ঢাকা ১১:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

আত্মঘাতী গোলে বার্সাকে জয় উপহার দিলেন রামোস

আত্মঘাতী গোলে বার্সাকে জয় উপহার দিলেন রামোস

এক ম্যাচ পরেই আবারও জয়ে ফিরেছে বার্সেলোনা। গতকাল রাতে অলিম্পিক স্টেডিয়ামে সেভিয়াকে হারিয়েছে ১-০ গোলে। সেটাও আবার আত্মঘাতী গোলে। নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে বার্সেলোনাকে জয় উপহার দেন সের্হিয়ো রামোস।

দুই মৌসুম আগে রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে পিএসজিতে পাড়ি জমিয়েছিলেন রামোস। এবার ফিরেছেন শৈশবের ক্লাব সেভিয়াতে। সেখানে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি রক্ষণভাগের এই খেলোয়াড়ের। মায়োর্কার সঙ্গে আগের ম্যাচে ড্র করায় শীর্ষ স্থান হারিয়েছিল বার্সেলোনা। কালকের জয়ে আবারো সবার উপরে কাতালানরা। আট ম্যাচে ২০ পয়েন্ট তাদের। সাত ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে জিরোনা। ১৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে রিয়াল মাদ্রিদ।

আজ রাতে মুখোমুখি হবে রিয়াল ও জিরোনা। ঘরের মাঠে বলের দখল, আক্রমণে এগিয়ে ছিল বার্সেলোনা। কিন্তু কাঙ্খিত গোল পাচ্ছিল না। প্রথমার্ধে তিনটি শট লক্ষ্যে রেখেও জালে পাঠাতে পারেনি বার্সার ফরোয়ার্ডরা। অবশেষে ৭৬ মিনিটে আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় বার্সা। লামিন ইয়ামিনের ক্রস ফেরাতে গিয়ে নিজেদের জালেই পাঠান রামোস। শেষ পর্যন্ত এই ব্যবধান ধরে রেখে জয় নিশ্চিত করে জাভি এর্নান্দেসের দল।

জনপ্রিয় সংবাদ

ইরানের প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টারের সন্ধান মিলেছে , ‘প্রাণের অস্তিত্ব নেই’

আত্মঘাতী গোলে বার্সাকে জয় উপহার দিলেন রামোস

আপডেট সময় ১২:০৯:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

এক ম্যাচ পরেই আবারও জয়ে ফিরেছে বার্সেলোনা। গতকাল রাতে অলিম্পিক স্টেডিয়ামে সেভিয়াকে হারিয়েছে ১-০ গোলে। সেটাও আবার আত্মঘাতী গোলে। নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে বার্সেলোনাকে জয় উপহার দেন সের্হিয়ো রামোস।

দুই মৌসুম আগে রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে পিএসজিতে পাড়ি জমিয়েছিলেন রামোস। এবার ফিরেছেন শৈশবের ক্লাব সেভিয়াতে। সেখানে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি রক্ষণভাগের এই খেলোয়াড়ের। মায়োর্কার সঙ্গে আগের ম্যাচে ড্র করায় শীর্ষ স্থান হারিয়েছিল বার্সেলোনা। কালকের জয়ে আবারো সবার উপরে কাতালানরা। আট ম্যাচে ২০ পয়েন্ট তাদের। সাত ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে জিরোনা। ১৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে রিয়াল মাদ্রিদ।

আজ রাতে মুখোমুখি হবে রিয়াল ও জিরোনা। ঘরের মাঠে বলের দখল, আক্রমণে এগিয়ে ছিল বার্সেলোনা। কিন্তু কাঙ্খিত গোল পাচ্ছিল না। প্রথমার্ধে তিনটি শট লক্ষ্যে রেখেও জালে পাঠাতে পারেনি বার্সার ফরোয়ার্ডরা। অবশেষে ৭৬ মিনিটে আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় বার্সা। লামিন ইয়ামিনের ক্রস ফেরাতে গিয়ে নিজেদের জালেই পাঠান রামোস। শেষ পর্যন্ত এই ব্যবধান ধরে রেখে জয় নিশ্চিত করে জাভি এর্নান্দেসের দল।