ঢাকা ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা হুমকি দিচ্ছেন: মির্জা ফখরুল

বিএনপির চলমান শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে পুলিশ প্রশাসনকে বাধা না দিতে আহ্বান জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রোববার (২২ অক্টোবর) রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান তিনি। আগামী ২৮ অক্টোবর ঢাকায় মহা-সমাবেশ সফল করতে এদিন দলীয় কার্যালয়ে যৌথ সভা ডাকা হয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা প্রশাসনকে বলতে চাই, বিশেষ করে পুলিশ প্রশাসনকে। আপনারা কোথাও অহেতুক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবেন না। প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে আমাদের গণতান্ত্রিক অধিকারকে হরণ করবেন না। অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে আমরা যে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছি এতে বাধা সৃষ্টি করবেন না। এটা সম্পূর্ণভাবে সুষ্ঠু নির্বাচনের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া হবে। সেটা মনে রেখে অবশ্যই সহযোগিতা করবেন বলে বিশ্বাস করি।

তিনি বলেন, সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক হলো, সরকারি কর্মকর্তা যারা আইনশৃঙ্খলার দায়িত্বে রয়েছেন, তারা হুমকি দিচ্ছেন। ধমক দিচ্ছেন, হুঙ্কার দিচ্ছেন। যদি কোনো ব্যাঘাত ঘটে তাহলে তারা শক্ত হাতে দমন করবেন, হাত ভেঙে দেবেন।

সরকারি দলের বিরুদ্ধে এখনই মামলা হতে হবে বলে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, যে হুমকি তারা দিয়েছেন, বিশেষ করে গতকাল প্রধানমন্ত্রী হুমকি দিয়েছেন, তার আগে ওবায়দুল কাদের বলেছেন- হাত ও দাঁত ভেঙে দেওয়া হবে। কিন্তু এসব বিষয়ে তারা (প্রশাসন) কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। উল্টো বিরোধী দলকে নির্মূল করার জন্য সরকারের সঙ্গে একজোট হয়ে কাজ করছে।

এ সরকার আবারো এক তরফা নির্বাচন করার পায়তারা করছে বলে অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, যেটা ২০২৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে করেছে, এবারো সেই পায়তারা হচ্ছে।

গত ১৮ অক্টোবর বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ৪৭টি মামলা দিয়েছে জানিয়ে দলটির শীর্ষ এই নেতা বলেন, এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ১২ হাজার ৭৩০ জনকে। এছাড়া ৪৬০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কল্পনা করেন, আমরা কোন রাজ্যে, কোন সমাজে বাস করছি।

এখন আবার গায়েবি মামলা দেওয়া শুরু করেছে বলে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ৪৭টি একেবারে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। আপনারা বলুন, ১৮ অক্টোবর থেকে কোথায় কি হয়েছে? কোথাও কিছু হয়নি, আকিন্তু মামলা হচ্ছে।

পুলিশের আইজিপির সঙ্গে বিএনপির প্রতিনিধি দলের সাক্ষাৎতের প্রসঙ্গ তুলে ধরে ফখরুল বলেন, তাদেরকে বলা হয়ছিল এসব (গায়েবি ও মিথ্যা মামলা) বন্ধ করুন। কিন্তু তারা সেটা বন্ধ করার তো দূরে থাক আরো নতুন গায়েবি মামলা দেওয়া শুরু করেছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা হুমকি দিচ্ছেন: মির্জা ফখরুল

আপডেট সময় ০৩:৫১:৪৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০২৩

বিএনপির চলমান শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে পুলিশ প্রশাসনকে বাধা না দিতে আহ্বান জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রোববার (২২ অক্টোবর) রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানান তিনি। আগামী ২৮ অক্টোবর ঢাকায় মহা-সমাবেশ সফল করতে এদিন দলীয় কার্যালয়ে যৌথ সভা ডাকা হয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা প্রশাসনকে বলতে চাই, বিশেষ করে পুলিশ প্রশাসনকে। আপনারা কোথাও অহেতুক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবেন না। প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে আমাদের গণতান্ত্রিক অধিকারকে হরণ করবেন না। অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে আমরা যে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছি এতে বাধা সৃষ্টি করবেন না। এটা সম্পূর্ণভাবে সুষ্ঠু নির্বাচনের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া হবে। সেটা মনে রেখে অবশ্যই সহযোগিতা করবেন বলে বিশ্বাস করি।

তিনি বলেন, সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক হলো, সরকারি কর্মকর্তা যারা আইনশৃঙ্খলার দায়িত্বে রয়েছেন, তারা হুমকি দিচ্ছেন। ধমক দিচ্ছেন, হুঙ্কার দিচ্ছেন। যদি কোনো ব্যাঘাত ঘটে তাহলে তারা শক্ত হাতে দমন করবেন, হাত ভেঙে দেবেন।

সরকারি দলের বিরুদ্ধে এখনই মামলা হতে হবে বলে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, যে হুমকি তারা দিয়েছেন, বিশেষ করে গতকাল প্রধানমন্ত্রী হুমকি দিয়েছেন, তার আগে ওবায়দুল কাদের বলেছেন- হাত ও দাঁত ভেঙে দেওয়া হবে। কিন্তু এসব বিষয়ে তারা (প্রশাসন) কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেন না। উল্টো বিরোধী দলকে নির্মূল করার জন্য সরকারের সঙ্গে একজোট হয়ে কাজ করছে।

এ সরকার আবারো এক তরফা নির্বাচন করার পায়তারা করছে বলে অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, যেটা ২০২৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে করেছে, এবারো সেই পায়তারা হচ্ছে।

গত ১৮ অক্টোবর বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ৪৭টি মামলা দিয়েছে জানিয়ে দলটির শীর্ষ এই নেতা বলেন, এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ১২ হাজার ৭৩০ জনকে। এছাড়া ৪৬০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কল্পনা করেন, আমরা কোন রাজ্যে, কোন সমাজে বাস করছি।

এখন আবার গায়েবি মামলা দেওয়া শুরু করেছে বলে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ৪৭টি একেবারে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। আপনারা বলুন, ১৮ অক্টোবর থেকে কোথায় কি হয়েছে? কোথাও কিছু হয়নি, আকিন্তু মামলা হচ্ছে।

পুলিশের আইজিপির সঙ্গে বিএনপির প্রতিনিধি দলের সাক্ষাৎতের প্রসঙ্গ তুলে ধরে ফখরুল বলেন, তাদেরকে বলা হয়ছিল এসব (গায়েবি ও মিথ্যা মামলা) বন্ধ করুন। কিন্তু তারা সেটা বন্ধ করার তো দূরে থাক আরো নতুন গায়েবি মামলা দেওয়া শুরু করেছে।