ঢাকা ০৬:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রের জিম্মি মুক্তির বিষয়ে প্রস্তাব গ্রহণ করেছে হামাস

যুক্তরাষ্ট্রের জিম্মি মুক্তির বিষয়ে প্রস্তাব গ্রহণ করেছে হামাস

গাজা যুদ্ধের অবসানের লক্ষ্যে চুক্তির প্রথম ধাপের ১৬দিন পর ইসরায়েলি জিম্মিদের মুক্তির বিষয়ে আলোচনা শুরু করার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রস্তাব গ্রহণ করেছে হামাস। গোষ্ঠীটির একটি সিনিয়র সূত্র শনিবার রয়টার্সকে এ তথ্য জানিয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, চুক্তিতে স্বাক্ষর করার আগে ইসরায়েলকে স্থায়ী যুদ্ধবিরতির প্রতিশ্রুতি দেওয়ার বিষয়ে তাদের যে দাবি ছিল সেখান থেকে তারা সরে এসেছে।

আন্তর্জাতিকভাবে মধ্যস্থতাকারী শান্তি প্রচেষ্টার ঘনিষ্ঠ একজন ফিলিস্তিনি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, প্রস্তাবটি ইসরায়েল গ্রহণ করলে একটি কাঠামো চুক্তি হতে পারে এবং গাজায় ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে নয় মাস ধরে চলা যুদ্ধের অবসান ঘটাতে পারে।

ইসরায়েলের আলোচনাকারী দলের একটি সূত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছে, এখন চুক্তি হওয়ার সত্যিকারের সুযোগ রয়েছে। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর একজন মুখপাত্রের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি। তবে শুক্রবার নেতানিয়াহুর দপ্তর জানিয়েছিল, আগামী সপ্তাহে আলোচনা চলবে এবং দুই পক্ষের মধ্যে এখনও চুক্তির বিষয় নিয়ে ব্যবধান রয়ে গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের জিম্মি মুক্তির বিষয়ে প্রস্তাব গ্রহণ করেছে হামাস

আপডেট সময় ০৮:২৪:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

গাজা যুদ্ধের অবসানের লক্ষ্যে চুক্তির প্রথম ধাপের ১৬দিন পর ইসরায়েলি জিম্মিদের মুক্তির বিষয়ে আলোচনা শুরু করার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রস্তাব গ্রহণ করেছে হামাস। গোষ্ঠীটির একটি সিনিয়র সূত্র শনিবার রয়টার্সকে এ তথ্য জানিয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, চুক্তিতে স্বাক্ষর করার আগে ইসরায়েলকে স্থায়ী যুদ্ধবিরতির প্রতিশ্রুতি দেওয়ার বিষয়ে তাদের যে দাবি ছিল সেখান থেকে তারা সরে এসেছে।

আন্তর্জাতিকভাবে মধ্যস্থতাকারী শান্তি প্রচেষ্টার ঘনিষ্ঠ একজন ফিলিস্তিনি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, প্রস্তাবটি ইসরায়েল গ্রহণ করলে একটি কাঠামো চুক্তি হতে পারে এবং গাজায় ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে নয় মাস ধরে চলা যুদ্ধের অবসান ঘটাতে পারে।

ইসরায়েলের আলোচনাকারী দলের একটি সূত্র নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছে, এখন চুক্তি হওয়ার সত্যিকারের সুযোগ রয়েছে। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর একজন মুখপাত্রের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি। তবে শুক্রবার নেতানিয়াহুর দপ্তর জানিয়েছিল, আগামী সপ্তাহে আলোচনা চলবে এবং দুই পক্ষের মধ্যে এখনও চুক্তির বিষয় নিয়ে ব্যবধান রয়ে গেছে।