ঢাকা ০৬:০৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জুলাই মাসে প্রায় প্রতিদিনই থাকবে বৃষ্টি

চলমান ভারী বৃষ্টি আরও তিন থেকে চারদিন পর্যন্ত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। অধিদপ্তর বলছে, জুলাই মাসজুড়েই প্রতিদিন বৃষ্টি হতে পারে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত দেশের সব নদী ও সমুদ্রবন্দরগুলোকে সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ খন্দকার হাফিজুর রহমান বলেন, জুলাই মাসের প্রায় প্রতিদিন বৃষ্টি হতে পারে। সোমবার থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ১১টি স্টেশনে অতিভারী বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে সিলেটে, ২৫৪ মিলিমিটার।

এদিকে, আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, শুক্রবার পর্যন্ত দেশের সব বিভাগের বেশিরভাগ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি এমনকি বজ্রসহ বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে।

খন্দকার হাফিজুর রহমান বলেন, লঘুচাপ না থাকলেও মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় সমুদ্রবন্দর ও উপকূলীয় এলাকায় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও সংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু প্রবল অবস্থায় রয়েছে।

এদিকে, সিলেট ও চট্টগ্রামে পাহাড়ধসের শঙ্কার কথাও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত দেশের সব নদীবন্দরগুলোকে ১ ও সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখে যেতে বলা হয়েছে। বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করা মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

ট্যাগস :

জুলাই মাসে প্রায় প্রতিদিনই থাকবে বৃষ্টি

আপডেট সময় ০৩:৩৪:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪

চলমান ভারী বৃষ্টি আরও তিন থেকে চারদিন পর্যন্ত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। অধিদপ্তর বলছে, জুলাই মাসজুড়েই প্রতিদিন বৃষ্টি হতে পারে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত দেশের সব নদী ও সমুদ্রবন্দরগুলোকে সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ খন্দকার হাফিজুর রহমান বলেন, জুলাই মাসের প্রায় প্রতিদিন বৃষ্টি হতে পারে। সোমবার থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ১১টি স্টেশনে অতিভারী বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে সিলেটে, ২৫৪ মিলিমিটার।

এদিকে, আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, শুক্রবার পর্যন্ত দেশের সব বিভাগের বেশিরভাগ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি এমনকি বজ্রসহ বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে।

খন্দকার হাফিজুর রহমান বলেন, লঘুচাপ না থাকলেও মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় সমুদ্রবন্দর ও উপকূলীয় এলাকায় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও সংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু প্রবল অবস্থায় রয়েছে।

এদিকে, সিলেট ও চট্টগ্রামে পাহাড়ধসের শঙ্কার কথাও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত দেশের সব নদীবন্দরগুলোকে ১ ও সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখে যেতে বলা হয়েছে। বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করা মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।