ঢাকা ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সিরিজ বাঁচানোর লক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০১:০৯:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • ১৩১ বার পড়া হয়েছে

সিরিজ বাঁচানোর লক্ষ্যে মাঠে নামবে বাংলাদেশ

সংবাদ সম্মেলন কক্ষ থেকে বেরিয়ে যেতে পড়েলন সেলফি শিকারিদের কবলে। হারহামেশাই এমন হয়। তবে নাজমুল হাসান শান্তর কাছে এটি অন্যদিনগুলো থেকে। ক্রিকেটার পরিচয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে গর্বের নেতৃত্ব। স্পষ্ট ভাষায়, খোলামেলা আর যুক্তিযুক্ত উত্তরে শান্ত সংবাদ সম্মেলন সামলেছেন দক্ষ কিংবা অভিজ্ঞ অধিনায়কের মতোই। এবার মাঠের লড়াইয়ের পালা। লাল সবুজের জার্সিতে সেই অধিনায়কত্বর যাত্রার দিনই শান্তর সামনে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ। মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুপুর ২টায় কিউইদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হেরে ইতিমধ্যে সিরিজে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ। আজ জিতলে সিরিজ হবে টাই, হারলে ট্রফি কিউইদের।

বিশ্বকাপ যাত্রার আগের বাংলাদেশের শেষ লড়াইয়ের সঙ্গে শান্তর নতুন শুরু। দুটো উপলক্ষ ভালোভাবে শেষ করতে চান বাংলাদেশের ষোলোতম অধিনায়ক, ‘চ্যালেঞ্জ না আমার কাছে মনে হয় আনন্দের। খুব ভালো লাগতেছে এমন সুযোগ এবং এমন অবস্থায় আমাদের টিম আছে, সামনে বিশ্ব কাপ। সব মিলায়া আমার কাছে মনে হয় যদি আমরা এই জায়গায়, ব্যক্তিগতভাবে আমি যদি ভালোভাবে শেষ করতে পারি ম্যাচটা আমার ভবিষ্যতের জন্য ভালো হবে।’

সেই ভালো করার বিশ্বাসও প্রবলভাবে আছে শান্তর, ‘আমি বিশ্বাস করি, আমাদের টিম একটা ভালো অবস্থায় থাকবে। মেইন যে জিনিসটা হলো যে, কিভাবে কালকের ম্যাচটা আমরা খুব ভালোভাবে শেষ করতে পারি। বিশ্বকাপ দলের অধিকাংশ ক্রিকেটারকে বাজিয়ে দেখার কথা ছিল এই ম্যাচে। সেই মোতাবেক এগিয়েছে টিম ম্যানেজম্যান্ট। একমাত্র সাকিব আল হাসান আছেন পূর্ণ বিশ্রামে। তাসকিন আহমেদ ফিরলেও শেষ মুহুর্তে অসুস্থ হওয়ায় তার পরিবর্তে দলে আসে খালেদ। এ ছাড়া বিশ্রামে থাকা মুশফিকুর রহিম, তাওহীদ হৃদয়রা ফিরেছেন দলে। মেহেদি হাসান মিরাজ ফিরলেও তাকে নিয়ে শংকা আছে। সতর্তকতা হিসেবে তাই আফিফ হোসেন ধ্রুবকেও ডেকেছে টিম ম্যানেজম্যান্ট।

প্রায় সব ম্যাচে একাধিক পরিবর্তন নিয়ে নামাকে নিজেদের জন্য ভালো হিসেবে দেখছেন শান্ত, ‘আমার মনে হয়, সবাই রোটেশনের মধ্যে আছে। সামনে আমাদের অনেকগুলো ম্যাচ। সো সবার রিকভারিটা দরকার আছে। এটাও টিমের একটা প্ল্যান। সবাই এটা নিয়েও অবগত আছে। এমন না যে সবাই হঠাৎ করে এসে খেলতেছে। বা কেউ জানত না এমন না। সবাই জানত প্ল্যানটা। ওই অনুযায়ী প্রিপারেশনটা নেওয়া হচ্ছে ওই চ্যালেঞ্জটা নেওয়ার জন্য সবাই প্রস্তুত। এশিয়া কাপের মাঝপথে ইনজুরি নিয়ে দেশে ফেরা শান্তর সামনে সুযোগ নতুন রিদমে বিশ্বকাপের বিমান ধরার। অধিনায়ক সাকিব থেকে শেখা মন্ত্র মাঠে কাজে লাগিয়ে সর্বোচ্চটা উজাড় করে দিতে চান বাংলাদেশের হয়ে সব সংস্করণ মিলিয়ে ৭৭ ম্যাচ খেলা এই ক্রিকেটার। উইকেট কেমন হবে এটা নিয়েও ভাবছেন না শান্ত। উইকেটের আচরণ কাজে লাগিয়ে খেলার জন্য মুখিয়ে তার দল।

এদিকে ২০১৩ সালের পর বাংলাদেশের মাটিতে কিউইদের সামনে সিরিজ জেতার হাতছানি। চলতি সিরিজের আগে গত ১০ বছরে কোনো ম্যাচই জেতেনি কিউইরা। এবার সেই সুযোগ কাজে লাগাতে চান হ্যানরি নিকোলস, ‘যখন আমরা এখানে সিরিজ খেলতে আসি, আমাদের লক্ষ্য ছিল প্রত্যেক ম্যাচই জেতা। আমরা জানি এখানে খেলা কতটা কঠিন, শেষ দুটা সিরিজ আমরা এখানে হেরেছি। দল হিসেবে কাল আমাদের সামনে সিরিজ জয়ের দারুণ সুযোগ।’

