ঢাকা ০৭:০৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আজ মাঠে নামছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান

আজ মাঠে নামছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান

আজ মাঠে নামছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান

বিশ্বকাপের ১১টা ম্যাচ একে একে শেষ হয়ে গেলেও ঠিক যেন পূর্ণতা পাচ্ছিল না আসর। কিছু একটার কমতি রয়েই যাচ্ছিল আসরে৷ অবশেষে পূর্ণতা ফিরছে। বিশ্বকাপে ফিরছে উৎসবের আবহ। বহুল আকাঙ্ক্ষিত ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মাঠে গড়াচ্ছে আজ। বিশ্বকাপের সবচেয়ে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে শনিবার মুখোমুখি হচ্ছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান।। আহমেদাবাদের বিখ্যাত নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে গড়াবে খেলা। লড়াই শুরু বেলা আড়াইটায়। মাসখানেকের ব্যবধানে এই নিয়ে তৃতীয়বার ‘এশিয়ান ডার্বি’ দেখার অপেক্ষায় বিশ্ব।

এই দুই দলের লড়াইয়ে যেন সীমান্তের সঙ্ঘাত ফিরে আসে ক্রিকেটের মাঠে। কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলে না, লড়াই চলে চোখে চোখ রেখে। জয় পরাজয় ছাপিয়ে লড়াইটা রূপ নেয় এর থেকেও বেশী কিছুতে। লড়াইটা সম্মান, ইতিহাস, ঐতিহ্যের; লড়াইটা মতবাদ, মতভেদ আর বিশ্বাসের বৈপরীত্যের।

এশিয়া কাপের সুবাদে সেপ্টেম্বরে দুই – দু’বার দেখা হয়েছিল উভয় দলের। যেখানে গ্রুপ পর্বের ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে গেলেও সুপার ফোরে পাকিস্তানকে হারায় ভারত। আজ মুখোমুখি হয়েছে বিশ্বকাপে উভয় দল নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে। আসরের প্রথম দুই ম্যাচেই জয় তুলে নিয়েছে দুই দলেই। আজ আছে তৃতীয় জয়ের খোঁজে।

এর আগে সব মিলিয়ে ওয়ানডেতে মোট ১৩৪ বার দেখা হয়েছে ভারত-পাকিস্তানের। যেখানে ৭৩ বার বিজয়ী বেশে মাঠ ছেড়েছে পাকিস্তান, ভারতের জয় ৫৬ ম্যাচে৷ পাঁচ ম্যাচে কোনো ফলাফল আসেনি। তবে বিশ্বকাপে হিসেবটা ভিন্ন। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপে সাতবার দেখা হলেও ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান কখনো!

দুই দলের দেখায় সর্বোচ্চ রান শচীন টেন্ডুলকারের, ৬৭ ইনিংসে ২৫২৬ রান করেন তিনি। দুইয়ে থাকা ইনজামাম উল হক ৬৪ ইনিংসে করেন ২৪০৩ রান। এবারের বিশ্বকাপে থাকা ক্রিকেটারদের মাঝে রোহিত শর্মা আছেন সবার উপরে, তার রান ১৮ ইনিংসে ৭৮৭। দুইয়ে থাকা কোহলি করেছেন ৬৬২ রান। পাকিস্তানের পক্ষে ফখর জামানের আছে ৫ ম্যাচে ২৩৪ রান। দুই দলের দেখায় বোলিংয়ে অবশ্য আধিপত্য পাকিস্তানের। সর্বোচ্চ ৬০ উইকেট ওয়াসিম আকরামের। সাকলায়েন মুশতাক ৫৭ ও আকিব জাভেদ নেন ৫৪ উইকেট। বর্তমানে দলে থাকা ক্রিকেটারদের মাঝে ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ কুলদীপ যাদবের, ১০টি।

পরিসংখ্যান দিয়ে কি আর ম্যাচ জেতা যায়! ক্রিকেট মানেই তো অনিশ্চয়তায় টইটম্বুর। কখন কি ঘটিয়ে ফেলায় বলাটা বড় দায়। ফলে জয়-পরাজয় ছাপিয়ে সাধারণ সমর্থকদের চাওয়া একটাই। ম্যাচটা জমে উঠুক, পায়ে-পা রেখে ছুটে চলুক, চোখে চোখ রেখে লড়াই হোক আর সর্বশেষে ক্রিকেটেরই জয় হোক।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

