ঢাকা ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জয় দিয়ে শুরু দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপ মিশন

জয় দিয়ে শুরু দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপ মিশন

ব্যাট হাতে জ্বলে উঠলেন দক্ষিণ আফ্রিকার তিন ব্যাটার। কুইন্টন ডি কক, রসি ফন ডার ডুসেনের পর সেঞ্চুরির দেখা পেলেন এইডেন মারক্রামও। তাতে বিশ্বকাপ শুরুর ম্যাচেই বড় জয় পেয়েছে প্রোটিয়ারা। শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে ১০২ রানে। তিন সেঞ্চুরিতে ৪২৮ (৫ উইকেটে) রানের রেকর্ড সংগ্রহ দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রোটিয়াদের এই সংগ্রহ রেকর্ড বলার কারণ, বিশ্বকাপে এটিই দলীয় সর্বোচ্চ সংগ্রহ। আগের রেকর্ডটি ছিল অস্ট্রেলিয়ার। ৪১৭ করেছিল তারা আফগানিস্তানের বিপক্ষে ২০১৫ বিশ্বকাপে।

বিশ্বকাপে এর আগে তিন ব্যাটারও একসঙ্গে কখনো সেঞ্চুরি পাননি। রেকর্ড সেটিও। দিল্লীতে আজ কুইন্টন ডি কক (১০০), রসি ফন ডার ডুসেনের (১০৮) পর তিন অঙ্কের ঘর ছুঁয়েছেন এইডেন মারক্রামও (১০৬)। প্রোটিয়া মিডল অর্ডার ব্যাটার মারক্রাম মাত্র ৪৯ বলে সেঞ্চুরি করেছেন। বিশ্বকাপে দ্রুততম সেঞ্চুরির সেটিও নতুন রেকর্ড। এতদিন ৫০ বলে সেঞ্চুরির সেই রেকর্ডটি দখলে ছিল আইরিশ কেভিন ও ব্রায়ানের। বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে এক রানেই প্রথম উইকেট হারায় লংকানরা। পাথুম নিসাঙ্কাকে ফেরান মার্কো জেনসন। এক প্রান্ত আগলে রেখে ব্যাটে চার-ছয়ের ফুল ফোটান কুশল মেন্ডিস।

আটটি ছক্কা ও চারটি চারের মারে ৪২ বলে ৭৬ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন তিনি। তাকে ফেরান কাগিসো রাবাদা। মিডল অর্ডারে চারিথ আসালাঙ্কার ব্যাট থেকে আসে সর্বোচ্চ ৭৯ রান। শেষ দিকে অধিনায়ক দাসুন সানাকা করেন ৬৮ রান। লংকানদের ইনিংস থামে ৩২৬ রানে। এর আগে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শুরুতেই তেম্বা বাভূমাকে হারিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ফন ডার ডুসেনকে নিয়ে সেই ধাক্কা সামলান ডি কক। ৮৪ বলে ঠিক ১০০ করে যখন ক্রিজ ছাড়েন ডি কক, তখনই বড় ইনিংসের ভিত্তিটা পেয়ে গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। পরে ডুসেনও সেঞ্চুরি করে ফিরলে সেখান থেকেই রান পাহাড় গড়েছেন মারক্রাম। ৩ টা ছয় ১৪ টা চার তাঁর ইনিংসে।

জনপ্রিয় সংবাদ

জয় দিয়ে শুরু দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপ মিশন

আপডেট সময় ১১:২৭:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩

ব্যাট হাতে জ্বলে উঠলেন দক্ষিণ আফ্রিকার তিন ব্যাটার। কুইন্টন ডি কক, রসি ফন ডার ডুসেনের পর সেঞ্চুরির দেখা পেলেন এইডেন মারক্রামও। তাতে বিশ্বকাপ শুরুর ম্যাচেই বড় জয় পেয়েছে প্রোটিয়ারা। শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে ১০২ রানে। তিন সেঞ্চুরিতে ৪২৮ (৫ উইকেটে) রানের রেকর্ড সংগ্রহ দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রোটিয়াদের এই সংগ্রহ রেকর্ড বলার কারণ, বিশ্বকাপে এটিই দলীয় সর্বোচ্চ সংগ্রহ। আগের রেকর্ডটি ছিল অস্ট্রেলিয়ার। ৪১৭ করেছিল তারা আফগানিস্তানের বিপক্ষে ২০১৫ বিশ্বকাপে।

বিশ্বকাপে এর আগে তিন ব্যাটারও একসঙ্গে কখনো সেঞ্চুরি পাননি। রেকর্ড সেটিও। দিল্লীতে আজ কুইন্টন ডি কক (১০০), রসি ফন ডার ডুসেনের (১০৮) পর তিন অঙ্কের ঘর ছুঁয়েছেন এইডেন মারক্রামও (১০৬)। প্রোটিয়া মিডল অর্ডার ব্যাটার মারক্রাম মাত্র ৪৯ বলে সেঞ্চুরি করেছেন। বিশ্বকাপে দ্রুততম সেঞ্চুরির সেটিও নতুন রেকর্ড। এতদিন ৫০ বলে সেঞ্চুরির সেই রেকর্ডটি দখলে ছিল আইরিশ কেভিন ও ব্রায়ানের। বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে এক রানেই প্রথম উইকেট হারায় লংকানরা। পাথুম নিসাঙ্কাকে ফেরান মার্কো জেনসন। এক প্রান্ত আগলে রেখে ব্যাটে চার-ছয়ের ফুল ফোটান কুশল মেন্ডিস।

আটটি ছক্কা ও চারটি চারের মারে ৪২ বলে ৭৬ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন তিনি। তাকে ফেরান কাগিসো রাবাদা। মিডল অর্ডারে চারিথ আসালাঙ্কার ব্যাট থেকে আসে সর্বোচ্চ ৭৯ রান। শেষ দিকে অধিনায়ক দাসুন সানাকা করেন ৬৮ রান। লংকানদের ইনিংস থামে ৩২৬ রানে। এর আগে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শুরুতেই তেম্বা বাভূমাকে হারিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ফন ডার ডুসেনকে নিয়ে সেই ধাক্কা সামলান ডি কক। ৮৪ বলে ঠিক ১০০ করে যখন ক্রিজ ছাড়েন ডি কক, তখনই বড় ইনিংসের ভিত্তিটা পেয়ে গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। পরে ডুসেনও সেঞ্চুরি করে ফিরলে সেখান থেকেই রান পাহাড় গড়েছেন মারক্রাম। ৩ টা ছয় ১৪ টা চার তাঁর ইনিংসে।