সিরিজ বাঁচানোর লক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

আপডেট সময় ০১:০৯:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সংবাদ সম্মেলন কক্ষ থেকে বেরিয়ে যেতে পড়েলন সেলফি শিকারিদের কবলে। হারহামেশাই এমন হয়। তবে নাজমুল হাসান শান্তর কাছে এটি অন্যদিনগুলো থেকে। ক্রিকেটার পরিচয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে গর্বের নেতৃত্ব। স্পষ্ট ভাষায়, খোলামেলা আর যুক্তিযুক্ত উত্তরে শান্ত সংবাদ সম্মেলন সামলেছেন দক্ষ কিংবা অভিজ্ঞ অধিনায়কের মতোই। এবার মাঠের লড়াইয়ের পালা। লাল সবুজের জার্সিতে সেই অধিনায়কত্বর যাত্রার দিনই শান্তর সামনে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ। মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুপুর ২টায় কিউইদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হেরে ইতিমধ্যে সিরিজে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ। আজ জিতলে সিরিজ হবে টাই, হারলে ট্রফি কিউইদের।

বিশ্বকাপ যাত্রার আগের বাংলাদেশের শেষ লড়াইয়ের সঙ্গে শান্তর নতুন শুরু। দুটো উপলক্ষ ভালোভাবে শেষ করতে চান বাংলাদেশের ষোলোতম অধিনায়ক, ‘চ্যালেঞ্জ না আমার কাছে মনে হয় আনন্দের। খুব ভালো লাগতেছে এমন সুযোগ এবং এমন অবস্থায় আমাদের টিম আছে, সামনে বিশ্ব কাপ। সব মিলায়া আমার কাছে মনে হয় যদি আমরা এই জায়গায়, ব্যক্তিগতভাবে আমি যদি ভালোভাবে শেষ করতে পারি ম্যাচটা আমার ভবিষ্যতের জন্য ভালো হবে।’

সেই ভালো করার বিশ্বাসও প্রবলভাবে আছে শান্তর, ‘আমি বিশ্বাস করি, আমাদের টিম একটা ভালো অবস্থায় থাকবে। মেইন যে জিনিসটা হলো যে, কিভাবে কালকের ম্যাচটা আমরা খুব ভালোভাবে শেষ করতে পারি। বিশ্বকাপ দলের অধিকাংশ ক্রিকেটারকে বাজিয়ে দেখার কথা ছিল এই ম্যাচে। সেই মোতাবেক এগিয়েছে টিম ম্যানেজম্যান্ট। একমাত্র সাকিব আল হাসান আছেন পূর্ণ বিশ্রামে। তাসকিন আহমেদ ফিরলেও শেষ মুহুর্তে অসুস্থ হওয়ায় তার পরিবর্তে দলে আসে খালেদ। এ ছাড়া বিশ্রামে থাকা মুশফিকুর রহিম, তাওহীদ হৃদয়রা ফিরেছেন দলে। মেহেদি হাসান মিরাজ ফিরলেও তাকে নিয়ে শংকা আছে। সতর্তকতা হিসেবে তাই আফিফ হোসেন ধ্রুবকেও ডেকেছে টিম ম্যানেজম্যান্ট।

প্রায় সব ম্যাচে একাধিক পরিবর্তন নিয়ে নামাকে নিজেদের জন্য ভালো হিসেবে দেখছেন শান্ত, ‘আমার মনে হয়, সবাই রোটেশনের মধ্যে আছে। সামনে আমাদের অনেকগুলো ম্যাচ। সো সবার রিকভারিটা দরকার আছে। এটাও টিমের একটা প্ল্যান। সবাই এটা নিয়েও অবগত আছে। এমন না যে সবাই হঠাৎ করে এসে খেলতেছে। বা কেউ জানত না এমন না। সবাই জানত প্ল্যানটা। ওই অনুযায়ী প্রিপারেশনটা নেওয়া হচ্ছে ওই চ্যালেঞ্জটা নেওয়ার জন্য সবাই প্রস্তুত। এশিয়া কাপের মাঝপথে ইনজুরি নিয়ে দেশে ফেরা শান্তর সামনে সুযোগ নতুন রিদমে বিশ্বকাপের বিমান ধরার। অধিনায়ক সাকিব থেকে শেখা মন্ত্র মাঠে কাজে লাগিয়ে সর্বোচ্চটা উজাড় করে দিতে চান বাংলাদেশের হয়ে সব সংস্করণ মিলিয়ে ৭৭ ম্যাচ খেলা এই ক্রিকেটার। উইকেট কেমন হবে এটা নিয়েও ভাবছেন না শান্ত। উইকেটের আচরণ কাজে লাগিয়ে খেলার জন্য মুখিয়ে তার দল।

এদিকে ২০১৩ সালের পর বাংলাদেশের মাটিতে কিউইদের সামনে সিরিজ জেতার হাতছানি। চলতি সিরিজের আগে গত ১০ বছরে কোনো ম্যাচই জেতেনি কিউইরা। এবার সেই সুযোগ কাজে লাগাতে চান হ্যানরি নিকোলস, ‘যখন আমরা এখানে সিরিজ খেলতে আসি, আমাদের লক্ষ্য ছিল প্রত্যেক ম্যাচই জেতা। আমরা জানি এখানে খেলা কতটা কঠিন, শেষ দুটা সিরিজ আমরা এখানে হেরেছি। দল হিসেবে কাল আমাদের সামনে সিরিজ জয়ের দারুণ সুযোগ।’