ঢাকা ০৬:২২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘আমাদের হাইকোর্ট দেখাবেন না’

সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করে টানা তৃতীয় দিনের মতো অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এসময় কোটা বাতিলের দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান ও বক্তব্য দিতে দেখা যায় তাদের।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দুপুর সোয়া ১২টা থেকে শাহবাগ অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন তারা।

বক্তব্যের এক পর্যায়ে কোটা বিরোধী আন্দেলনের অন্যতম সংগঠক নাহিদ ইসলাম সরকারের উদ্দেশে বলেন, ‘আমাদের হাইকোর্ট দেখাবেন না।’

সকাল ১১টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন আবাসিক হল থেকে বের হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে জড়ো হয় আন্দোলনকারীরা। এরপর বিশাল মিছিল নিয়ে শাহবাগ মোড় অবরোধ করে দেন৷ এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত প্রায় সোয়া দুই ঘণ্টা ধরে রাস্তা অবরোধ করে রাখেন তারা। অবরোধে শাহবাগমুখী রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

গত ৫ জুন এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে সরকারি চাকরিতে নবম থেকে ১৩ম গ্রেডে মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের ৩০ শতাংশ কোটা বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট। এরপর রাষ্ট্রপক্ষ হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত আজ হাইকোর্টের রায় বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

ট্যাগস :

‘আমাদের হাইকোর্ট দেখাবেন না’

আপডেট সময় ০৪:০৭:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪

সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করে টানা তৃতীয় দিনের মতো অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এসময় কোটা বাতিলের দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান ও বক্তব্য দিতে দেখা যায় তাদের।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দুপুর সোয়া ১২টা থেকে শাহবাগ অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন তারা।

বক্তব্যের এক পর্যায়ে কোটা বিরোধী আন্দেলনের অন্যতম সংগঠক নাহিদ ইসলাম সরকারের উদ্দেশে বলেন, ‘আমাদের হাইকোর্ট দেখাবেন না।’

সকাল ১১টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন আবাসিক হল থেকে বের হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে জড়ো হয় আন্দোলনকারীরা। এরপর বিশাল মিছিল নিয়ে শাহবাগ মোড় অবরোধ করে দেন৷ এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত প্রায় সোয়া দুই ঘণ্টা ধরে রাস্তা অবরোধ করে রাখেন তারা। অবরোধে শাহবাগমুখী রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

গত ৫ জুন এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে সরকারি চাকরিতে নবম থেকে ১৩ম গ্রেডে মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের ৩০ শতাংশ কোটা বাতিলের সিদ্ধান্ত অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট। এরপর রাষ্ট্রপক্ষ হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত আজ হাইকোর্টের রায় বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।