ঢাকা ০৪:৩৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ইউরোর মূল পর্বে পর্তুগাল, রোনালদোর জোড়া গোল

ইউরোর মূল পর্বে পর্তুগাল, রোনালদোর জোড়া গোল

ইউরোর মূল পর্বে পর্তুগাল, রোনালদোর জোড়া গোল

ক্লাবের হয়ে ফর্মের ধারাবাহিকতা জাতীয় দলেও টেনে এনেছেন পর্তুগাল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তার দুর্দান্ত নৈপুণ্যে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বে স্লোভাকিয়াকে ৩-২ গোলে হারিয়ে মূল পর্বে পৌছে গেছে পর্তুগাল। ম্যাচে জোড়া গোল করে জয়ের নায়ক রোনালদো। বাকি গোলটি করেছেন রামোস। ম্যাচের শুরু থেকেই দারুণ খেলতে থাকে পর্তুগাল। ম্যাচের অষ্টম মিনিটে গোল পেতে পারতো দলটি। তবে বক্সে জটলার ভেতর থেকে রোনালদোর ব্যাকহিল ফ্লিক গোললাইন থেকে ফেরায় সফরকারীরা। পরক্ষণেই অফসাইডের কারণে বার্নার্দো সিলভার প্রচেষ্টাও ব্যর্থ হয়।

পর্তুগাল এগিয়ে যায় ম্যাচের অষ্টাদশ মিনিটে। ফার্নান্দেজের ক্রসে দুর্দান্ত হেডে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন রামোস। ২৫তম মিনিটে কাছ থেকে ফার্নান্দেসের হেড এক হাতে ঠেকান স্লোভাকিয়ার গোলরক্ষক। অবশ্য তিন মিনিট পরই সফল স্পট-কিকে ব্যবধান বাড়ান রোনালদো। প্রথমার্ধে আরও কয়েকটি সুযোগ পায় পর্তুগাল। তবে কাজে লাগাতে পারেনি। ফল ২-০ গোলের লিড নিয়েই বিরতিতে যায় রোনালদোর দল। প্রথমার্ধে গোলের জন্য ১৬টি শট নিয়ে ৭টি লক্ষ্যে রাখে পর্তুগাল। এই সময়ে স্লোভাকিয়া গোলের জন্য কোনো শটই নিতে পারেনি।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে স্লোভাকিয়া। ৫৫তম মিনিটে প্রথম পর্তুগালের গোলপোস্টে আক্রমণ শাণায় তারা। তবে ডেভিড হান্সকোর প্রচেষ্টা ফিরিয়ে দেন পর্তুগাল গোলরক্ষক ডিয়েগো কস্তা। অবশেষে ৬৯তম মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন হান্সকো। এক্ষেত্রে কিছুটা ভাগ্যের ছোঁয়া পেয়েছিলেন তিনি। বক্সের বাইরে থেকে আচমকা হান্সকোর শট বক্সে পর্তুগালের আন্তোনিও সিলভার পায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে জড়ায়, চেয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার ছিল না কস্তার।

তিন মিনিট পরই অবশ্য দলকে লিড এনে দেন রোনালদো। ডান দিক থেকে ফার্নান্দেজের বাড়ানো বল দূরের পোস্টে ফাঁকায় পেয়ে জালে পাঠান তিনি। এ নিয়ে জাতীয় দলের হয়ে ২০২ ম্যাচে রোনালদোর গোল হলো ১২৫টি।

৮০তম মিনিটে পর্তুগালকে আবার ভয় ধরিয়ে দেয় স্লোভাকিয়া। বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শটে ওপরের কোণা দিয়ে গোলটি করেন স্তানিস্লাভ লোবোতকা। শেষ দিকে ডিয়োগো জোতার একটি প্রচেষ্টা ফিরিয়ে দেন স্লোভাকিয়ার গোলরক্ষক। গোল না হলেও জয় নিয়েই মাঠে ছাড়ে পর্তুগাল। এই জয়ে ‘জে’ গ্রুপে প্রথম সাত ম্যাচ অপরাজিত থেকে তিন ম্যাচ হাতে রেখেই জার্মানির টিকেট নিশ্চিত করলো পর্তুগাল। ৭ ম্যাচে ২১ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে আছে তারা। সমান ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে স্লোভাকিয়া। তাদের চেয়ে ২ পয়েন্ট কম নিয়ে তিনে লুক্সেমবার্গ।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

