ঢাকা ০৪:২০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুদ্রা বিনিময়ে নতুন পদ্ধতি চালু করল বাংলাদেশ ব্যাংক

  • ফখরুল ইসলাম
  • আপডেট সময় ১০:২৮:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • 90

মুদ্রা বিনিময়ে নতুন পদ্ধতি চালু করল বাংলাদেশ ব্যাংক

বৈদেশিক মুদ্রা বা ডলার বিনিময়ের নতুন পদ্ধতি কারেন্সি সোয়াপ চালু করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ফলে কোনও ব্যাংকের কাছে অতিরিক্ত ডলার থাকলে তা বিক্রি না করে বাংলাদেশ ব্যাংকে তা জমা দিয়ে সমপরিমাণ টাকা নিতে পারবে ব্যাংকগুলো। আবার টাকা ফেরত দিয়ে সমপরিমাণ ডলার নিতে পারবে ব্যাংকগুলো।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করে দেশের সব তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীর নিকট পাঠিয়েছে।

সার্কুলার অনুযায়ী, ‘কারেন্সি সোয়াপ’ নতুন পদ্ধতিতে সর্বনিম্ন ৫০ লাখ ডলার বা তার সমপরিমাণ টাকা পারস্পরিক বিনিময় করতে পারবে। ‘কারেন্সি সোয়াপ’র মেয়াদ হবে সর্বনিম্ন ৭ থেকে সর্বোচ্চ ৯০ দিন। মুদ্রা বিনিময়ের এ সুবিধা নিতে হলে আগ্রহী ব্যাংকগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের চুক্তি করতে হবে। চুক্তি অনুযায়ী, বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো যেদিন বাংলাদেশ ব্যাংকে ডলার জমা দেবে, ওই দিনের ডলারের বিনিময়মূল্য হিসেবে সমপরিমাণ টাকা পেয়ে যাবে। একইভাবে নির্ধারিত সময় পর টাকা জমা দিয়ে ডলার ফেরত নিতে পারবে।

বর্তমান নিয়মে কোনও ব্যাংকে অতিরিক্ত ডলার থাকলে তা বাংলাদেশ ব্যাংক বা অন্য ব্যাংকের কাছে বিক্রি করতে পারে। তবে, প্রয়োজনের সময় ওই ডলার ফেরত পাওয়ার কোনও নিশ্চয়তা নেই। তবে, ‘কারেন্সি সোয়াপ’র এ নতুন পদ্ধতিতে প্রয়োজনে ডলার পাওয়ার নিশ্চয়তা রয়েছে। এজন্য বেশিরভাগ ব্যাংক সোয়াপ করতে আগ্রহী। এ পদ্ধতি বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাণিজ্যিক ব্যাংক উভয়পক্ষের জন্য সুবিধা।

জনপ্রিয় সংবাদ

মুদ্রা বিনিময়ে নতুন পদ্ধতি চালু করল বাংলাদেশ ব্যাংক

আপডেট সময় ১০:২৮:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বৈদেশিক মুদ্রা বা ডলার বিনিময়ের নতুন পদ্ধতি কারেন্সি সোয়াপ চালু করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ফলে কোনও ব্যাংকের কাছে অতিরিক্ত ডলার থাকলে তা বিক্রি না করে বাংলাদেশ ব্যাংকে তা জমা দিয়ে সমপরিমাণ টাকা নিতে পারবে ব্যাংকগুলো। আবার টাকা ফেরত দিয়ে সমপরিমাণ ডলার নিতে পারবে ব্যাংকগুলো।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করে দেশের সব তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীর নিকট পাঠিয়েছে।

সার্কুলার অনুযায়ী, ‘কারেন্সি সোয়াপ’ নতুন পদ্ধতিতে সর্বনিম্ন ৫০ লাখ ডলার বা তার সমপরিমাণ টাকা পারস্পরিক বিনিময় করতে পারবে। ‘কারেন্সি সোয়াপ’র মেয়াদ হবে সর্বনিম্ন ৭ থেকে সর্বোচ্চ ৯০ দিন। মুদ্রা বিনিময়ের এ সুবিধা নিতে হলে আগ্রহী ব্যাংকগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের চুক্তি করতে হবে। চুক্তি অনুযায়ী, বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো যেদিন বাংলাদেশ ব্যাংকে ডলার জমা দেবে, ওই দিনের ডলারের বিনিময়মূল্য হিসেবে সমপরিমাণ টাকা পেয়ে যাবে। একইভাবে নির্ধারিত সময় পর টাকা জমা দিয়ে ডলার ফেরত নিতে পারবে।

বর্তমান নিয়মে কোনও ব্যাংকে অতিরিক্ত ডলার থাকলে তা বাংলাদেশ ব্যাংক বা অন্য ব্যাংকের কাছে বিক্রি করতে পারে। তবে, প্রয়োজনের সময় ওই ডলার ফেরত পাওয়ার কোনও নিশ্চয়তা নেই। তবে, ‘কারেন্সি সোয়াপ’র এ নতুন পদ্ধতিতে প্রয়োজনে ডলার পাওয়ার নিশ্চয়তা রয়েছে। এজন্য বেশিরভাগ ব্যাংক সোয়াপ করতে আগ্রহী। এ পদ্ধতি বাংলাদেশ ব্যাংক ও বাণিজ্যিক ব্যাংক উভয়পক্ষের জন্য সুবিধা।