ঢাকা ০৩:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

মর্গ থেকে গায়েব নাভালনির মৃতদেহ

  • ফখরুল ইসলাম
  • আপডেট সময় ০৯:৫৭:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • 67

মর্গ থেকে গায়েব নাভালনির মৃতদেহ

রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির মৃতদেহ মর্গে নেই বলে দাবি করেছে তার দল। শনিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ দাবি করা হয়েছে। শনিবার নাভালনির মা লিউডমিলার সঙ্গে তার আইনজীবী সালেখার্ড শহরের মর্গে যান।

নাভালনির দল টেলিগ্রামে বলেছে, ‘মর্গ বন্ধ ছিল, ভালনির মৃতদেহ সেখানে ছিল বলে বলা সত্ত্বেও এটি বন্ধ ছিল। পোস্টটিতে বলা হয়েছে, ওই আইনজীবী মর্গের ফোন দিলে তাকে বলা হয়েছিল, ‘অ্যালেক্সির দেহ মর্গে নেই। নাভালনির সমর্থকরা মৃতদেহ ‘অবিলম্বে’ পরিবারের কাছে হস্তান্তরের আহ্বান জানিয়েছেন।

রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা ও প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কট্টর সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনি শুক্রবার কারাগারে বন্দি অবস্থায় মারা যান। রাশিয়ার কেন্দ্রীয় কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, নাভালনি হাঁটতে যাওয়ার পরে চেতনা হারিয়েছিলেন। এরপর আর তার জ্ঞান ফিরে আসেনি। পুতিনের এই সমালোচকের মৃত্যুর ঘটনায় রুশ সরকারকে দায়ী করছে পশ্চিমা বিশ্ব।

জনপ্রিয় সংবাদ

মুন্সিগঞ্জের আওয়ামী লীগের দু-পক্ষরে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত ১

মর্গ থেকে গায়েব নাভালনির মৃতদেহ

আপডেট সময় ০৯:৫৭:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির মৃতদেহ মর্গে নেই বলে দাবি করেছে তার দল। শনিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ দাবি করা হয়েছে। শনিবার নাভালনির মা লিউডমিলার সঙ্গে তার আইনজীবী সালেখার্ড শহরের মর্গে যান।

নাভালনির দল টেলিগ্রামে বলেছে, ‘মর্গ বন্ধ ছিল, ভালনির মৃতদেহ সেখানে ছিল বলে বলা সত্ত্বেও এটি বন্ধ ছিল। পোস্টটিতে বলা হয়েছে, ওই আইনজীবী মর্গের ফোন দিলে তাকে বলা হয়েছিল, ‘অ্যালেক্সির দেহ মর্গে নেই। নাভালনির সমর্থকরা মৃতদেহ ‘অবিলম্বে’ পরিবারের কাছে হস্তান্তরের আহ্বান জানিয়েছেন।

রাশিয়ার বিরোধীদলীয় নেতা ও প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কট্টর সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনি শুক্রবার কারাগারে বন্দি অবস্থায় মারা যান। রাশিয়ার কেন্দ্রীয় কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, নাভালনি হাঁটতে যাওয়ার পরে চেতনা হারিয়েছিলেন। এরপর আর তার জ্ঞান ফিরে আসেনি। পুতিনের এই সমালোচকের মৃত্যুর ঘটনায় রুশ সরকারকে দায়ী করছে পশ্চিমা বিশ্ব।