ইউরোর মূল পর্বে পর্তুগাল, রোনালদোর জোড়া গোল

ইউরোর মূল পর্বে পর্তুগাল, রোনালদোর জোড়া গোল

আপডেট সময় ১০:৫২:৩৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২৩

ক্লাবের হয়ে ফর্মের ধারাবাহিকতা জাতীয় দলেও টেনে এনেছেন পর্তুগাল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তার দুর্দান্ত নৈপুণ্যে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বে স্লোভাকিয়াকে ৩-২ গোলে হারিয়ে মূল পর্বে পৌছে গেছে পর্তুগাল। ম্যাচে জোড়া গোল করে জয়ের নায়ক রোনালদো। বাকি গোলটি করেছেন রামোস। ম্যাচের শুরু থেকেই দারুণ খেলতে থাকে পর্তুগাল। ম্যাচের অষ্টম মিনিটে গোল পেতে পারতো দলটি। তবে বক্সে জটলার ভেতর থেকে রোনালদোর ব্যাকহিল ফ্লিক গোললাইন থেকে ফেরায় সফরকারীরা। পরক্ষণেই অফসাইডের কারণে বার্নার্দো সিলভার প্রচেষ্টাও ব্যর্থ হয়।

পর্তুগাল এগিয়ে যায় ম্যাচের অষ্টাদশ মিনিটে। ফার্নান্দেজের ক্রসে দুর্দান্ত হেডে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন রামোস। ২৫তম মিনিটে কাছ থেকে ফার্নান্দেসের হেড এক হাতে ঠেকান স্লোভাকিয়ার গোলরক্ষক। অবশ্য তিন মিনিট পরই সফল স্পট-কিকে ব্যবধান বাড়ান রোনালদো। প্রথমার্ধে আরও কয়েকটি সুযোগ পায় পর্তুগাল। তবে কাজে লাগাতে পারেনি। ফল ২-০ গোলের লিড নিয়েই বিরতিতে যায় রোনালদোর দল। প্রথমার্ধে গোলের জন্য ১৬টি শট নিয়ে ৭টি লক্ষ্যে রাখে পর্তুগাল। এই সময়ে স্লোভাকিয়া গোলের জন্য কোনো শটই নিতে পারেনি।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হয়ে খেলতে থাকে স্লোভাকিয়া। ৫৫তম মিনিটে প্রথম পর্তুগালের গোলপোস্টে আক্রমণ শাণায় তারা। তবে ডেভিড হান্সকোর প্রচেষ্টা ফিরিয়ে দেন পর্তুগাল গোলরক্ষক ডিয়েগো কস্তা। অবশেষে ৬৯তম মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন হান্সকো। এক্ষেত্রে কিছুটা ভাগ্যের ছোঁয়া পেয়েছিলেন তিনি। বক্সের বাইরে থেকে আচমকা হান্সকোর শট বক্সে পর্তুগালের আন্তোনিও সিলভার পায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে জড়ায়, চেয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার ছিল না কস্তার।

তিন মিনিট পরই অবশ্য দলকে লিড এনে দেন রোনালদো। ডান দিক থেকে ফার্নান্দেজের বাড়ানো বল দূরের পোস্টে ফাঁকায় পেয়ে জালে পাঠান তিনি। এ নিয়ে জাতীয় দলের হয়ে ২০২ ম্যাচে রোনালদোর গোল হলো ১২৫টি।

৮০তম মিনিটে পর্তুগালকে আবার ভয় ধরিয়ে দেয় স্লোভাকিয়া। বক্সের বাইরে থেকে জোরালো শটে ওপরের কোণা দিয়ে গোলটি করেন স্তানিস্লাভ লোবোতকা। শেষ দিকে ডিয়োগো জোতার একটি প্রচেষ্টা ফিরিয়ে দেন স্লোভাকিয়ার গোলরক্ষক। গোল না হলেও জয় নিয়েই মাঠে ছাড়ে পর্তুগাল। এই জয়ে ‘জে’ গ্রুপে প্রথম সাত ম্যাচ অপরাজিত থেকে তিন ম্যাচ হাতে রেখেই জার্মানির টিকেট নিশ্চিত করলো পর্তুগাল। ৭ ম্যাচে ২১ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে আছে তারা। সমান ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে স্লোভাকিয়া। তাদের চেয়ে ২ পয়েন্ট কম নিয়ে তিনে লুক্সেমবার্গ।