ঢাকা ০৬:০০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
গাজা ছাড়ার সময় ইসরায়েলের বিমান হামলায় নিহত ৭০

গাজা ছাড়ার সময় ইসরায়েলের বিমান হামলায় নিহত ৭০

গাজা ছাড়ার সময় ইসরায়েলের বিমান হামলায় নিহত ৭০

গাজা সিটি থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে আল্টিমেটাম দিয়েছে ইসরায়েল। এতে অনেকেই প্রাণ বাঁচাতে শহর ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন। হামাসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এমন একটি গাড়িবহরে ইসরায়েলের বিমান হামলায় নারী ও শিশুসহ অন্তত ৭০ জন নিহত হয়েছেন। শনিবার আল জাজিরার খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কাতারভিত্তিক গণমাধ্যমটির সংবাদদাতারা জানিয়েছেন, ইসরায়েলের সতর্কবার্তার পর হাজার হাজার ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিক গাজার উত্তরাঞ্চল ছেড়ে পালিয়ে গেছে। তবে গাড়িবহরে হামলার বিষয়ে ইসরায়েলের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।
তবে এর আগে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর মুখপাত্র জোনাথন কনরিকাস বলেছিলেন, গাজায় ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিকেরা তাদের শত্রু নয়। ফলে ইসরায়েল তাদের সেভাবে লক্ষ্যবস্তু বানায় না।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) বলেছে, তারা ‘সন্ত্রাসীদের’ আস্তানা এবং অবকাঠামোগুলো নির্মূল করতে গাজান অঞ্চলে অভিযান শুরু করেছে। হামাস জিম্মিদের কোথায় রেখেছে, সে বিষয়ে সৈন্যরা কিছু তথ্য পেয়েছে। জিম্মিদের সনাক্ত করতে তথ্যগুলো তাদের সহায়তা করবে। এদিকে লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে ইসরায়েলি গোলাবর্ষণে রয়টার্সের এক সাংবাদিক নিহত ও আল জাজিরার দুই সাংবাদিকসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় কমপক্ষে ১ হাজার ৯০০ ফিলিস্তিনি নিহত এবং ৭ হাজার ৬৯৬ জন আহত হয়েছেন। হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ইসরায়েলের বিরুদ্ধে গাজা ও লেবাননে সাদা ফসফরাস ব্যবহারের অভিযোগ করেছে, যা বেসামরিক নাগরিকদের মারাত্মক ঝুঁকিতে ফেলেছে।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

গাজা ছাড়ার সময় ইসরায়েলের বিমান হামলায় নিহত ৭০

গাজা ছাড়ার সময় ইসরায়েলের বিমান হামলায় নিহত ৭০

আপডেট সময় ১১:০২:২২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩

গাজা সিটি থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে আল্টিমেটাম দিয়েছে ইসরায়েল। এতে অনেকেই প্রাণ বাঁচাতে শহর ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন। হামাসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এমন একটি গাড়িবহরে ইসরায়েলের বিমান হামলায় নারী ও শিশুসহ অন্তত ৭০ জন নিহত হয়েছেন। শনিবার আল জাজিরার খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কাতারভিত্তিক গণমাধ্যমটির সংবাদদাতারা জানিয়েছেন, ইসরায়েলের সতর্কবার্তার পর হাজার হাজার ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিক গাজার উত্তরাঞ্চল ছেড়ে পালিয়ে গেছে। তবে গাড়িবহরে হামলার বিষয়ে ইসরায়েলের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।
তবে এর আগে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর মুখপাত্র জোনাথন কনরিকাস বলেছিলেন, গাজায় ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিকেরা তাদের শত্রু নয়। ফলে ইসরায়েল তাদের সেভাবে লক্ষ্যবস্তু বানায় না।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) বলেছে, তারা ‘সন্ত্রাসীদের’ আস্তানা এবং অবকাঠামোগুলো নির্মূল করতে গাজান অঞ্চলে অভিযান শুরু করেছে। হামাস জিম্মিদের কোথায় রেখেছে, সে বিষয়ে সৈন্যরা কিছু তথ্য পেয়েছে। জিম্মিদের সনাক্ত করতে তথ্যগুলো তাদের সহায়তা করবে। এদিকে লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে ইসরায়েলি গোলাবর্ষণে রয়টার্সের এক সাংবাদিক নিহত ও আল জাজিরার দুই সাংবাদিকসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় কমপক্ষে ১ হাজার ৯০০ ফিলিস্তিনি নিহত এবং ৭ হাজার ৬৯৬ জন আহত হয়েছেন। হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ইসরায়েলের বিরুদ্ধে গাজা ও লেবাননে সাদা ফসফরাস ব্যবহারের অভিযোগ করেছে, যা বেসামরিক নাগরিকদের মারাত্মক ঝুঁকিতে ফেলেছে।