ঢাকা ০৩:৫৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাশিয়ায় পুতিন বিরোধী কারাবন্দী নেতা নাভালনির মৃত্যু

রাশিয়ায় কারাবান্দী অবস্থায় বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনি মারা গেছেন। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কঠোর সমালোচক ছিলেন তিনি। ৪৭ বছর বয়সী নাভালনি গত এক দশকে রাশিয়ায় বিরোধী নেতা হিসেবে বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে বেশি পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছিলেন

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারী) রাশিয়ার সাইবেরিয়া অঞ্চলের একটি কারাগারে বন্দী অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

২০২১ সাল থেকে কারাগারে বন্দী ছিলেন নাভালনি। গত বছরের শেষ দিকে তাকে উত্তর সাইবেরিয়ার ইয়ামালো–নেনেটস অঞ্চলের কারা কলোনিতে নেওয়া হয়। বন্দীদের ওপর নিষ্ঠুরতার কুখ্যাতি রয়েছে এই কারাগারের।

স্থানীয় কারা কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছে, নাভালনি শুক্রবার হাঁটাহাটি করার পর অসুস্থ বোধ করেন। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তিনি জ্ঞান হারান। তখন জরুরিভাবে চিকিৎসক দলকে ডেকে আনা হয়। তারা নাভালনিকে ফেরানোর সব চেষ্টা করলেও তাতে কোনো ফল আসেনি। তার মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নাভালনিকে সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল গতকাল বৃহস্পতিবার। কারাগার থেকে ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে আদালতের শুনানিতে বক্তব্য দেন তিনি। সে সময় তাকে হাস্যোজ্জ্বল ও মজা করতে দেখা যায়। নাভালনির মা লুদমিলা নাভালনিয়া আজ ছেলের মৃত্যু সংবাদ পাওয়ার পর এক ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘আমি কোনো সমবেদনা শুনতে চাই না। আমরা গত ১২ (ফেব্রুয়ারি) তাকে কারাগারে দেখেছিলাম। সে প্রাণবন্ত, সুস্থ ও সুখী ছিল।’

পুতিনের সমালোচকদের অধিকাংশই রাশিয়া ছেড়ে গেছেন। কিন্তু নাভালনি নিশ্চিত কারাবাস হবে জেনেও জার্মানিতে কয়েক মাস চিকিৎসা নিয়ে ২০২১ সালের জানুয়ারিতে দেশে ফেরেন। এর আগের বছর আগস্টে তার শরীরে ‘নোভিচোক’ নামের বিষ প্রয়োগ করা হয়েছিল।

রাশিয়ায় এক দশকের বেশি সময় রাজপথে আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছেন নাভালনি। পুতিন প্রশাসনের দুর্নীতির তথ্য নিজের ইউটিউব চ্যানেলে তুলে ধরেন তিনি। কোটি কোটি মানুষ তা দেখেন এবং হাজার হাজার মানুষ রাজপথে নেমে এসেছিলেন।

নাভালনির বিরুদ্ধে ডজনখানেকের বেশি মামলা হয়েছিল। সর্বশেষ গত আগস্টে উগ্রপন্থী সংগঠন প্রতিষ্ঠা ও তাতে অর্থায়নের অভিযোগে তার ১৯ বছরের কারাদণ্ড হয়। এর আগে জালিয়াতি, আদালত অবমাননাসহ বিভিন্ন অভিযোগে তাকে ৯ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

রাশিয়ায় পুতিন বিরোধী কারাবন্দী নেতা নাভালনির মৃত্যু

আপডেট সময় ০১:২৪:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাশিয়ায় কারাবান্দী অবস্থায় বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনি মারা গেছেন। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কঠোর সমালোচক ছিলেন তিনি। ৪৭ বছর বয়সী নাভালনি গত এক দশকে রাশিয়ায় বিরোধী নেতা হিসেবে বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে বেশি পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছিলেন

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারী) রাশিয়ার সাইবেরিয়া অঞ্চলের একটি কারাগারে বন্দী অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

২০২১ সাল থেকে কারাগারে বন্দী ছিলেন নাভালনি। গত বছরের শেষ দিকে তাকে উত্তর সাইবেরিয়ার ইয়ামালো–নেনেটস অঞ্চলের কারা কলোনিতে নেওয়া হয়। বন্দীদের ওপর নিষ্ঠুরতার কুখ্যাতি রয়েছে এই কারাগারের।

স্থানীয় কারা কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছে, নাভালনি শুক্রবার হাঁটাহাটি করার পর অসুস্থ বোধ করেন। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তিনি জ্ঞান হারান। তখন জরুরিভাবে চিকিৎসক দলকে ডেকে আনা হয়। তারা নাভালনিকে ফেরানোর সব চেষ্টা করলেও তাতে কোনো ফল আসেনি। তার মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নাভালনিকে সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল গতকাল বৃহস্পতিবার। কারাগার থেকে ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে আদালতের শুনানিতে বক্তব্য দেন তিনি। সে সময় তাকে হাস্যোজ্জ্বল ও মজা করতে দেখা যায়। নাভালনির মা লুদমিলা নাভালনিয়া আজ ছেলের মৃত্যু সংবাদ পাওয়ার পর এক ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘আমি কোনো সমবেদনা শুনতে চাই না। আমরা গত ১২ (ফেব্রুয়ারি) তাকে কারাগারে দেখেছিলাম। সে প্রাণবন্ত, সুস্থ ও সুখী ছিল।’

পুতিনের সমালোচকদের অধিকাংশই রাশিয়া ছেড়ে গেছেন। কিন্তু নাভালনি নিশ্চিত কারাবাস হবে জেনেও জার্মানিতে কয়েক মাস চিকিৎসা নিয়ে ২০২১ সালের জানুয়ারিতে দেশে ফেরেন। এর আগের বছর আগস্টে তার শরীরে ‘নোভিচোক’ নামের বিষ প্রয়োগ করা হয়েছিল।

রাশিয়ায় এক দশকের বেশি সময় রাজপথে আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছেন নাভালনি। পুতিন প্রশাসনের দুর্নীতির তথ্য নিজের ইউটিউব চ্যানেলে তুলে ধরেন তিনি। কোটি কোটি মানুষ তা দেখেন এবং হাজার হাজার মানুষ রাজপথে নেমে এসেছিলেন।

নাভালনির বিরুদ্ধে ডজনখানেকের বেশি মামলা হয়েছিল। সর্বশেষ গত আগস্টে উগ্রপন্থী সংগঠন প্রতিষ্ঠা ও তাতে অর্থায়নের অভিযোগে তার ১৯ বছরের কারাদণ্ড হয়। এর আগে জালিয়াতি, আদালত অবমাননাসহ বিভিন্ন অভিযোগে তাকে ৯ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।