ঢাকা ০৮:০২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এশিয়ান গেমসে মালয়েশিয়াকে ২ রানে হারাল বাংলাদেশ

এশিয়ান গেমসে মালয়েশিয়াকে ২ রানে হারাল বাংলাদেশ

এশিয়ান গেমসে ক্রিকেটের কোয়ার্টার ফাইনালে মালয়েশিয়াকে ২ রানে হারিয়ে নাটকীয় জয় পেয়েছে টাইগাররা। বুধবার (৪ অক্টোবর) দুপুরে ঝেজিয়াং প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিকেট মাঠে বাংলাদেশ আগে ব্যাট করে ৫ উইকেটে ১১৬ রান তোলে। জবাবে ৮ উইকেট হারিয়ে ১১৪ রানে থামে মালয়েশিয়া। ২ রানের রুদ্ধশ্বাস জয়ে শেষ চারে জায়গা করে নেয় সাইফ-আফিফরা।

এদিন বাংলাদেশ প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১১৬ রান করে। জবাবে মালয়েশিয়া ২০ ওভারে ৮ উইকেটে করে ১১৪ রান। ৩৮ রানে ৪ উইকেট ফেলে দেয়ার পর অনেকেই ভেবেছিলো, স্কোর ছোট হলেও জয়টা পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশই। কিন্তু ভিরানদিপ সিং বিজয় উন্নিকে সঙ্গে নিয়ে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন। ৭২ রান পর্যন্ত টেনে নিয়ে যান তারা দু’জন। ৫ এবং ৬ নম্বর উইকেট পড়ে যায় এ সময়। এরপর আইনুল হাফিজকে সঙ্গে নিয়ে আবারও জ্বলে ওঠেন ভিরানদিপ সিং। ১১২ রান পর্যন্ত নিয়ে যান তার।

১৯ এবং ২০ তম ওভারে গিয়ে রিশাধ হোসেন এবং আফিফ হোসেন সেট দুই ব্যাটারকে তুলে নিলে জয় নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের। শেষ ওভারে মালয়েশিয়ার দরকার ছিল মাত্র ৬ রান। অধিনায়ক সাইফ হাসান বল তুলে দেন আফিফ হোসেনের হাতে। দুর্দান্ত বোলিং করে আফিফ শেষ ওভারে মাত্র ৪ রান দিয়ে একটি উইকেট নিয়েছেন। মোট ৪ ওভার বল করে ১১ রান নিয়ে ৩ উইকেট নিয়ে দলের জয়ে বড় ভূমিকা রাখেন আফিফ।

জনপ্রিয় সংবাদ

এশিয়ান গেমসে মালয়েশিয়াকে ২ রানে হারাল বাংলাদেশ

আপডেট সময় ০৪:৪৬:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৪ অক্টোবর ২০২৩

এশিয়ান গেমসে ক্রিকেটের কোয়ার্টার ফাইনালে মালয়েশিয়াকে ২ রানে হারিয়ে নাটকীয় জয় পেয়েছে টাইগাররা। বুধবার (৪ অক্টোবর) দুপুরে ঝেজিয়াং প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিকেট মাঠে বাংলাদেশ আগে ব্যাট করে ৫ উইকেটে ১১৬ রান তোলে। জবাবে ৮ উইকেট হারিয়ে ১১৪ রানে থামে মালয়েশিয়া। ২ রানের রুদ্ধশ্বাস জয়ে শেষ চারে জায়গা করে নেয় সাইফ-আফিফরা।

এদিন বাংলাদেশ প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১১৬ রান করে। জবাবে মালয়েশিয়া ২০ ওভারে ৮ উইকেটে করে ১১৪ রান। ৩৮ রানে ৪ উইকেট ফেলে দেয়ার পর অনেকেই ভেবেছিলো, স্কোর ছোট হলেও জয়টা পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশই। কিন্তু ভিরানদিপ সিং বিজয় উন্নিকে সঙ্গে নিয়ে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন। ৭২ রান পর্যন্ত টেনে নিয়ে যান তারা দু’জন। ৫ এবং ৬ নম্বর উইকেট পড়ে যায় এ সময়। এরপর আইনুল হাফিজকে সঙ্গে নিয়ে আবারও জ্বলে ওঠেন ভিরানদিপ সিং। ১১২ রান পর্যন্ত নিয়ে যান তার।

১৯ এবং ২০ তম ওভারে গিয়ে রিশাধ হোসেন এবং আফিফ হোসেন সেট দুই ব্যাটারকে তুলে নিলে জয় নিশ্চিত হয় বাংলাদেশের। শেষ ওভারে মালয়েশিয়ার দরকার ছিল মাত্র ৬ রান। অধিনায়ক সাইফ হাসান বল তুলে দেন আফিফ হোসেনের হাতে। দুর্দান্ত বোলিং করে আফিফ শেষ ওভারে মাত্র ৪ রান দিয়ে একটি উইকেট নিয়েছেন। মোট ৪ ওভার বল করে ১১ রান নিয়ে ৩ উইকেট নিয়ে দলের জয়ে বড় ভূমিকা রাখেন আফিফ।