ঢাকা ০৫:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১০ দিন পর বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া

১০ দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আজ সন্ধ্যায় তার গুলশানের বাসায় ফিরলেন। তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক এ জেড এম জাহিদ হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

ঢাকায় বেসরকারি এভারকেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়ার হৃদ্‌যন্ত্রে পেসমেকার বসানো হয় গত ২৫ জুন।

চিকিৎসক জাহিদ হোসেন বলেন, পেসমেকার বসানোর পর এখন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা অনেকটা স্থিতিশীল। সে কারণে তাকে আজ বিকেল পাঁচটার পর হাসপাতাল থেকে বাসায় নেওয়া হয়েছে। বাসায় রেখেই তাকে আগের মতো চিকিৎসা দেবেন চিকিৎসকেরা।

গত ২১ জুন দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে খালেদা জিয়াকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর দ্রুত তাকে হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নেওয়া হয়।

খালেদা জিয়ার হৃদ্‌রোগের সমস্যা আগে থেকেই ছিল। হার্টে তিনটি ব্লক ছিল। আগে একটা রিং পরানো হয়েছিল। সবকিছু পর্যালোচনা করে বিদেশি চিকিৎসক ও মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে গত ২৩ জুন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর হৃদ্‌যন্ত্রে স্থায়ী পেসমেকার বসানো হয় বলে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকেরা জানান।

বিএনপি নেত্রী এবার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর দলের পক্ষ থেকে তার মুক্তি ও বিদেশে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে ঢাকাসহ সারা দেশে তিন দিনের কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। আগামীকাল বুধবার জেলায় জেলায় সমাবেশের কর্মসূচি রয়েছে বিএনপির।

৭৯ বছর বয়সী খালেদা জিয়া আর্থ্রাইটিস, হৃদ্‌রোগ, ফুসফুস, লিভার, কিডনি, ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন জটিলতায় ভুগছেন।

ট্যাগস :

১০ দিন পর বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া

আপডেট সময় ০৬:৪১:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪

১০ দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আজ সন্ধ্যায় তার গুলশানের বাসায় ফিরলেন। তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক এ জেড এম জাহিদ হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

ঢাকায় বেসরকারি এভারকেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়ার হৃদ্‌যন্ত্রে পেসমেকার বসানো হয় গত ২৫ জুন।

চিকিৎসক জাহিদ হোসেন বলেন, পেসমেকার বসানোর পর এখন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থা অনেকটা স্থিতিশীল। সে কারণে তাকে আজ বিকেল পাঁচটার পর হাসপাতাল থেকে বাসায় নেওয়া হয়েছে। বাসায় রেখেই তাকে আগের মতো চিকিৎসা দেবেন চিকিৎসকেরা।

গত ২১ জুন দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে খালেদা জিয়াকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর দ্রুত তাকে হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) নেওয়া হয়।

খালেদা জিয়ার হৃদ্‌রোগের সমস্যা আগে থেকেই ছিল। হার্টে তিনটি ব্লক ছিল। আগে একটা রিং পরানো হয়েছিল। সবকিছু পর্যালোচনা করে বিদেশি চিকিৎসক ও মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে গত ২৩ জুন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর হৃদ্‌যন্ত্রে স্থায়ী পেসমেকার বসানো হয় বলে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকেরা জানান।

বিএনপি নেত্রী এবার হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর দলের পক্ষ থেকে তার মুক্তি ও বিদেশে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে ঢাকাসহ সারা দেশে তিন দিনের কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। আগামীকাল বুধবার জেলায় জেলায় সমাবেশের কর্মসূচি রয়েছে বিএনপির।

৭৯ বছর বয়সী খালেদা জিয়া আর্থ্রাইটিস, হৃদ্‌রোগ, ফুসফুস, লিভার, কিডনি, ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন জটিলতায় ভুগছেন।