ঢাকা ০৩:৫৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জবির সেই অবন্তিকা স্নাতকে ব্যাচের তৃতীয়

জবির সেই অবন্তিকা স্নাতকে ব্যাচের তৃতীয়

সিজিপিএ ৩.৬৫ পেয়ে স্নাতকে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছেন সম্প্রতি আত্মহত্যা করা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী ফাইরুজ সাদাফ অবন্তীকা।

রোববার (১৯ মে) বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের এলএলবি প্রোগ্রামের ৮ম সেমিস্টারের ফলাফল প্রকাশ হয়। এতে দেখা যায়, অবন্তিকার স্নাতকের চূড়ান্ত ফলাফলে ওই ব্যাচে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছেন তিনি।

প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী ৮ম সেমিস্টারে জিপিএ ৩.৭৩ পেয়েছেন অবন্তিকা। এর মধ্যে স্পেশাল পেনাল ল কোর্সে তিনি পেয়েছেন ৩.৭৫, ল অব ক্রিমিনাল প্রোসিডিউরে পেয়েছেন ৩.৫০, কনভিয়েন্সিং, ড্রাফটিং অ্যান্ড ট্রায়াল অ্যাডভোকেসি ট্রেনিংয়ে ৩.৫০, লিগ্যাল রিসার্চ অ্যান্ড রাইটিং কোর্সে ৩.৭৫, লিবারেশন মুভমেন্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেন্ডেন্ট কোর্সে ৪.০০ ও মৌখিক পরীক্ষায় জিপিএ ৪.০০ পেয়েছেন তিনি।

এর আগে গত ১৫ মার্চ ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে শিক্ষক-সহপাঠীকে অভিযোগ করে গলায় ফাঁস নেন ফাইরুজ অবন্তিকা। এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন অবন্তিকার মা। অভিযুক্ত দ্বীন ইসলামের জামিন মঞ্জুর হলেও কারাগারে আছে অভিযুক্ত আম্মান।

বেনজীর আহমেদকে আর সময় দেওয়া হবে না: দুদকের আইনজীবী

জবির সেই অবন্তিকা স্নাতকে ব্যাচের তৃতীয়

আপডেট সময় ০৯:১৬:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

সিজিপিএ ৩.৬৫ পেয়ে স্নাতকে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছেন সম্প্রতি আত্মহত্যা করা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী ফাইরুজ সাদাফ অবন্তীকা।

রোববার (১৯ মে) বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের এলএলবি প্রোগ্রামের ৮ম সেমিস্টারের ফলাফল প্রকাশ হয়। এতে দেখা যায়, অবন্তিকার স্নাতকের চূড়ান্ত ফলাফলে ওই ব্যাচে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছেন তিনি।

প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী ৮ম সেমিস্টারে জিপিএ ৩.৭৩ পেয়েছেন অবন্তিকা। এর মধ্যে স্পেশাল পেনাল ল কোর্সে তিনি পেয়েছেন ৩.৭৫, ল অব ক্রিমিনাল প্রোসিডিউরে পেয়েছেন ৩.৫০, কনভিয়েন্সিং, ড্রাফটিং অ্যান্ড ট্রায়াল অ্যাডভোকেসি ট্রেনিংয়ে ৩.৫০, লিগ্যাল রিসার্চ অ্যান্ড রাইটিং কোর্সে ৩.৭৫, লিবারেশন মুভমেন্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেন্ডেন্ট কোর্সে ৪.০০ ও মৌখিক পরীক্ষায় জিপিএ ৪.০০ পেয়েছেন তিনি।

এর আগে গত ১৫ মার্চ ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে শিক্ষক-সহপাঠীকে অভিযোগ করে গলায় ফাঁস নেন ফাইরুজ অবন্তিকা। এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন অবন্তিকার মা। অভিযুক্ত দ্বীন ইসলামের জামিন মঞ্জুর হলেও কারাগারে আছে অভিযুক্ত আম্মান।