ঢাকা ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ প্রদর্শন বন্ধে আইনি নোটিশ

‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ প্রদর্শন বন্ধে আইনি নোটিশ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনীনির্ভর চলচ্চিত্র ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ থেকে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও তাঁর স্ত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া সংক্রান্ত দৃশ্য অপসারণ করতে সংশ্লিষ্টদের আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এর জন্য সাতদিন সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে নোটিশে।

সংশ্লিষ্ট দৃশ্য অপসারণ বা বাদ দেওয়ার আগ পর্যন্ত বাংলাদেশ ও ভারতের সিনেমা হল এবং ওটিটি প্ল্যাটফর্মে চলচ্চিত্রটির প্রদর্শনী বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ডাকযোগে নোটিশটি পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক কায়সার কামাল।

চলচ্চিত্রটির প্রযোজক হিসেবে বাংলাদেশ-ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব, নির্বোহী প্রযোজক হিসেবে বাংলাদেশ-ভারতের চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ-ভারতের চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান, চলচ্চিত্রটির পরিবেশনকারী প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার চেয়ারম্যান ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিবকে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া ভারতের নোটিশ গ্রহীতাদের পক্ষে বাংলাদেশে ভারতের হাইকমিশনারকেও নোটিশটি পাঠিয়েছেন নোটিশদাতা।

জনপ্রিয় সংবাদ

ইরানের প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টারের সন্ধান মিলেছে , ‘প্রাণের অস্তিত্ব নেই’

‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ প্রদর্শন বন্ধে আইনি নোটিশ

আপডেট সময় ০৩:৩৮:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০২৩

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনীনির্ভর চলচ্চিত্র ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ থেকে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও তাঁর স্ত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া সংক্রান্ত দৃশ্য অপসারণ করতে সংশ্লিষ্টদের আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এর জন্য সাতদিন সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে নোটিশে।

সংশ্লিষ্ট দৃশ্য অপসারণ বা বাদ দেওয়ার আগ পর্যন্ত বাংলাদেশ ও ভারতের সিনেমা হল এবং ওটিটি প্ল্যাটফর্মে চলচ্চিত্রটির প্রদর্শনী বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ডাকযোগে নোটিশটি পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক কায়সার কামাল।

চলচ্চিত্রটির প্রযোজক হিসেবে বাংলাদেশ-ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব, নির্বোহী প্রযোজক হিসেবে বাংলাদেশ-ভারতের চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ-ভারতের চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান, চলচ্চিত্রটির পরিবেশনকারী প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার চেয়ারম্যান ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিবকে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া ভারতের নোটিশ গ্রহীতাদের পক্ষে বাংলাদেশে ভারতের হাইকমিশনারকেও নোটিশটি পাঠিয়েছেন নোটিশদাতা।