ঢাকা ০৮:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কোটা ব্যবস্থা সম্পূর্ণভাবে সংবিধানবিরোধী: জি এম কাদের

কোটা ব্যবস্থা সম্পূর্ণভাবে সংবিধানবিরোধী: জি এম কাদের

সরকারি চাকরিতে কোটাব্যবস্থাকে ‘সংবিধানবিরোধী’ বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদে প্রধান বিরোধীদলীয় নেতা জিএম কাদের। তিনি বলেছেন, সংবিধান অনুযায়ী কোটা বৈধ করার কোনো উপায়ও নেই। আজ শনিবার বিকেলে গাজীপুর জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন, কোটা ব্যবস্থা আমাদের দেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য এটা বড় বাধা। বাংলাদেশের সংবিধানের ২৯ এর ১, ২, ৩ অনুচ্ছেদ পড়ে দেখবেন। কোটা ব্যবস্থা সম্পূর্ণ সংবিধানবিরোধী। মজার ব্যাপার হলো বর্তমান সরকার এটা চাইছে।

সরকার সংবিধান সংশোধন করে কোটা ব্যবস্থা পুনর্বহাল করতে পারে না বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘৩৫০ জন এমপির মধ্যে ৩৪০ জন থাকলেও সংবিধান সংশোধন করে এটা পারবেন না। ২৯ এর ১, ২, ৩ অনুচ্ছেদ পরিবর্তন করার কোনো উপায় সংবিধানে দেওয়া দেওয়া হয়নি। সংবিধান অনুযায়ী কোটা বৈধ করার কোনো উপায় নাই।’

তিনি বলেন, এ দেশের মানুষ বৈষম্যের বিরুদ্ধে সংগ্রাম আন্দোলনে জয়লাভের জন্য যেকোনো ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত। স্বাধীনতাযুদ্ধে আমাদের মূল অর্জন সংবিধান, সেখানে সুযোগ-সুবিধাদির ক্ষেত্রে সাম্যের কথা বলা হয়েছে। এ কথা যেন আমরা ভুলে না যাই।

সম্মেলনে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবল হক চুন্নু বলেন, দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা খুব খারাপ। আমি অবাক হয়ে যাই, পুলিশের একজন আইজিপি কি করে গোপালগঞ্জে ৬০০ বিঘা জমির উপর রিসোর্ট করেন। কি করে মেয়ের নামে, স্ত্রীর নামে সম্পত্তি ক্রয় করেন। গাজীপুরে ভাওয়াল রিসোর্ট করেন। তিনি আবার বিদেশে চলে গেছেন, অথচ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী জানেন না।

তিনি বলেন, দেশে দুর্নীতি আর দুর্নীতি। এই জন্য আওয়ামি লীগের জনপ্রিয়তা শূন্য। আজ যদি কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হয়; আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি আওয়ামী লীগ ৪০টার বেশি সিট পাবে না।

জনপ্রিয় সংবাদ

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর প্রশ্নই নেই: বাইডেন

কোটা ব্যবস্থা সম্পূর্ণভাবে সংবিধানবিরোধী: জি এম কাদের

আপডেট সময় ০৭:০৫:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

সরকারি চাকরিতে কোটাব্যবস্থাকে ‘সংবিধানবিরোধী’ বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদে প্রধান বিরোধীদলীয় নেতা জিএম কাদের। তিনি বলেছেন, সংবিধান অনুযায়ী কোটা বৈধ করার কোনো উপায়ও নেই। আজ শনিবার বিকেলে গাজীপুর জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন, কোটা ব্যবস্থা আমাদের দেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য এটা বড় বাধা। বাংলাদেশের সংবিধানের ২৯ এর ১, ২, ৩ অনুচ্ছেদ পড়ে দেখবেন। কোটা ব্যবস্থা সম্পূর্ণ সংবিধানবিরোধী। মজার ব্যাপার হলো বর্তমান সরকার এটা চাইছে।

সরকার সংবিধান সংশোধন করে কোটা ব্যবস্থা পুনর্বহাল করতে পারে না বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘৩৫০ জন এমপির মধ্যে ৩৪০ জন থাকলেও সংবিধান সংশোধন করে এটা পারবেন না। ২৯ এর ১, ২, ৩ অনুচ্ছেদ পরিবর্তন করার কোনো উপায় সংবিধানে দেওয়া দেওয়া হয়নি। সংবিধান অনুযায়ী কোটা বৈধ করার কোনো উপায় নাই।’

তিনি বলেন, এ দেশের মানুষ বৈষম্যের বিরুদ্ধে সংগ্রাম আন্দোলনে জয়লাভের জন্য যেকোনো ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত। স্বাধীনতাযুদ্ধে আমাদের মূল অর্জন সংবিধান, সেখানে সুযোগ-সুবিধাদির ক্ষেত্রে সাম্যের কথা বলা হয়েছে। এ কথা যেন আমরা ভুলে না যাই।

সম্মেলনে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবল হক চুন্নু বলেন, দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা খুব খারাপ। আমি অবাক হয়ে যাই, পুলিশের একজন আইজিপি কি করে গোপালগঞ্জে ৬০০ বিঘা জমির উপর রিসোর্ট করেন। কি করে মেয়ের নামে, স্ত্রীর নামে সম্পত্তি ক্রয় করেন। গাজীপুরে ভাওয়াল রিসোর্ট করেন। তিনি আবার বিদেশে চলে গেছেন, অথচ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী জানেন না।

তিনি বলেন, দেশে দুর্নীতি আর দুর্নীতি। এই জন্য আওয়ামি লীগের জনপ্রিয়তা শূন্য। আজ যদি কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হয়; আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি আওয়ামী লীগ ৪০টার বেশি সিট পাবে না।