ঢাকা ০৯:৫২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তেলের টাকা দিতে না পেরে পেট্রোল পাম্পে প্রেমিকাকে বন্ধক

ফিলিং স্টেশন থেকে পেট্রোল নিয়ে টাকা দিতে না পেরে প্রেমিকাকে জিম্মায় রেখে পালিয়েছেন বাগেরহাটের রামপালে নাজমুল ইসলাম সজিব নামের এক যুবক।

শনিবার দুপুরে ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রামপাল থানায় প্রেমিকের অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত সজিব উপজেলার গাববুনিয়া গ্রামের মো. শহিদুল ইসলামের ছেলে।

জানা গেছে, বুধবার (২৬ জুন) স্কুলে যায় সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই কিশোরী। ওই দিন দুপুরে প্রেমিক নাজমুল ইসলাম সজিবের সঙ্গে বিদ্যালয়ের সামনে থেকে মোটরসাইকেলে বেড়াতে যান। এরপর তারা ভাগা বাজার এলাকায় আসলে মোটরসাইকেলের জ্বালানি শেষে হয়ে গেলে সজীব স্থানীয় একটি ফিলিং স্টেশনে গিয়ে মোটরসাইকেলে পেট্রোল নেন। কিন্তু টাকা না থাকায় প্রেমিকাকে জিম্মায় রেখে টাকা আনার কথা বলে চলে আসেন। দুপুর গড়িয়ে বিকেল হলেও ওই কিশোরী বাড়িতে না ফেরায় তার বাবা স্কুলে খোঁজ নেন। পরে খুঁজতে গিয়ে ফিলিং স্টেশন থেকে তাকে উদ্ধার করেন।

বিষয়টি নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হলে কিশোরীর বাবাকে মারধর করে সজিবের পরিবার। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে গাববুনিয়া গ্রামের মো. শহিদুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, নাজমুল ইসলাম সজীব, মল্লিক মনিরুল ইসলাম, ফয়সাল মল্লিকদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন।

এ অভিযুক্ত নাজমুল ইসলাম সজীবের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

রামপাল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোমেন দাশ বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর প্রশ্নই নেই: বাইডেন

তেলের টাকা দিতে না পেরে পেট্রোল পাম্পে প্রেমিকাকে বন্ধক

আপডেট সময় ০৫:৫৬:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪

ফিলিং স্টেশন থেকে পেট্রোল নিয়ে টাকা দিতে না পেরে প্রেমিকাকে জিম্মায় রেখে পালিয়েছেন বাগেরহাটের রামপালে নাজমুল ইসলাম সজিব নামের এক যুবক।

শনিবার দুপুরে ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রামপাল থানায় প্রেমিকের অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত সজিব উপজেলার গাববুনিয়া গ্রামের মো. শহিদুল ইসলামের ছেলে।

জানা গেছে, বুধবার (২৬ জুন) স্কুলে যায় সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই কিশোরী। ওই দিন দুপুরে প্রেমিক নাজমুল ইসলাম সজিবের সঙ্গে বিদ্যালয়ের সামনে থেকে মোটরসাইকেলে বেড়াতে যান। এরপর তারা ভাগা বাজার এলাকায় আসলে মোটরসাইকেলের জ্বালানি শেষে হয়ে গেলে সজীব স্থানীয় একটি ফিলিং স্টেশনে গিয়ে মোটরসাইকেলে পেট্রোল নেন। কিন্তু টাকা না থাকায় প্রেমিকাকে জিম্মায় রেখে টাকা আনার কথা বলে চলে আসেন। দুপুর গড়িয়ে বিকেল হলেও ওই কিশোরী বাড়িতে না ফেরায় তার বাবা স্কুলে খোঁজ নেন। পরে খুঁজতে গিয়ে ফিলিং স্টেশন থেকে তাকে উদ্ধার করেন।

বিষয়টি নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হলে কিশোরীর বাবাকে মারধর করে সজিবের পরিবার। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে গাববুনিয়া গ্রামের মো. শহিদুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান, নাজমুল ইসলাম সজীব, মল্লিক মনিরুল ইসলাম, ফয়সাল মল্লিকদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন।

এ অভিযুক্ত নাজমুল ইসলাম সজীবের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

রামপাল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোমেন দাশ বলেন, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।