ঢাকা ০৬:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১ টাকা কমলো ডিজেল ও কেরোসিনের দাম

নতুন স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে মিল রেখে আজ থেকে দেশের বাজারে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারপ্রতি এক টাকা কমলো। তবে অকটেন ও পেট্রোলের দাম আগের মতোই রয়েছে।

রোববার (৩০ জুন) রাতে জ্বালানি তেলের নতুন দাম নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ।

নতুন দাম অনুযায়ী, ভোক্তা পর্যায়ে প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিন ১০৭ টাকা ৭৫ পয়সা থেকে কমিয়ে ১০৬ টাকা ৭৫ পয়সা করা হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিনে এক টাকা কমেছে।

আগের মতোই লিটার প্রতি অকটেনের দাম ১৩১ টাকা এবং পেট্রোলের দাম ১২৭ টাকা রয়েছে।

সরকার গত ২৯ ফেব্রুয়ারি জ্বালানি তেলের স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে মূল্য নির্ধারণের নির্দেশিকার প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৭ মার্চ প্রথম প্রাইসিং ফর্মুলা অনুসারে জ্বালানি তেলের মূল্য সমন্বয়ের প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়েছিল। এরপর থেকে এই নির্দেশিকা অনুযায়ী প্রতি মাসে জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয় করা হচ্ছে।

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য কিছুটা কমলেও মার্কিন ডলারের বিপরীতে টাকার অবমূল্যায়নের কারণে জ্বালানি তেলের আমদানি ব্যয় বেড়েছে। মূল্য সমন্বয়ের পরেও ভারতের কলকাতায় বর্তমানে ডিজেল লিটার প্রতি ৯০ দশমিক ৭৬ রুপি বা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১২৫ টাকা ৭০ পয়সা এবং পেট্রোল ১০৩ দশমিক ৯৪ রুপি বা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৪৩ দশমিক ৯৬ পয়সায় বিক্রি হচ্ছে যা বাংলাদেশ থেকে যথাক্রমে প্রায় ১৮ টাকা ৯৫ পয়সা ও ১৬ টাকা ৯৬ পয়সা বেশি।

ট্যাগস :

১ টাকা কমলো ডিজেল ও কেরোসিনের দাম

আপডেট সময় ০১:৪৮:৪৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪

নতুন স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে মিল রেখে আজ থেকে দেশের বাজারে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারপ্রতি এক টাকা কমলো। তবে অকটেন ও পেট্রোলের দাম আগের মতোই রয়েছে।

রোববার (৩০ জুন) রাতে জ্বালানি তেলের নতুন দাম নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ।

নতুন দাম অনুযায়ী, ভোক্তা পর্যায়ে প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিন ১০৭ টাকা ৭৫ পয়সা থেকে কমিয়ে ১০৬ টাকা ৭৫ পয়সা করা হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রতি লিটার ডিজেল ও কেরোসিনে এক টাকা কমেছে।

আগের মতোই লিটার প্রতি অকটেনের দাম ১৩১ টাকা এবং পেট্রোলের দাম ১২৭ টাকা রয়েছে।

সরকার গত ২৯ ফেব্রুয়ারি জ্বালানি তেলের স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে মূল্য নির্ধারণের নির্দেশিকার প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৭ মার্চ প্রথম প্রাইসিং ফর্মুলা অনুসারে জ্বালানি তেলের মূল্য সমন্বয়ের প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়েছিল। এরপর থেকে এই নির্দেশিকা অনুযায়ী প্রতি মাসে জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয় করা হচ্ছে।

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য কিছুটা কমলেও মার্কিন ডলারের বিপরীতে টাকার অবমূল্যায়নের কারণে জ্বালানি তেলের আমদানি ব্যয় বেড়েছে। মূল্য সমন্বয়ের পরেও ভারতের কলকাতায় বর্তমানে ডিজেল লিটার প্রতি ৯০ দশমিক ৭৬ রুপি বা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১২৫ টাকা ৭০ পয়সা এবং পেট্রোল ১০৩ দশমিক ৯৪ রুপি বা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৪৩ দশমিক ৯৬ পয়সায় বিক্রি হচ্ছে যা বাংলাদেশ থেকে যথাক্রমে প্রায় ১৮ টাকা ৯৫ পয়সা ও ১৬ টাকা ৯৬ পয়সা বেশি।