্তুতিসহ তাদের যোদ্ধারা লড়াইয়ে জড়ায়। অনুপ্রবেশকারী বাহিনীর সঙ্গে সাহসিকতার সঙ্গে যোদ্ধারা লড়াই চালিয়ে পরে নিরাপদে তারা ঘাঁটিতে ফিরেছে।

এমন সময় সীমান্তে হামাস যোদ্ধারা সরাসরি লড়াইয়ে জড়িয়েছে, যখন গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বাহিনীর স্থল অভিযান আসন্ন মনে করা হচ্ছে। স্থল অভিযানের অংশ হিসেবে উত্তর গাজার অনেক বহুতল ভবন ইতিমধ্যে বিমান হামলা চালিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

হামাস যোদ্ধাদের হামলার শিকার হয়েছে ইসরায়েলের একদল সেনা

আপডেট সময় ১১:০৩:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০২৩

ফিলিস্তিনের গাজায় স্থলপথে অভিযান চালাতে গিয়ে ইসরায়েলের একদল সেনা প্রতিরোধ সংগঠন হামাস যোদ্ধাদের হাতে হামলার শিকার হয়েছে। হামাসের অতর্কিত হামলায় এক ইসরায়েলি সেনা নিহত ও তিনজন আহত হয়েছেন। এ সময় ইসরায়েলের একটি ট্যাংক ধ্বংস করে দেওয়ারও দাবি করেছে হামাস যোদ্ধারা। খবর আলজাজিরার।

হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। তারা জানায়, গাজা উপত্যকায় স্থল অভিযান চালাতে গেলে ট্যাংকবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ওই সেনা নিহত হন। হামাস যোদ্ধারা এই হামলা চালিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী বলেছে, গাজার খান ইউনিস এলাকায় হামাসের হাতে থাকা বন্দীদের অবস্থান শনাক্ত এবং ‘সন্ত্রাসী অবকাঠামোগুলো গুঁড়িয়ে দিতে’ এই অভিযান চালানো হয়েছিল।

এর আগে রোববার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টেলিগ্রামে দেওয়া এক পোস্টে হামাসের সামরিক শাখা কাসাম ব্রিগেডস দাবি করেছে, হামলা চালিয়ে ইসরায়েলি বাহিনীকে ইসরায়েলের ভেতরে পিছু হটিয়ে দিয়েছে তাদের যোদ্ধারা। এ সময় একটি ট্যাংক ও দুটি বুলডোজার ধ্বংস করে দেওয়া হয়।

কাসাম ব্রিগেডস বলেছে, সীমান্ত অতিক্রম করে কয়েক মিটার এগোলেই ইসরায়েলি বাহিনীর একটি সাঁজোয়া দলের সঙ্গে গোপন অবস্থান থেকে পূর্ণ প্রস্তুতিসহ তাদের যোদ্ধারা লড়াইয়ে জড়ায়। অনুপ্রবেশকারী বাহিনীর সঙ্গে সাহসিকতার সঙ্গে যোদ্ধারা লড়াই চালিয়ে পরে নিরাপদে তারা ঘাঁটিতে ফিরেছে।

এমন সময় সীমান্তে হামাস যোদ্ধারা সরাসরি লড়াইয়ে জড়িয়েছে, যখন গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বাহিনীর স্থল অভিযান আসন্ন মনে করা হচ্ছে। স্থল অভিযানের অংশ হিসেবে উত্তর গাজার অনেক বহুতল ভবন ইতিমধ্যে বিমান হামলা চালিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।