আজ মাঠে নামছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান

আজ মাঠে নামছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান

আপডেট সময় ১১:৩২:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩

বিশ্বকাপের ১১টা ম্যাচ একে একে শেষ হয়ে গেলেও ঠিক যেন পূর্ণতা পাচ্ছিল না আসর। কিছু একটার কমতি রয়েই যাচ্ছিল আসরে৷ অবশেষে পূর্ণতা ফিরছে। বিশ্বকাপে ফিরছে উৎসবের আবহ। বহুল আকাঙ্ক্ষিত ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মাঠে গড়াচ্ছে আজ। বিশ্বকাপের সবচেয়ে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে শনিবার মুখোমুখি হচ্ছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান।। আহমেদাবাদের বিখ্যাত নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে গড়াবে খেলা। লড়াই শুরু বেলা আড়াইটায়। মাসখানেকের ব্যবধানে এই নিয়ে তৃতীয়বার ‘এশিয়ান ডার্বি’ দেখার অপেক্ষায় বিশ্ব।

এই দুই দলের লড়াইয়ে যেন সীমান্তের সঙ্ঘাত ফিরে আসে ক্রিকেটের মাঠে। কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলে না, লড়াই চলে চোখে চোখ রেখে। জয় পরাজয় ছাপিয়ে লড়াইটা রূপ নেয় এর থেকেও বেশী কিছুতে। লড়াইটা সম্মান, ইতিহাস, ঐতিহ্যের; লড়াইটা মতবাদ, মতভেদ আর বিশ্বাসের বৈপরীত্যের।

এশিয়া কাপের সুবাদে সেপ্টেম্বরে দুই – দু’বার দেখা হয়েছিল উভয় দলের। যেখানে গ্রুপ পর্বের ম্যাচ বৃষ্টিতে ভেস্তে গেলেও সুপার ফোরে পাকিস্তানকে হারায় ভারত। আজ মুখোমুখি হয়েছে বিশ্বকাপে উভয় দল নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে। আসরের প্রথম দুই ম্যাচেই জয় তুলে নিয়েছে দুই দলেই। আজ আছে তৃতীয় জয়ের খোঁজে।

এর আগে সব মিলিয়ে ওয়ানডেতে মোট ১৩৪ বার দেখা হয়েছে ভারত-পাকিস্তানের। যেখানে ৭৩ বার বিজয়ী বেশে মাঠ ছেড়েছে পাকিস্তান, ভারতের জয় ৫৬ ম্যাচে৷ পাঁচ ম্যাচে কোনো ফলাফল আসেনি। তবে বিশ্বকাপে হিসেবটা ভিন্ন। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপে সাতবার দেখা হলেও ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান কখনো!

দুই দলের দেখায় সর্বোচ্চ রান শচীন টেন্ডুলকারের, ৬৭ ইনিংসে ২৫২৬ রান করেন তিনি। দুইয়ে থাকা ইনজামাম উল হক ৬৪ ইনিংসে করেন ২৪০৩ রান। এবারের বিশ্বকাপে থাকা ক্রিকেটারদের মাঝে রোহিত শর্মা আছেন সবার উপরে, তার রান ১৮ ইনিংসে ৭৮৭। দুইয়ে থাকা কোহলি করেছেন ৬৬২ রান। পাকিস্তানের পক্ষে ফখর জামানের আছে ৫ ম্যাচে ২৩৪ রান। দুই দলের দেখায় বোলিংয়ে অবশ্য আধিপত্য পাকিস্তানের। সর্বোচ্চ ৬০ উইকেট ওয়াসিম আকরামের। সাকলায়েন মুশতাক ৫৭ ও আকিব জাভেদ নেন ৫৪ উইকেট। বর্তমানে দলে থাকা ক্রিকেটারদের মাঝে ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ কুলদীপ যাদবের, ১০টি।

পরিসংখ্যান দিয়ে কি আর ম্যাচ জেতা যায়! ক্রিকেট মানেই তো অনিশ্চয়তায় টইটম্বুর। কখন কি ঘটিয়ে ফেলায় বলাটা বড় দায়। ফলে জয়-পরাজয় ছাপিয়ে সাধারণ সমর্থকদের চাওয়া একটাই। ম্যাচটা জমে উঠুক, পায়ে-পা রেখে ছুটে চলুক, চোখে চোখ রেখে লড়াই হোক আর সর্বশেষে ক্রিকেটেরই জয় হোক।